ইন্তিফাদা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

ইন্তিফাদা একটি আরবি শব্দ। এর শাব্দিক অর্থ প্রকম্পিত করা, জেগে ওঠা বা উত্থান। তবে পারিভাষিক প্রচলিত অর্থে ইজরাইলি দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলনের দুইটি বড় ইসলামী আন্দোলন যা শুরু হয়েছিল মসজিদ গুলো থেকে তা বোঝানো হয়।[১] ১৯৮০ এর দশকের শেষ দিকে এবং ১৯৯০ এর দশকের শুরুর দিকে পশ্চিম তীর এবং গাজা এলাকায় ইসরাইলি দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে এই আন্দোলন শুরু হয়। দুইটি বড় গনজাগরণের পর এখন ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন তৃতীয় ইন্তিফাদায় প্রবেশ করেছে।[২]

ফিলিস্তিনি ভূখন্ডের পশ্চিম তীর এবং গাজা এলাকা ১৯৬৭ সাল থেকে ইসরাইলের দখলে আছে।

প্রথম ইন্তিফাদা শুরু হয়েছিল ১৯৮৭ সালে এবং চলে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত। এই আন্দোলন ছিল একটা অসহযোগ ধরনের আন্দোলন এবং গেরিলা পদ্ধতির প্রতিরোধ। ইজরাইল ইন্তিফাদা কে যেভাবে জবাব দিয়েছিল সেটাকে প্রধানমন্ত্রী ঈটঝাক র‍্যাবিন বর্ণনা করেন "জবরদস্তি, শক্তি এবং আঘাত" এই তিন শব্দে। ইন্তিফাদাহর প্রথম বছরেই ইজরাইল ৩১১ জন ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছিল যাদের ৫৩ জনই ছিল ১৭ বছরের কম বয়সী।[৩] ইন্তিফাদার প্রথম দুই বছরেই ২৩ থেকে ২৯ হাজার ফিলিস্তিনি শিশু হাসপাতালের দ্বারস্ত হয়।[৪] বহু ফিলিস্তিনির শরীরের বিভিন্ন অংগ উদ্দেশ্যমূলক ভাবে ভেঙ্গে ফেলা হয়।

দ্বিতীয় ইন্তিফাদা বা মসজিদ আল আকসা ইন্তিফাদা শুরু হয় ২০০০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। এ্যারিয়েল শ্যারন হাজার খানেক সৈন্যবাহিনী নিয়ে জেরুসালেম এর পুরাতন শহর এবং মসজিদ আল আকসা ভ্রমণ করতে আসলে এই ইন্তিফাদা শুরু হয়। তার এই ভ্রমণ ফিলিস্তিনিদের চোখে ইসলামের তৃতীয় গুরুত্বপূর্ন মসজিদের উপর ইজরাইলি দখলদারিত্ব প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ হিসাবে প্রতীয়মান হয়। উল্লেখ্য, গুরুত্বের ক্রম অনুসারে ইসলামে ফিলিস্তিনের আল আকসা বা বায়তুল মাকদিস এর অবস্থান মক্কা ও মদীনার পরেই।[১]

  1. ১.০ ১.১ http://www.ampalestine.org/index.php/history/the-intifadas/200-what-is-an-qintifadaq
  2. http://electronicintifada.net/content/third-intifada/5863
  3. Audrey Kurth Cronin 'Endless wars and no surrender,' in Holger Afflerbach,Hew Strachan (eds.) How Fighting Ends: A History of Surrender, Oxford University Press 2012 pp.417–433 p.426.
  4. Arthur Neslen,In Your Eyes a Sandstorm: Ways of Being Palestinian, University of Caslifornia Press, 2011 p.122