অথর আব্বাস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অথর আব্বাস
Athar Abbas - 17058803.jpg
মেজর জেনারেল অথর আব্বাস
ইউক্রেনে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
২০১৫
মহাপরিচালক আন্তঃ পরিষেবা জনসংযোগ
কাজের মেয়াদ
২০০৮ – ২০১২
পূর্বসূরীওয়াহিদ আরশাদ
উত্তরসূরীঅসীম সালেম বাজওয়া
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম২৩ জুন ১৯৫৫[১]
লাহোর
সম্পর্কভাইবোন: মাজহার আব্বাস, আজহার আব্বাস, জাফর আব্বাস
শিক্ষাএশিয়া প্যাসিফিক সেন্টার ফর সিকিউরিটি স্টাডিজ, জাতীয় প্রতিরক্ষা বিশ্ববিদ্যালয়, কায়দ-ই-আজম বিশ্ববিদ্যালয়
পুরস্কার হিলাল-ই-ইমতিয়াজ (সামরিক)[১]
সামরিক পরিষেবা
আনুগত্যপাকিস্তান পাকিস্তান
শাখাFlag of the Pakistani Army.svg পাকিস্তান সেনাবাহিনী
কাজের মেয়াদ১৯৭৬-২০০২
পদUS-O8 insignia.svg মেজর জেনারেল
ইউনিটসেনা আর্মার্ড কর্পস
কমান্ড৬ষ্ঠ আর্মার্ড ডিভিশন, খড়িয়ান
ডিজি কোয়ার্টারিং অ্যান্ড ল্যান্ডস
ডিজি আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ
যুদ্ধ১৯৯৯-এর ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ
উত্তর-পশ্চিম পাকিস্তানের যুদ্ধ

মেজর জেনারেল অথর আব্বাস আন্তঃবাহিনী জনসংযোগের একজন প্রাক্তন মহাপরিচালক (ডিজি আইএসপিআর) যিনি ২০১৫ সাল থেকে ইউক্রেনে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করছেন। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর একজন দুই তারকা জেনারেল। তিনি ২০০৮ সালের জানুয়ারী থেকে জুন ২০১২ পর্যন্ত আইএসপিআরের ডিজি হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। [২] তিনি জুনে ২০১২ সালে ৩৫ বছর পরে সক্রিয় সামরিক চাকরি থেকে অবসর গ্রহণ করেছিলেন।

সামরিক ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

জেনারেল আব্বাসকে ১৯৭৬ সালের অক্টোবরে পাকিস্তান মিলিটারি একাডেমী, কাকুল থেকে পাকিস্তান আর্মার্ড কর্পস- এর ৫৪ তম পিএমএ লং কোর্সে কমিশন দেওয়া হয়েছিল। তিনি বিভিন্ন কমান্ড, কর্মী এবং নির্দেশিক নিয়োগ করেছেন যা একটি আর্মার্ড রেজিমেন্টের কমান্ড, আর্মার্ড ব্রিগেড এবং সাঁজোয়া বিভাগের অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। তিনি বিভিন্ন সাঁজোয়া গঠনে জেনারেল স্টাফ অফিসার (অপারেশনস) ছিলেন। তিনি একজন স্নাতক কমান্ড ও স্টাফ কলেজের কোয়েটায় এবং মালয়েশিয়ার আর্মড ফোর্সেস স্টাফ কলেজ অফ মালয়েশিয়া থেকে। [২] সক্রিয় সামরিক চাকরির ৩৫ বছরের পরে, আথার আব্বাস জুন ২০১২ এ অবসর গ্রহণ করেছিলেন।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াইয়ের এশিয়া প্যাসিফিক সেন্টার ফর সিকিউরিটি স্টাডিজের এক্সিকিউটিভ কোর্সের একজন অংশগ্রহণকারী। তিনি ইসলামাবাদের জাতীয় প্রতিরক্ষা বিশ্ববিদ্যালয়ে সশস্ত্র বাহিনী যুদ্ধ কোর্স এবং জাতীয় প্রতিরক্ষা কোর্সে অংশ নিয়েছেন। তিনি কোয়েটা এবং ইসলামাবাদের ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজের কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ অনুষদে ছিলেন। তিনি যুদ্ধ স্টাডিজের পাশাপাশি কায়েদ-ই-আজম বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামাবাদ থেকে স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছেন। ২০০৫ সালের জুনে তিনি মেজর জেনারেল পদে পদোন্নতি পেয়েছিলেন এবং ২০০৫ সালের জুন থেকে জুন ২০০৭ পর্যন্ত খড়িয়ানে একটি সাঁজোয়া বিভাগে অধিবেশন করেছিলেন[২]

অন্যান্য অফিসে নিয়োগ[সম্পাদনা]

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরে যোগদানের পূর্বে জেনারেল আব্বাস সাধারণ সদর দফতর কোয়ার্টারমাস্টার জেনারেল শাখায় মহাপরিচালক কোয়ার্টারিং এবং ল্যান্ডসের দায়িত্ব পালন করছিলেন। তিনি ডিজি আইএসপিআর পদে নিযুক্ত হওয়ার পরে মেজর জেনারেল মোহাম্মদ ফারুক তাকে আগের অবস্থানে নিয়ে যান। [৩]

পরিবার[সম্পাদনা]

আথর আব্বাসের তিন সন্তান, দুই মেয়ে ও এক ছেলে হয়েছে। [২] তার তিন ভাই ভাই সাংবাদিকতা ও মিডিয়া সম্পর্কিত, শীর্ষস্থানীয় পাকিস্তানি মিডিয়া সংস্থার সাথে কাজ করছেন। [৩] তার ভাইরা হলেন মাজহার আব্বাস (এআরওয়াই গ্রুপ টেলিভিশন নেটওয়ার্কের হয়ে কাজ করেছেন এবং পাকিস্তান ফেডারেল ইউনিয়ন অব জার্নালিস্টসের নেতৃত্বে ছিলেন), আজাহার আব্বাস জিও নিউজ (টিভি নেটওয়ার্ক) এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক, জাফর আব্বাস, ডনের সম্পাদক (সংবাদপত্র)

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Profile of Athar Abbas on Ministry of Foreign Affairs, Pakistan website ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ তারিখে Retrieved 28 November 2017
  2. "Athar Abbas takes over as new DG ISPR (Profile of Athar Abbas)" (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। ISPR। ২০০৮-০১-১৪। ২০০৮-০১-১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৭ 
  3. Sheikh, Shakil (৯ জানুয়ারি ২০০৮)। "Maj-Gen Athar is new DG ISPR"। The News International (newspaper)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]