আধুনিক বিবর্তনিক সংশ্লেষণ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

আধুনিক সংশ্লেষণ  ব্যাপকভাবে গৃহীত[১] বিংশ শতাব্দীর একটি যৌথ গাণিতিক কাঠামো  যা চার্লস ডারউইন ও গ্রেগর মেন্ডেলের ধারনার মিলনসাধন ঘটায় এবং  ইভোলিউশনকে জীববিজ্ঞানের কেন্দ্রীয় শাখায়  প্রতিষ্ঠিত করে। যদিও ভ্রূণতত্ত্বকে  প্রারম্ভিকভাবে বিংশ শতাব্দীর আধুনিক সংশ্লেষণ মধ্যে একত্রিত করা হয় নি; তার জন্য ১৯৭০ সালে জিন ম্যানিপুলেশন কৌশল উন্নয়ন, আণবিক পর্যায়ে গঠন কৌশল বোধগম্যতা বৃদ্ধি, এবং বিবর্তনের আধুনিক সংশ্লেষণের উত্তরসূরী, বিবর্তনীয় ডেভেলপমেন্টাল বায়োলজি সৃষ্টির অপেক্ষা করতে হয়েছিল।

ঊনবিংশ শতকের  ডারউইন ও মেন্ডেলীয় বংশগতিবিদ্যার সাহায্যে প্রাকৃতিক নির্বাচনের ধারনা ১৯১৮ এবং ১৯৩২  এর মধ্যে, রোনাল্ড ফিশার, জে. বি. এস. হ্যালডেন এবং সিওয়াল রাইট  দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে রোনাল্ড ফিশার ছিলেন পপুলেশন জেনেটিক্স এর তিন প্রতিষ্ঠাতার একজন।  

আধুনিক সংশ্লেষণ বিংশ শতাব্দীর প্রথম দিকের বছরগুলোতে জীববিজ্ঞানীদের মধ্যে শ্রেনিকরণ ও দুর্বল যোগাযোগ দ্বারা সৃষ্ট দুর্বোধ্যতা এবং সন্দেহ সমাধান করে। মূল জিজ্ঞাসা ছিল মেন্ডেলীয়  বংশগতিবিদ্যা প্রাকৃতিক নির্বাচনের মাধ্যমে ক্রমবিবর্তনের সাথে সহাবস্তান করতে পারবে কি না। দ্বিতীয় প্রশ্ন ছিল  জীবাশ্মবিদদের দেখা ম্যাক্রোবিবর্তনের বড়মাপের পরিবর্তনগুলো সাধারন জনগোষ্ঠীর মাইক্রোবিবর্তন দ্বারা ব্যাখ্যা করা  যাবে কি না।

জিনবিজ্ঞানী, যারা প্রাকিতিক পরিবেশ এবং পরীক্ষাগার জনসংখ্যার চর্চা করে,তারা আধুনিক সংশ্লেষণের পক্ষে প্রমাণ দিয়েছেন ।এই গবেষণায় বিবর্তন তত্ত্বের জন্য অপরিহার্য ছিল। সংশ্লেষণ জীববিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখা যা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছিল, বিশেষ করে জেনেটিক্স, কোষবিদ্যা, সিসটেম্যাটিক্স, উদ্ভিদবিদ্যা, অঙ্গসংস্থানবিদ্যা, বাস্তুসংস্থান এবং জীবাশ্ববিজ্ঞান এদের একত্রিত করে। 

১৯৪২ সালে জুলিয়ান হাক্সলি তার বই “ইভোলিউশনঃ দি মডার্ন সিনথেসিস” এ আধুনিক সংশ্লেষণ  শব্দটি প্রথম ব্যবহার করেন ।