জয়দেব

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জয়দেব বিষ্ণুর উপাসনা করছেন

কবি জয়দেব সংস্কৃত সাহিত্যের একজন মধ্যযুগীয় অন্যতম প্রসিদ্ধ কবি। তিনি গীতগোবিন্দ কাব্যের রচয়িতা। ওড়িশা রাজ্যের পুরী নিকটস্থ কেন্দুবিল্ব ওনার জন্মস্থান।[১],[২] সংস্কৃত কাব্য গীতগোবিন্দের অত্যন্ত ব্যাপক ও গভীর প্রভাব রয়েছে। বাংলা ভাষায় এবং ওড়িয়া ভাষায় বৈষ্ণব পদাবলীর সূচনা জয়দেবের গীতগোবিন্দের পদাবলী থেকেই বলে ধারণা করা হয়।[৩]

লক্ষ্মণসেনের সভায়[সম্পাদনা]

গীতগোবিন্দের পান্ডুলিপি

সেকশুভোদয়ায় একটি গল্প আছে লক্ষ্ণণসেনের সভায় জয়দেবের আগমন নিয়ে।একদিন লক্ষ্ণণসেনের সভায় এক বিখ্যাত সঙ্গীতনিপুণ কলাবিদ এসে নিজেকে শ্রেষ্ঠ হিসেবে জাহির করলেন।রাজা তার দাবি স্বীকার করে নিয়ে জয়পত্র লিখে দিতে চাইলেন। খবর পেয়ে জয়দেব পত্নী পদ্মাবতী রাজসভায় এসে অনুরোধ করলেন তার স্বামীর সাথে না প্রতিদ্বন্দ্বিতা না করে যেন তাকে জয়পত্র না দেয়া হয়।রাজা সভায় জয়দেবকে আনলেন।তথাকথিত সঙ্গীতনিপুণ কলাবিদের গানে গাছের সব পাতা ঝরে গেল।সবাই সঙ্গীতনিপুণ কলাবিদকে ধন্য ধন্য করতে লাগল।জয়দেব বললেন এ আর এমন কি! গাছে আবার পাতা গজিয়ে দেখাও।সঙ্গীতনিপুণ কলাবিদ অপারগতা প্রকাশ করলেন।তখন জয়দেব গান ধরলেন, আর সাথে সাথে গাছের পাতা গজিয়ে উঠল।সকলে জয়দেবের শ্রেষ্ঠত্ব স্বীকার করল।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. cf.http://en.wikipedia.org/wiki/Jayadeva
  2. cf.http://en.wikipedia.org/wiki/Jayadeva_birth_controversy
  3. http://www.milansagar.com/kobi-jaidev.html
  4. বঙ্গভূমিকা-সুকুমার সেন

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]