আজহারুল ইসলাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আজহারুল ইসলাম
মোঃ আজহারুল ইসলাম.jpg
নীলফামারী-৩[১]
কাজের মেয়াদ
২৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৯১ – ১৯৯৬
প্রধানমন্ত্রীখালেদা জিয়া
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৯৪৪
নিলফামারী জেলা, পূর্ব পাকিস্তান
মৃত্যু১৯৯৬
ঢাকা, বাংলাদেশ
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামীলীগ
দাম্পত্য সঙ্গীহালিমা আজহার
জীবিকারাজনীতিবিদ

আজহারুল ইসলাম (১৯৪৪ - ১৯৯৬) ছিলেন বাংলাদেশের নীলফামারী জেলার বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের একজন রাজনীতিবিদ। তিনি বাংলাদেশের একজন নির্বাচিত সংসদ সদস্য হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

আজহারুল ১৯৪৪ সালে বাংলাদেশের নীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলার ১ নং বড়ভিটা ইউনিয়নে জন্মগ্রহণ করেন।।তাঁর পিতার নাম মরহুম মোঃ মফেল উদ্দীন সরকার। তিনি বড়ভিটা হাই স্কুল থেকে মাধ্যমিক পাশ করে নীলফামারী কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক এবং স্নাতক সম্পন্ন করেন। বড়ভিটা হাইস্কুলে শিক্ষকতার মাধ্যমে কর্মজীবন শুরু করেন।

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

আজহারুল নীলফামারী কলেজে পড়ার সময় ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন এবং বঙ্গবন্ধুর ছয় দফার পক্ষে প্রচার শুরু করেন। ১৯৭০ সালের পাকিস্তান সাধারন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের পক্ষে ২৬ বছর বয়সে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে কিশোরগঞ্জ উপজেলার মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক হিসেবে ভুমিকা রাখেন।পঁচাত্তর সালে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের কিছুদিন পর তাঁকেও গ্রেফতার করা হয়,সেসময় তিনি জাতীয় চার নেতার সাথে কারাগারে ছিলেন।

আজহারুল পঞ্চম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নীলফামারী-৩ (জলঢাকা -কিশোরগঞ্জ) থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। [২] ১৯৯১ সাল থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত জাতীয় সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে তিনি পরাজিত হন।

১৯৯৬ সালের ৪ই ডিসেম্বর হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন। নীলফামারী জেলার বড়ভিটা গ্রামে তাকে সমাধিস্থ করা হয়।তিনি মৃত্যুকালে ৫ মেয়ে ও ২ পূত্র সন্তান রেখে যান।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "List of 5th Parliament Members"parliament.gov.bd। Bangladesh Parliament। সংগ্রহের তারিখ ২৯ অক্টোবর ২০১৮ 
  2. "মরহুম আজহারুল ইসলাম উত্তরবঙ্গের ক্ষণজন্মা রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব"স্বাধীন বাংলা১৬.কম। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুন ২০২০