প্যারামোর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
প্যারামোর
উদ্ভব ফাঙ্কলিন, টেনেসি, আমেরিকা
ধরন অন্টারনেটিভ রক, ইমো, পপ পাঙ্ক
কার্যকাল ২০০৪–বর্তমান
লেবেল ফুয়েলড বাই রামেন এবং ওয়ার্নার মিউজিক গ্রুপ
ওয়েবসাইট www.paramore.net
সদস্যবৃন্দ হেইলেই উইলিয়ামস
জোস ফারো
জেরেমি ডেভিস
জ্যাক ফাররো
টেইলর ইয়র্ক

প্যারামোর একটি আমেরিকান রক ব্যান্ড যা ২০০৪ সালে টেনেসির ফ্রাঙ্কলিনে গঠিত হয়। ব্যান্ডের সদস্যরা হচ্ছেন ভোকাল হেইলেই উইলিয়ামস, লিড গিটারিস্ট জোস ফাররো, বেজিস্ট জেরেমি ডেভিস,ড্রামার জ্যাক ফাররো ও রিদম গিটারিস্ট টেইলর ইয়র্ক। দলটি তাদের ডেব্যু অ্যালবাম অল উই নো ইজ ফলিং ২০০৫ সালে মুক্তি পায় ও ২০০৭ সালে তাদের ২য় অ্যালবাম রায়ট মুক্তি পায় যা আমেরিকাতে প্লাটিনাম ও অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, নিউজিল্যান্ডইংল্যান্ডে গোল্ড সনদ পায়। প্যারামোরের ৩য় অ্যালবাম ব্র্যান্ড নিউ আইস ২০০৯ সালের ২৯শে সেপ্টেম্বর বের হয় যা ছিল তাদের সবচেয়ে সফল অ্যালবাম।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২০০২ সালে মাত্র তের বছর বয়সে হেইলেই উইলিয়ামস মিসিসিপি থেকে টেনেসিতে চলে আসে ও যেখানে সে হাই স্কুলে দু’ভাই জোস ফারো ও জ্যাক ফারোর দেখা পায়।ব্রেট ম্যানিং-এর কাছে তিনি ভোকালের তালিম নিতে থাকেন আসার কিছু পরেই।ব্যান্ডটা আনুষ্ঠানিকভাবে ২০০৪ সালে গঠিত হয়।

প্যারামোর দ্যা সোশ্যালে ২৩শে এপ্রিল ২০০৪ সালে ফ্লোরিডায়

২০০৫ সালের ১৪ই জুলাই তাদের প্রথম অ্যালবাম অল উই নো ইজ ফলিং মুক্তি পায় ও বিলবোর্ডের ৩০তম স্থান পায়। প্যারামোর তাদের প্রথম একক গান প্রেসার বের করে ঐ অ্যালবাম থেকে ও ভিডিও বানায়। কিন্তু তা ব্যর্থ হয় শ্রোতাদের মনোযোগ আকর্ষণ করতে। ২০০৭ সালের জানুয়ারীতে তাদের অ্যালবাম রায়টের কাজ শুরু করে যা জুনের ১২ তারিখে প্রকাশিত হয়। এই অ্যালবামটি বিলবোর্ডে ২০তম ও ইংল্যান্ডে ২৪ তম স্থান পায় এবং আমেরিকাতে প্রথম সপ্তাহে ৪৪০০০ কপি বিক্রি হয়। ১১ অক্টোবর ২০০৭ সালে প্যারামোরের মিউজিক ভিডিও ক্র্যাশক্র্যাশক্র্যাশ আমেরিকাতে মুক্তি পায় রায়ট অ্যালবাম থেকে পরবর্তী একক গান হিসেবে। এই ভিডিওতে দেখা যায় একটা খোলা মরুভূমিতে প্যারামোর ব্যান্ডের ওপর গোয়েন্দাগিরি করা হচ্ছে ও পরে তাদের বাদ্যযন্ত্র ভেঙ্গে ফেলা হয়। ১৯শে নভেম্বর এই গানটা আমেরিকাতে প্রকাশিত হয় ও ১২ই নভেম্বর ইংল্যান্ডে প্রকাশিত হয়।[২] প্যারামোর ২০০৮ সালে ৫০তম গ্রামি অ্যাডওয়ার্ডে সেরা নতুন শিল্পী হিসেবে পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়। কিন্তু এ্যামি ওয়াইন হাউজের কাছে পরাজিত হয়। হেইলেই উইলিয়ামস ব্যান্ডটি মেয়ে ভিত্তিক প্রসঙ্গে বলেন যে প্যারামোর মেয়ে প্রধান ব্যান্ড না এবং এটা গান করে মানুষ যাতে সংগীত পছন্দ করে, এজন্য না যে লোকেরা আমার যৌনতা নিয়ে কথা বলবে।[৩] প্যারামোর এমটিভির জন্য আনপ্লাগড কনসার্টে অংশ নেয়।[৪] ২০১০ সালে মে মাসে তারা ঘোষণা করে যে তারা নভেম্বরে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য ইংল্যান্ড সফরে যাবে।

বর্তমান সদস্য[সম্পাদনা]

  • হেইলেই উইলিয়ামস
  • জোস ফারো
  • জেরেমি ডেভিস
  • জ্যাক ফাররো
  • টেইলর ইয়র্ক

ডিস্কোগ্রাফি[সম্পাদনা]

  • অল উই নো ইজ ফলিং (২০০৫)
  • রায়ট! (২০০৭)
  • ব্র্যান্ড নিউ আইজ (২০০৯)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://www.hollywoodreporter.com/hr/content_display/music/news/e3iecb83415cefdd2b06aaf1d104e2f3a1a
  2. http://www.bebo.com/BlogView.jsp?MemberId=2023359577&BlogId=4867002319
  3. http://www.absolutepunk.net/printthread.php?t=239981
  4. http://www.mtv.com/music/unplugged/?artist=paramore

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]