আবদুর রহমান ওয়াহিদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কে. এইচ.
আবদুর রহমান ওয়াহিদ
President Abdurrahman Wahid - Indonesia.jpg
ইন্দোনেশিয়ার ৪র্থ রাষ্ট্রপতি
কাজের মেয়াদ
২০ অক্টোবর, ১৯৯৯ – ২৩ জুলাই, ২০০১
উপরাষ্ট্রপতিমেঘবতী সুকর্ণপুত্রী
পূর্বসূরীইউসুফ হাবিবি
উত্তরসূরীমেঘবতী সুকর্ণপুত্রী
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্মআবদুররহমান আদ-দাখিল
(১৯৪০-০৯-০৭)৭ সেপ্টেম্বর ১৯৪০
জমবাং, পূর্ব জাভা, ডাচ ইস্ট ইন্ডিজ
মৃত্যু৩০ ডিসেম্বর ২০০৯(2009-12-30) (বয়স ৬৯)
জাকার্তা, ইন্দোনেশিয়া
সমাধিস্থলজমবাং, পূর্ব জাভা, ইন্দোনেশিয়া
রাজনৈতিক দলন্যাশনাল এওয়াকেনিং পার্টি
দাম্পত্য সঙ্গীসিন্তা নূরিয়া
সন্তান
প্রাক্তন শিক্ষার্থীকরাচী গ্রামার স্কুল[১]
আল-আজাহার বিশ্ববিদ্যালয় (ইসলামিক স্টাডিজ ১৯৬৭)
বাগদাদ বিশ্ববিদ্যালয়
জীবিকাধর্মীয় নেতা, রাজনীতিবিদ
ধর্মসুন্নি
ওয়েবসাইটwww.gusdur.net

আবদুর রহমান ওয়াহিদ (এই শব্দ সম্পর্কেউচ্চারণ  ahb-doo-RAH-mahn wah-HEED-'; জন্ম: ৭ সেপ্টেম্বর, ১৯৪০ - মৃত্যু: ৩০ ডিসেম্বর, ২০০৯) পূর্ব জাভার জমবাং এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ইন্দোনেশিয়ার বিশিষ্ট রাজনৈতিক নেতা ছিলেন। ১৯৯৯ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালন করেন। নাহদাতুল উলামা’র দীর্ঘকালীন সভাপতি ও ন্যাশনাল এওয়াকেনিং পার্টির (পিকেবি) প্রতিষ্ঠাতা তিনি। ১৯৯৮ সালে সুহার্তো’র পদত্যাগের পর তিনি ইন্দোনেশিয়ার প্রথম নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

জন্মকালীন সময়ে তাঁর নাম ছিল ‘আবদুররহমান আদ-দাখিল’।[২][৩] আবদুল ওয়াহিদ হাসিম ও সিতি সলিচাহ তাঁর বাবা-মা। পাঁচ ভাই-বোনের মধ্যে তিনি জ্যেষ্ঠ সন্তান। তাঁর বাবা জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের সাথে যুক্ত ছিলেন। জাকার্তায় ক্রিস প্রাইমারী স্কুলে অধ্যয়ন করেন। এরপর তিনি মাতরামান পারওয়ারি প্রাইমারী স্কুলে পড়েন। জ্ঞানের ক্ষেত্র প্রসারকল্পে তাঁর বাবা তাঁকে অ-মুসলিম বই, সাময়িকী ও সংবাদপত্র অধ্যয়নে উৎসাহিত করতেন।[৪] ১৯৫২ সালে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রী থেকে বাবার পদত্যাগ স্বত্ত্বেও পরিবারটি জাকার্তায় থেকে যান। এপ্রিল, ১৯৫৩ সালে গাড়ী দুর্ঘটনায় তাঁর বাবার মৃত্যু ঘটে। ১৯৫৪ সালে জুনিয়র হাইস্কুলে পড়েন। ঐ বছর তিনি পাশ না করায় পুণরায় তাকে পরীক্ষায় অংশ নিতে হয়। মায়ের সিদ্ধান্ত মোতাবেক তাঁকে যোগিকার্তায় শিক্ষালাভের জন্য প্রেরণ করা হয়। ১৯৫৭ সালে জুনিয়র হাই স্কুল থেকে কৃতকার্য হন।

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

হাবিবি সরকারের বিরুদ্ধে থেকে মেঘবতী ও আমিয়েনের সাথে ১৯৯৯ সালের আইনসভার নির্বাচনের জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন।[৫] নভেম্বর, ১৯৯৮ সালে সিগাঞ্জুরে নিজ বাসভবনে মেঘবতী, আমিয়েন ও দশম সুলতান হামেংকুবুউনো’র সাথে ঐকমত্যে পৌঁছেন। ৭ অক্টোবর, ১৯৯৯ তারিখে পিকেবি আনুষ্ঠানিকভাবে ওয়াহিদকে তাদের রাষ্ট্রপতি প্রার্থীরূপে ঘোষণা করে।[৬]

২০ অক্টোবর, ১৯৯৯ তারিখে ৩৭৩-৩১৩ ভোটে মেঘবতীকে পরাজিত করে ইন্দোনেশিয়ার চতুর্থ রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন।[৭] ফলে মেঘবতীর সমর্থকেরা দাঙ্গায় মেতে উঠে। এরপর ২১ অক্টোবর, ১৯৯৯ তারিখে পিপিপি’র হামজা হাজকে হারিয়ে মেঘবতী উপ-রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পান।

অবসর[সম্পাদনা]

টিএনআইয়ের সাথে ভাল সম্পর্ক ছিল না। নিজেদের ক্ষমতা প্রদর্শনে প্রেসিডেন্সিয়াল প্যালেসের দিকে তাক করে ট্যাঙ্ক ও ৪০,০০০ সেনা মোতায়েন করেন।[৮] ২৩ জুলাই, এমপিআর ওয়াহিদকে অভিশংসন ঘটিয়ে তাঁকে বরখাস্ত করে ও মেঘবতীকে রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব দেয়। কিছুদিন তিনি প্রাসাদে থাকলেও শারীরিক অসুস্থতার কারণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

সিন্তা নূরিয়া নাম্নী এক রমণীকে বিয়ে করেন। তাঁদের সংসারে চার কন্যা সন্তান রয়েছে। ডিসেম্বর, ২০০৯ সালের শেষার্ধ্বে তাঁর শরীর বেশ ভেঙ্গে পড়ে। কিডনী বিকল, হৃদরোগ ও ডায়াবেটিসের সমস্যা থাকায় ৩০ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬:৪৫ ঘটিকায় তাঁর দেহাবসান ঘটে। রাষ্ট্রপতি সুসিলো বামবাং ইয়ুধনো তাঁকে দেখতে আসেন।[৯][১০][১১] ৩১ ডিসেম্বর রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাঁকে সমাহিত করা হয় ও সাতদিনের জন্য রাষ্ট্রীয় পতাকা অর্ধ-নমিত থাকে।[১২][১৩] নিজ জন্মস্থান জমবাংয়ে দাদা ও পিতা-মাতার সাথে তাঁকে দাফন করা হয়।[১৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Barton, Greg (২০০২)। Abdurrahman Wahid: Muslim Democrat, Indonesian President। Sydney: University of New South Wales Press। আইএসবিএন 978-0-86840-405-9. 
  2. "From Abdurrahman Addakhil to Gus Dur (Indonesian)"। Surya Online। ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯। ১ জানুয়ারি ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ 
  3. "Obituary: Why fuss?!"The Jakarta Post। ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ 
  4. Barton (2002), page 49
  5. Barton (2002), page 255
  6. Barton, pages 281
  7. Conceicao, J.F. (২০০৫)। Indonesia's Six Years of Living Dangerously। Singapore: Horizon Books। পৃষ্ঠা 9। আইএসবিএন 981-05-2307-6 
  8. Barton (2002), page 363
  9. "Gus Dur Wafat"Kompas (Indonesian ভাষায়)। ৩০ ডিসেম্বর ২০০৯। ২ জানুয়ারি ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০০৯ 
  10. "Former President Abdurrahman Wahid Dies"Jakarta Globe। ৩০ ডিসেম্বর ২০০৯। ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০০৯ 
  11. "Gus Dur died of complications"ANTARA। ৩০ ডিসেম্বর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০০৯ 
  12. "Indonesia to hold state funeral for former president Wahid"The Jakarta Post। ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ 
  13. "Farewell cleric of pluralism"। Xinhua News Agency। ৩০ ডিসেম্বর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০০৯ 
  14. "Gus Dur akan Dimakamkan di Sebelah Kakeknya"Tempo (Indonesian ভাষায়)। ৩০ ডিসেম্বর ২০০৯। ৩ জানুয়ারি ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০০৯ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

গ্রন্থপঞ্জী[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

রাজনৈতিক দপ্তর
পূর্বসূরী
ইউসুফ হাবিবি
ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রপতি
২০ অক্টোবর, ১৯৯৯ - ২৩ জুলাই, ২০০১
উত্তরসূরী
মেঘবতী সুকর্ণপুত্রী
পার্টির রাজনৈতিক কার্যালয়
পূর্বসূরী
নেই
ন্যাশনাল এওয়াকেনিং পার্টির রাষ্ট্রপতি প্রার্থী
১৯৯৯ (বিজয়ী)
উত্তরসূরী
নেই