আর. মুথুরমণ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আর. মুথুরমণ
আর. মুথুরমণ.JPG
১৯৬৪ সালের চলচ্চিত্র 'সার্ভার সুন্দরম'-এ মুথুরমণ
জন্ম
মুথুরমণ রাধাকৃষ্ণ ওন্থিরিয়ার

৪ জুলাই ১৯২৯
মৃত্যু১৬ অক্টোবর ১৯৮১(1981-10-16) (বয়স ৫২)
পেশাচলচ্চিত্র অভিনেতা, প্রযোজক
কর্মজীবন১৯৫৫-'৮১
দাম্পত্য সঙ্গীসুলোচনা মুথুরমণ
সন্তানকার্তিক (অভিনেতা) সহ মোট ৪ জন সন্তান

আর. মুথুরমণ (১৯২৯-১৯৮১) তামিল চলচ্চিত্র জগতের একজন অখ্যাত অভিনেতা ছিলেন। [১] তার অভিনীত চলচ্চিত্রগুলোতে তিনি সহ-অভিনেতা হিসেবে থাকতেন; ১৯৫০-এর দশকে অভিনয় জগতে ঢোকা মুথুরমণ কেবলমাত্র কাদালিক্কা নেরামিল্লাই (১৯৬০-এর দশকের চলচ্চিত্র)-এ অভিনয় করে খ্যাতি পেয়েছিলেন। তার ছেলের নাম হচ্ছে কার্তিক যে ১৯৮১ সালের চলচ্চিত্র আলাইগাল ওইভাতিল্লাই দ্বারা অভিনয় জগতে পা রাখে।

প্রাথমিক জীবন এবং কর্মজীবন[সম্পাদনা]

তামিলনাড়ুর তাঞ্জাবুর-এর একটি গরীব মধ্যবিত্ত পরিবারে ১৯২৯ সালের ৪ জুলাই জন্মগ্রহণ করেন মুথুরমণ, তার পুরো নাম ছিলো মুথুরমণ রাধাকৃষ্ণ ওন্থিরিয়ার। মাত্র দশম শ্রেণী পর্যন্ত পড়ে মুথুরমণ মাদ্রাজ (বর্তমানে চেন্নাই) শহরের একটি বিপণীবিতানে কর্মচারী হিসেবে কাজ করতেন। ভারতের স্বাধীনতার পরের বছর ১৯৪৮ সালে মুথুরমণ কাজের সন্ধানে দিল্লি পাড়ি জমান এবং সেখানে কুলির কাজ করতেন, পরে ১৯৫০ সালে তিনি মাদ্রাজে মঞ্চনাটকে কাজ করার সুযোগ পান; দিল্লিতেই তার একজন মাদ্রাজি লোকের সঙ্গে পরিচয় হয়ে যায়। ১৯৫৪ সালে তিনি চলচ্চিত্র পরিচালক এ. কশিলিঙ্গমের সঙ্গে পরিচিত হন মঞ্চ নাটকে অভিনয়ের সময়, কশিলিঙ্গম মুথুরমণকে তার চলচ্চিত্র 'রেঙ্গুন রাধা'তে নেওয়ার কথা ভাবেন এবং নিয়ে নেন, চলচ্চিত্রটি ১৯৫৬ সালে মুক্তি পায়, চলচ্চিত্রটির কাহিনী লিখেছিলেন করুণানিধি মুথুবেল এবং সি. এন. আন্নাদুরাই আর নায়ক-নায়িকা ছিলেন শিবাজি গণেশন আর পি .ভানুমতি। চলচ্চিত্রটিতে একটি ছোটো চরিত্রে অভিনয় করেন মুথুরমণ, চরিত্রটি একজন আইনজীবীর ছিলো। এরপর জেমিনি গণেশন এবং সাবিত্রী অভিনীত 'করপুক্করসি' নামের একটি চলচ্চিত্র ১৯৫৭ সালে মুক্তি পায়, মুথুরমণ এটিতেও অভিনয় করেন। ১৯৫৮ সালে তার মুথুরমণ অভিনীত কোনো চলচ্চিত্র মুক্তি পায়নি, কিন্তু ১৯৫৯ সালে পাঁচটি চলচ্চিত্র মুক্তি পায়।

১৯৬০-এর দশকে তিনি আবার শিবাজি গণেশনের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পান, এছাড়া এম. জি. রামচন্দ্রনের সঙ্গেও তিনি একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৬৪ সালের চলচ্চিত্র কাদালিক্কা নেরামিল্লাই-এ অভিনয় করে তিনি সর্বপ্রথম দর্শকের নজর কাড়েন,[২] যদিও এই চলচ্চিত্রেও তিনি প্রধান নায়ক ছিলেন না। ১৯৬৪ সালের চলচ্চিত্র সার্ভার সুন্দরম-এ মুথুরমণ নাগেশ এবং কে. আর. বিজয়ার সঙ্গে অভিনয় করেন, এই চলচ্চিত্রটিতে তার চরিত্র কে. আর. বিজয়ার প্রেমিকের ছিলো।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

১৯৮১ সালের ১৬ অক্টোবর [৩] মুথুরমণ উটিতে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান, মুনড্রাম পিরাই চলচ্চিত্রের দৃশ্যায়ন হচ্ছিলো। [৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. R. Muthuraman, IMDb, সংগ্রহের তারিখ ২৯ নভেম্বর ২০০৮ 
  2. "Archived copy"। ৮ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১২ 
  3. "Potpourri of titbits about Tamil cinema - Muthuraman"Kalyanamalai Magazine। সংগ্রহের তারিখ ১৮ অক্টোবর ২০১৬ 
  4. "OBITUARIES" (PDF)Variety। ৪ নভেম্বর ১৯৮১। সংগ্রহের তারিখ ১৮ অক্টোবর ২০১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]