ফেব্রুয়ারি ৩০

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
এই নিবন্ধটি ৩০শে ফেব্রুয়ারির বৈধ ক্যালেন্ডার পদ্ধতির ব্যবহার সম্পর্কিত। একটি অবিদ্যমান তারিখ হিসাবে ব্যবহারের জন্য জন্য, দেখুন ফেব্রুয়ারি ৩১

ফেব্রুয়ারী ৩০ তারিকটি কিছু ক্যালেন্ডারে থাকলেও গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডারে এটি ব্যবহার করা হয় না, যেখানে সাধারণত ফেব্রুয়ারী ২৮ দিন হয় এবং অধিবর্ষে হয় ২৯ দিন।

সুইডিশ ক্যালেন্ডার[সম্পাদনা]

সুইডিশ ক্যালেন্ডার ফেব্রুয়ারি ১৭১২

সুইডিশ সাম্রাজ্যের (যে সময় ফিনল্যান্ড অন্তর্ভুক্ত ছিল) জুলিয়ান পঞ্জিকা এর পরিবর্তে ১৭০০ সাল থেকে গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডার ব্যবহার শুরু করে এবং পরবর্তী ৪০ বৎসর জন্য লিপ দিন গুলি বাতিলের পরিকল্পনা করা হয়। যদিও ফেব্রুয়ারী ১৭০০ সালে অধিবর্ষ দিনটি বাদ দেওয়া হয়েছিল কিন্তু, পরের বছরই গ্রেট নর্দার্ন যুদ্ধ শুরু হয়, সুইডিশদের পক্ষে এই সময় ক্যালেন্ডার পরিবর্তে মনোনিবেশ করা সম্ভব হয়নি, ফলে পরবর্তী দুইবার অধিবর্ষে অতিরিক্ত দিনগুলো অপসারণ করা সম্ভব হয়নি এবং ১৭০৪ এবং ১৭০৮ সালে পূর্বের মত অধিবর্ষ পালন করা হয়।

বিভ্রান্তি এবং আরো ভুল এড়ানোর জন্য, ১৭১২ সাল থেকে পুনরায় জুলিয়ান পঞ্জিকা ব্যবহার শুরু করা হয়, এই বছর ফেব্রুয়ারী মাসে অধিবর্ষ দিনটি ছাড়াও অতিরিক্ত একটি দিন যোগ করা হয় এবং ঐ বছর ফেব্রুয়ারী মাসে ৩০ দিন ছিল। এই তারিখটি জুলিয়ান পঞ্জিকা মধ্যে ফেব্রুয়ারী ২৯ এবং গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডারে মার্চ ১১ তারিখ নির্দেশ করে। সুইডিশদের গ্রেগরিয়ান পঞ্জিকাতে পরিবর্তন সম্পন্ন হয় ১৭৫৩ সালে, ঐ বছর ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ ১১ দিন বাদ দিয়ে এটি সম্পন্ন করা হয়।

সোভিয়েত ক্যালেন্ডার[সম্পাদনা]

প্রারম্ভিক জুলিয়ান পঞ্জিকা[সম্পাদনা]

কৃত্রিম ক্যালেন্ডার[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  • শুরুর বছর থেকে অক্সফোর্ড কম্প্যানিয়ন। বনি ব্ল্যাকবার্ন ও Leofranc Holford-Strevens। অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি প্রেস ১৯৯৯। ISBN ০-১৯-২১৪২৩১-৩। পৃষ্ঠা ৯৮-৯৯।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]