অ্যান ইয়ারোস্লাভনা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অ্যান ইয়ারোস্লাভনা
Anna of Kiev.png
ফ্রাঙ্কস এর রাণী কনসোর্ট
কার্যকাল১৯ মে, ১০৫১ - ৪ আগস্ট ১০৬০
রাজ্যাভিষেক১৯ মে ১০৫১
জন্ম১০৩০ (সম্ভাব্য)
মৃত্যু৫ সেপ্টেম্বর, ১০৭৫
দাম্পত্য সঙ্গীফ্রান্সের প্রথম হেনরি
ভালোইয়া এর চর্তুথ রালফ
বংশধরফ্রােন্সের প্রথম ফিলিপ
ভেরমান্ডোয়া এর প্রথম হিউগ
রাজবংশরুরিক
পিতাজ্ঞানী ইউরোস্লাভ
মাতাসুইডেনের ইংয়েজার ওলোফসডোট্টের
স্বাক্ষরঅ্যান ইয়ারোস্লাভনা স্বাক্ষর

অ্যান ইয়ারোস্লাভনা (সম্ভাব্য ১০৩০-১০৭৫) [১] ছিলেন একজন রূশ রাজকুমারী। তিনি রাজা প্রথম হেনরি এর সাথে বিবাহের মাধ্যমে ফ্রান্সের রাণীর পদ লাভ করেন। ১৯৬০ সালে রাজা হেনরির মৃত্যুর পর থেকে তার সাথে ভালোইয়া এর চর্তুথ রালফ এর বিতর্কিত বিবাহ হওয়া পর্যন্ত তার সন্তান প্রথম ফিলিপ এর নাবালক থাকাকালীন সময়ে রাজ্য শাসন করেন। তিনি সেনলিস এ সেন্ট ভিনসেন্ট অ্যাবে গঠন করেন।

শৈশব[সম্পাদনা]

অ্যান কিয়েভের গ্রান্ড প্রিন্স এবং নভগোরড এর রাজকুমার, জ্ঞানী ইয়ারোস্লাভ এবং তার দ্বিতীয় স্ত্রী, সুইডেনের ইংয়েজার ওলোফসডোট্টের এর সন্তান।[১] তার সঠিক জন্ম তারিখ অজানা, ফিলিপ ডেলোর্মের মতে, তার জন্ম সাল ছিল ১০২৭ খ্রিষ্ট্রব্দ। অ্যান্ড্রিও গ্রেগোরোভিচ ১০৩২ সালে ইউরোস্লাভ এর জন্ম হওয়া এক কন্যা সন্তান এর ক্রনিকল এর কথা উল্লেখ করেন এবং মনে করেন অ্যান এর জন্য ১০৩২ সালে।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

অ্যান পিতামাতার কততম সন্তান তা সঠিক জানা না গেলেও, এটা অনেকটাই নিশ্চিত যে, তিনি তার পিতামাতার কনিষ্ঠা কন্যা সন্তান ছিলেন। তার শৈশব এবং অধ্যায়নের বিষয়েও অনেক অল্প জানা যায়। ধারণা করা হয় যে তিনি শিক্ষিত ছিলেন, ১০৬১ সালের একটি নথির অন্তর্ভূক্ত একটি সিরিলীয় লিপিতে তার প্রাপ্ত সাক্ষর থেকে বোধা যায় অন্তত সাক্ষর করার মতো যোগ্যতা ছিল তার। ডেলোর্ম ইংঙ্গিত করেন যে, ইউরোস্লাভ তার রাজ্যে অনেকগুলো বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন এবং তার পরিবারে শিক্ষার উচ্চ মূল্য ছিল আর এ কারণে ডেলোর্ম প্রস্তাব করেন যে, অ্যান এর উচ্চ শিক্ষাগত ছিল। গ্রেগোরোভিচ এর মতে, অ্যান ফ্রান্সের রাজা প্রথম হেনরির সাথে বিয়ের প্রস্তুতি হিসেবে ফরাসি ভাষা শেখেন।

বিবাহ ধার্য হওয়া[সম্পাদনা]

১০৪০ এর দশকের শেষের দিকে রাজা প্রথম হেনরির প্রথম স্ত্রী, ফ্রিসিয়া এর মাতিলদা এবং প্রথম সন্তানের মৃত্যুর পর অ্যান এর সাথে তার বিয়ের কথা শুরু হয়, যখন তিনি অ্যান চেয়ে ১৮ বছরের বড় ছিলেন। উত্তরাধিকার রেখে যাওয়ার চাপ এবং চার্চের সমগত্রীয় বিবাহের উপর অসম্মতির কারণে হেনরি অসম্পর্কিত কনে খুজতে বাধ্য হন। অ্যান তাদের কাছে অচেনা ছিল না। ইউরোস্লাভ বাইজেন্টাইন সাম্রাজ্র্যের প্রভাব থেকে বিরত থাকতে তার অন্য কিছু কন্যা সন্তানদেরও পশ্চিমাদের সাথে বিবাহ দেন।

১০৪৯ এর শরৎকাল বা ১০৫০ সালের বসন্তকালে রাজা হেনরি ইয়ারোস্লাভ এর দরবারে গাউথিয়া এর বিশপ মাউ এবং চৌনি এর গেসেলিন এবং নাম জানা যায় এরকম আরো উপদেষ্টাকে পাঠান। হতে পারে রুশে চালনস এর রোজার এর উপস্থিতিকালে একই সাথে দুটো কুটনৈতিক উদ্দেশ্য ছিল।[১][২][৩] অ্যান প্রায়ই “মূল্যবান উপহার” নিয়ে কিয়েভ ত্যাগ করলেও তার বিয়ের কথা বা যৌতুকের আনুষ্ঠানিকতার কোনো নথি টিকে নেই। গ্রেগোরোভিচ এর মতে, তার সম্পদের কিছু অংশ তিনি ফ্রান্সে নিয়ে আসেন, যার মধ্যে যাসিন্থ মুক্তাও ছিল যা পরবর্তীতে অ্যাবোট সুগার সেন্ট ডেনিস এর একটি রিলিকুয়ারি স্থাপন করেন। অ্যান ১০৫০ সালের গ্রীস্মকাল বা তুষারপাতের ঋতুতে কিয়েভ ত্যাগ করেন।[২][৪] Anne left Kiev in the summer or fall of 1050 and traveled to Reims.[১]

রাজ্যাভিষেক এবং রাণি হিসেবে দায়িত্ব পালন[সম্পাদনা]

১০৫১ সালের মে মাসের ১৯ তারিখে পঞ্চাশত্তমী রবিবার এর ভোজনের সময় অ্যান এর সাথে হেনরি এর বিবাহ হয়।[১][৫] অ্যান এর চেয়ে হেনরি প্রায় ২০ বছরের বড় ছিল। লিয়েতবার্তুস এর ক্যামব্রাই এর বিশপ হিসেবে ঘোষিত হওয়ার পর তাদের বিবাহ অনুষ্ঠিত হয়। তিনি প্রথম ফরাসি রাণি হিসেবে রিমস ক্যাথেড্রাল এ রাজ্যাভিষেক করেন।

অ্যান এবং হেনরি ৯ বছরের বিবাহিত ছিল এবং তাদের ৩টি সন্তান ছিল: রোবাট (যিনি অল্প বয়সে মৃত্যুবরণ করেন), ফিলিপ এবং হিউগ। তার নিজের সন্তানের ফিলিপস নামকরণের মাধ্যমে তিনিই প্রথম সেই গ্রিক নামটি পশ্চিম ইউরোপের রাজপরিবারে ব্যবহার করেন বলে প্রায়ই ধারণা করা হয়। তিনিই হয়তো এই নামটি পূর্ব অর্থোডক্স সংস্কৃতি থেকে গ্রহণ করেছিলেন। হয়তো তাদের অ্যামা নামক এক কন্যা সন্তানও ছিল (জন্ম: সম্ভবত ১০৫৫ সালে)। তিনি বিবাহিত ছিল কিনা বা কখন মৃত্যুবরণ করেন তা জানা যায়নি। বলা হয়ে থাকে যে, অ্যান এবং হেনরি ছিলেন বিটিফাই করা সত্ত্বা, অ্যাডিগনা এর পিতামাতা।[৬]

১০৫৯ সালে, গ্রেগোরিয়ীয় পুনর্গঠন নিয়ে রাজা হেনরি এবং চার্চের মধ্যে মতবিরোধ চলে। এসময়ে পোপ দ্বিতীয় নিকোলাস অ্যানকে একটি বার্তা পাঠিয়ে তাকে তার সঠিক ভূল নির্ণয়ের বিচার বুদ্ধি ব্যবহার করতে এবং শোষনের অত্যাচারের বিরুদ্ধে হস্তক্ষেপ করতে পরামর্শ দেন। এছাড়াও তিনি তাকে রাজা হেনরিকে ধৈর্যের সাথে শাসন কার্য পরিচালনার করার জন্য বোঝাতে বলেন। ডেলোর্ম এর মতে, কিছু ইতিহাসবিদ পোপ এর এই চিঠিকে অ্যান রোমান ক্যাথলিক ধর্ম থেকে পূর্ব অর্থোডক্সিতে ধর্মে রূপান্তরের নির্দেশক হিসেবে মনে করেন।

রাজ প্রতিনিধিত্ব[সম্পাদনা]

২০১৪ সালের একটি ইউক্রেইনীয় মুদ্রায় অ্যান এর চিত্র

১০৬০ সালের আগস্ট মাসের ৪ তারিখে হেনরি এর মৃত্যুর পর ফিলিপ সিংহাসল লাভ করেন।[১][৭] হেনরি এর বোনের স্বামী ফ্লেন্ডার এর কাউন্ পঞ্চম বাল্ডউইন ফিলিপ এর অভিভাবক হিসেবে নিযুক্ত হন।[১] এ সময়ে অ্যান এর সম্ভবত শাসন বিভাগে কিছু ক্ষমতা ছিল। ১০৬০ সালের একটি নথিতে হেনরি এর নামের পর অ্যান এর নাম পাওয়া যায়, এছাড়াও বিভিন্ন সনদে বাল্ডউইন এর মতো অ্যান এর নামও চার বার বেশি ছিল।[১] অ্যান ফিলিপ এর শিক্ষক নিজেই নিযুক্ত করেন। ফিলিপ এর শিক্ষক একটি গ্রিক পদবি অনুযায়ী কাউন্ট হিসেবেই পরিচিত ছিলেন।[১]

রাণি অ্যান এর সেই সময়ের সাক্ষর শুধুমাত্র সেন্ট ক্রেপলিন লা গ্রান্ড এর অ্যাবোট এর জন্য সইসরস এ জারি করা একটি নথিতে মুদ্রিত অবস্থায় পাওয়া যায়, যা বর্তমানে ফ্রান্সের জাতীয় লাইব্রেরিতে সংরক্ষিত রয়েছে।[৮] নথিটিতে রাজার প্রতীকের নিচে অ্যান একটি ক্রস এবং সিরিলিয়ীয় ভাষার আটটি বর্ণ লিখেছিলেন যার, অর্থ সম্ভবত “অ্যান রেইনা”।[১] ১০৬১ সালে তার দ্বিতীয় বিবাহের সময় থেকে তার শাসন বিভাগে ভূমিকা রাখার প্রমাণ হ্রাস পেতে শুরু হয়।[১] তার দ্বিতীয় স্বামী ছিলেন ভালোইয়া এর কাউন্ট চর্তুথ রালফ।[৭] রালফ হেনরি এর চাচাতো ভাই হওয়ায় আত্মীয়তার সম্পর্ক এবং রালফ তখনও তার দ্বিতীয় স্ত্রী, হেকেনেজ এর সাথে বিবাহিত থাকায় এই বিবাহটি বিতর্কিত ছিল.[১]। শৃঙ্খলা ভঙ্গনের জন্য রালফকে চার্চ থেকে বহিস্কার করা হয়।[১] রাজা ফিলিপ এর উপদেষ্টারা তাকে তার মাতা থেকে দূরে সরে যাওয়ার, অর্থাৎ রালফকে অবিশ্বাস করার পরামর্শ দেন।[৭] ১০৬০ সালের শেষের রালফ নিজেকে রাজার সৎ পিতা হিসেবে দাবি করা শুরু করেন।[১] ১০৭৪ সালে তিনি মৃত্যুবরণ করলে অ্যান পুনরায় বিধবায় পরিণত হন।[১]

অ্যান স্যানলিস এ হয়ে মূলত সারাগোসা এর সেইন্ট ভিনসেন্ট এর প্রতি উৎসর্গ করা ধ্বংস হয়ে যাওয়া চাপেল পুনর্নিমাণের জন্য অনেক অর্থ প্রদান করে। তিনি সেই নতুন নির্মাণের জন্য ভূমি এবং আয় উইল করে যান, যাতে সেটি অক্ষত থাকে। তিনি আশ্রমটি উৎসর্গ করার কারণ বর্ণনা করে একটি চিঠিও লিখেন। চিঠিটি গ্রিক অর্থোডোক্স এর একটি আনুগত্যাতা ভঙ্গ করে। উদাহরণস্বরূপ, সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত বাক্যাংশ “আউয়ার লেডি” বাক্যাংশটির পরিবর্তে তিনি “ম্যারি, মাদার অব গড” বাক্যাংশটি লিখেছেন, থিওটোকোস এর পূর্বাঞ্চলে প্রচলিত ধারণাকে নির্দেশ করে। কিছু বিশেষজ্ঞ মনে করেন, চিঠিটি অ্যান নিজে লিখেননি।

মৃত্যু এবং পরবর্তী সময়[সম্পাদনা]

অ্যান এর মৃত্যুর সঠিক তারিখ জানা যায়নি। ডেলোর্ম এর মতে, তিনি ১০৭৫ সালের (যে বছর তার শেষ স্বাক্ষরিত নথি পাওয়া যায়) সেপ্টেম্বর মাসের ৫ তারিখে মৃত্যুবরণ করেন। এই দিনটি সেনলিস এ স্মরণ করা হয়েছিল।[১] তবে অন্যান্যদের মতে, তিনি ১০৮০ সালে মৃত্যুবরণ করেন।[২] ফিলিপ এর ১০৮৯ সালের একটি নথি থেকে প্রাপ্ত একটি টার্মিনুস আনতে কেম নির্দেশ করে যে সে সময়ের অ্যান ইতোমধ্যে মৃত।[২]

১৬৮২ সালে, জেসুইট পুরাকীর্তি বিশেষজ্ঞ, ক্লড-ফ্রাঁসোয়া মেনেস্ট্রিয়ার অ্যাবে অব ভিলারস এর ক্রিস্টারসিয়ান এ অ্যান এর সমাধি খুজে পান বলে ঘোষণা দেন।[১] ভিলার্স ১৩ শতাব্দি পর্যন্ত পরে নির্মিত হওয়ায় এই ঘোষণা পরবর্তীকালে বির্তকের শিকার হয়, তবে অ্যান এর অবশেষ তার মৃত্যুর পরে কোনো সময়ে সেখানে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল এমন সম্ভাবনা থেকে যায়।[১] তবে সেখানে যে স্মৃতিস্তম্ভই ছিল না কেন তা ফরাসি বিপ্লবের সময়ে ধ্বংস হয়ে যায়।

১৮ এবং ১৯ শতকে ফ্রান্স এবং রাশিয়ার মধ্যবর্তী কুটনৈতিক সম্পর্ক বৃদ্ধির কারণে অ্যান এর বিষয়ে প্রত্নতাত্ত্বিকদের মনোযোগ পুণরুজ্জীবীত হয় এবং তার বেশ কিছু সংক্ষিপ্ত জীবনী প্রকাশিত হয়।[১] ২০ শতাব্দিতে, অ্যান ইউক্রেইন এর জাতীয়তাবাদের প্রতীকে রুপান্তরীত হয়।[১] অপরদিকে, ১৯৭৮ সালে, সোভিয়েত ইউনিয়নে “ইউরোস্লাভনা, দ্য কুইন অব ফ্রান্স” নামক একটি চলচিত্র তৈরি করা হয়, যা কোনোভাবেই ইউক্রেইনের জাতীয়তাবাদের সাথে সম্পর্কিত ছিল না। আনতিন রুডনিটডস্কি এর লেখা “অ্যান ইউরোস্লাভনা” নামক একটি অপেরার প্রথম প্রদর্শনী ১৯৬৯ সালে কার্নেহি হোল এ অনুষ্ঠিত হয়। ১৯৯৮ সালে, ইউক্রেইনের সরকার তার সম্মানে একটি ডাকটিকিট চালু করে।[২] ২০০৫ সালে, ইউক্রেইনের সরকার অ্যান এর একটি ব্রোঞ্জ মূর্তি নির্মাণের জন্য অনুদান দেয়, যা রাষ্ট্রপতি, ভিক্টর ইয়োসেনকো উদ্ভোধন করেন।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Delorme, Philippe (২০১৫)। Anne De Kiev : épouse De Henri Ier। Paris: Pygmalion। 
  2. Gregorovich, Andrew (২০১১)। Anna Yaroslavna, Queen of France & Princess of Ukraine: Anne De Kiev। Toronto: Forum। 
  3. Raffensperger, pp. 94–97.
  4. Bauthier, 550; Hallu,168, citing Comptes de Suger
  5. Megan McLaughlin, 56.
  6. Zeilinger, Ingrid (২০২১-০১-১৬)। "Sie ist die Dorfpatronin von Puch" [She is the village patroness of Puch]। Münchner Merkur। Serie: Straßen und ihre Namenspatrone (জার্মান ভাষায়)। ১৬ জানুয়ারি ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-১১-১৪ 
  7. Bogomoletz, Wladimir V (২০০৫)। "Anna of Kiev: An Enigmatic Capetian Queen of the Eleventh Century"। French History19 (3): 299–323। ডিওআই:10.1093/fh/cri032 – JSTOR-এর মাধ্যমে। 
  8. "Diplôme de Philippe Ier, concernant les autels de Pernant et Colombes (1063) (avec la souscription de la reine Anne de Kiev)." 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]