অস্ট্রেলিয়ান ওপেন (টেনিস)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অস্ট্রেলিয়ান ওপেন
Australian Open logo.svg
অফিসিয়াল ওয়েব সাইট
অবস্থান মেলবোর্ন
 অস্ট্রেলিয়া
ভেন্যু মেলবোর্ন পার্ক
সারফেস প্লেক্সিকুশন
পুরুষদের ড্র 128S / 128Q / 64D
মহিলাদের ড্র 128S / 96Q / 64D
প্রাইজমানি A$৩৩,০০০,০০০ (২০১৪)[১]
গ্র্যান্ড স্ল্যাম

অস্ট্রেলিয়ান ওপেন (ইংরেজি: Australian Open) হল চারটি টেনিস গ্র্যান্ড স্ল্যাম টুর্নামেন্টের প্রথমটি যা প্রতিবছর জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন পার্কে অনুষ্ঠিত হয়। অস্ট্রেলিয়ান ওপেন ১৯০৫ সাল থেকে ১৯৮৭ সাল পর্যন্ত গ্রাস কোর্টে অনুষ্ঠিত হলেও ১৯৮৮ সাল থেকে হার্ড কোর্টে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ম্যাট্‌স উইল্যান্ডার হলেন একমাত্র পুরুষ খেলোয়াড় যিনি গ্রাস ও হার্ড দুই কোর্টেই এই টুর্নামেন্ট জিতেছেন।

অন্যান্য গ্র্যান্ড স্ল্যাম টুর্নামেন্টের মতো অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেও পুরুষ এবং মহিলা একক; পুরুষ, মহিলা ও মিশ্র দ্বৈত; জুনিয়র, হুইলচেয়ার ও লিজেন্ডদের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

এই ওপেনের দুটি প্রধান কোর্ট হচ্ছে রড লেভার অ্যারিনা ও হাইসেন্স অ্যারিনা। কোর্ট দুটোর বিশেষ ছাদ রয়েছে যেগুলো বেশি গরম বা বৃষ্টিতে বন্ধ রাখা যায়। অস্ট্রেলিয়ান ওপেন ও উইম্বলেডন এ দুটি স্ল্যামই কেবল ইনডোরে খেলা হয়।

এটি গ্রীষ্মের মাঝামাঝি অনুষ্ঠিত হয়। তাপমাত্রা অসহনীয় অবস্থায় পৌঁছালে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা নীতি গ্রহণ করা হয়।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে সাধারণত প্রচুর দর্শকের সমাগম ঘটে। ২০১০ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে একদিনে ৭৭,০৪৩ দর্শকের উপস্থিতি এবং সর্বমোট ৬৫৩,৮৬০ দর্শকের উপস্থিতি ঘটে যা যে-কোন গ্র্যান্ড স্ল্যামের জন্য রেকর্ড।[২]

২০ বছর ধরে থাকা রিবাউন্ড এইস সারফেস ২০০৮ সালে থেকে প্লেক্সিকুশন সারফেসে পরিবর্তন করা হয়।[৩] এই নতুন সারফেসের সুবিধা হল এটি বেশি স্থায়ী এবং বেশি তাপমাত্রার জন্য উপযোগী। এই পরিবর্তন মতবিরোধের সম্মুখীন হয় কারণ এটি ইউএস ওপেনে ব্যবহৃত ডেকোটার্ফ সারফেসের মতোই।[৪] পুরুষ এককে রজার ফেদেরার এবং মহিলা এককে সেরেনা উইলিয়ামস রিবাউন্ড এইস ও প্লেক্সিকুশন এ দুই সারফেসেই এই টুর্নামেন্ট জিতেছেন।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

রিবাউন্ড এইস সারফেসে মার্গারেট কোর্ট অ্যারিনা, ব্যাকগ্রাউন্ডে রড লেভার অ্যারিনা
রড লেভার অ্যারিনা, মেলবোর্ন পার্ক, মেলবোর্ন। খেলার প্রধান কোর্ট।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেন টেনিস অস্ট্রেলিয়া দ্বারা নিয়ন্ত্রিত, যা আগে লন টেনিস অ্যাসোসিয়েশন অব অস্ট্রেলিয়া নামে পরিচিত ছিল। এই টুর্নামেন্ট প্রথমে অস্ট্রেলেশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ নামে পরিচিত ছিল। ১৯২৭ সালে এর নাম হয় অস্ট্রেলিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ এবং ১৯৬৯ সালে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন[৫] ১৯০৫ সাল থেকে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন অস্ট্রেলিয়ার পাঁচটি ও নিউজিল্যান্ডের দুটি শহরে অনুষ্ঠিত হয়েছেঃ মেলবোর্ন (৫৪ বার), সিডনি (১৭ বার), অ্যাডিলেড (১৪ বার), ব্রিসবেন (৭ বার), পার্থ (৩ বার), ক্রাইস্টচার্চ (১৯০৬ সালে) এবং হাস্টিংস (১৯১২ সালে)।[৫] ভৌগোলিক দূরত্ব ও যাতায়াত সমস্যার কারণে প্রথমদিকের টুর্নামেন্টগুলোতে খেলোয়াড়ের অভাব ছিল। ১৯৬৯ সালে টুর্নামেন্টটি অস্ট্রেলিয়ান ওপেন নামে ব্রিসবেনে সকল খেলোয়াড়ের জন্য উন্মুক্ত হিসেবে আয়োজিত হয়।[৬] ১৯৭২ সালে যখন এটি প্রতি বছর একই শহরে আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, কুইয়ং লন টেনিস ক্লাবকেই নির্বাচিত করা হয় কারণ পৃষ্ঠপোষকরা মেলবোর্নকেই পছন্দ করতেন বেশি। ১৯৮৮ সালের টুর্নামেন্টে কুইয়ং লন টেনিস ক্লাব থেকে মেলবোর্ন পার্কে(পূর্বের ফ্লিন্ডার্স পার্ক) স্থানান্তর করা হয় এবং প্রথম রিবাউন্ড এইস সারফেসে খেলা হয়। এবছর ৯০ শতাংশ দর্শক বেড়ে যায়। [৭] টুর্নামেন্টটি সাধারণত ডিসেম্বর বা ডিসেম্বর-জানুয়ারি মাস মিলিয়ে অনুষ্ঠিত হত। ১৯৮৫ সালের ডিসেম্বরের পর ১৯৮৭ সালের জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হবার কারণে ১৯৮৬ সালে এটি অনুষ্ঠিত হয়নি। ১৯৮৭ সালের পর থেকে নিয়মিত জানুয়ারি মাসে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে।

সাম্প্রতিক উপস্থিতি[সম্পাদনা]

২০০৮ অষ্ট্রেলিয়ান ওপেনে মার্গারেট কোর্ট অ্যারিনার প্রশস্ত ভিউ।
  • ২০১৪ – ৬৪৩,২৮০[৮]
  • ২০১৩ – ৬৮৪,৪৫৭[৯]
  • ২০১২ – ৬৮৬,০০৬[১০]
Panorama of Margaret Court Arena during the 2008 Australian Open
  • ২০১১ – ৬৫১,১২৭[১১]
  • ২০১০ – ৬৫৩,৮৬০[১২]
  • ২০০৯ – ৬০৩,১৬০[১৩]
  • ২০০৮ – ৬০৫,৭৩৫[১৪]
  • ২০০৭ – ৫৫৪,৮৫৮[১৫]
  • ২০০৬ – ৫৫০,৫৫০[১৬]
  • ২০০৫ – ৫৪৩,৮৭৩[১৭]
  • ২০০৪ – ৫২১,৬৯১[১৬]

ট্রফি ও প্রাইজমানি[সম্পাদনা]

  • মহিলা এককের বিজয়ীকে ডাফনে আখার্স্ট মেমোরিয়াল কাপ দেয়া হয়।
  • পুরুষ এককের বিজয়ীকে নরম্যান ব্রুকস চ্যালেঞ্জ কাপ দেয়া হয়।

২০১০ সাল থেকে পুরুষ ও মহিলা এককের বিজয়ীকে সমপরিমাণ প্রাইজমানি দেয়া হচ্ছে।

২০১8 সালের পুরুষ ও মহিলা এককের প্রাইজমানি:[১৮]

প্রথম রাউন্ড $২৭,৬০০
দ্বিতীয় রাউন্ড $৪৫,৫০০
তৃতীয় রাউন্ড $৭১,০০০
চতুর্থ রাউন্ড $১২৫,০০০
কোয়ার্টার ফাইনালিস্ট $২৫০,০০০
সেমি ফাইনালিস্ট $৫০০,০০০
রানার্স আপ $১,২১৫,০০০
চ্যাম্পিয়ন $২,৪৩০,০০০

বর্তমান চ্যাম্পিয়ন[সম্পাদনা]

২০১৪ সালের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের চ্যাম্পিয়নরা হলেন:

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Prize Money"। australianopen.com। সংগৃহীত ১ মার্চ ২০১৪ 
  2. The Final Word: Australian Open 2010
  3. List of Classified Court Surfaces
  4. http://boston.bizjournals.com/boston/stories/2008/01/28/story7.html
  5. ৫.০ ৫.১ Tristan Foenander। "History of the Australian Open – the Grand Slam of Asia/Pacific"। Australian Open। সংগৃহীত ২০০৮-০১-২২ 
  6. "Milton Tennis Centre"। Australian Stadiums। সংগৃহীত ২০০৮-০১-২৫ 
  7. Frank Cook (১৪ ফেব্রুয়ারি ২০০৮)। "Open began as Aussie closed shop"The Daily Telegraphnews.com.au। সংগৃহীত ২০০৮-০১-২২ 
  8. "AO 2014 – The Final Word"। ২৭ জানুয়ারি ২০১৪। সংগৃহীত ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  9. "Australian Open 2013 – The Final Word"। ২৮ জানুয়ারি ২০১৩। সংগৃহীত ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  10. "Top 10: Memorable AO2012 moments"। ২৯ জানুয়ারি ২০১২। সংগৃহীত ৪ মার্চ ২০১২ 
  11. "Closing notes: Australian Open 2011"। ৩০ জানুয়ারি ২০১১। সংগৃহীত ২৭ জানুয়ারি ২০১২ 
  12. "Federer wins fourth Australian Open, 16th major singles title"। ৩১ জানুয়ারি ২০১০। সংগৃহীত ৭ মার্চ ২০১০ 
  13. Australian Open 2009 - the final word
  14. "The Australian Open - History of Attendance" (PDF)। Australian Open। আসল থেকে ৫ সেপ্টেম্বর ২০০৭-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত ৩০ জানুয়ারি ২০০৮ 
  15. "AO 2007: The Final Word"Tennis Australia। সংগৃহীত ২৫ জানুয়ারি ২০০৮ 
  16. ১৬.০ ১৬.১ Australian Open Tennis Attendance History — Altius Directory
  17. "Safin credits Lundgren for resurgence"Sports Illustrated (CNN)। ৩০ জানুয়ারি ২০০৫। সংগৃহীত ২৫ জানুয়ারি ২০০৮ 
  18. "Prize Money"। AustralianOpen.com। সংগৃহীত ১৯ জানুয়ারি ২০১১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]