১৫১৮ সালের নৃত্য মহামারী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

১৫১৮ এর নৃত্য প্লেগ বা ১৫১৮ এর নৃত্য মহামারী ছিল জনসাধারণের মধ্যে এক ধরণের নাচের বাতিক যা স্ট্র‍্যাসবার্গের অ্যালসেসে সংঘটিত হয় পবিত্র রোমান সাম্রাজ্যে ১৫১৮ সালের জুলাই মাস থেকে সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত। পঞ্চাশ থেকে চারশত জনের মত মানুষ সপ্তাহ ধরে নাচানাচিতে লিপ্ত ছিল।

ঘটনাসমূহ[সম্পাদনা]

১৫১৮ সালের জুলাই মাসে মহামারির প্রাদুর্ভাব ঘটে যখন স্ট্রাসবার্গের রাস্তায় একজন মহিলা আন্তরিকভাবে নাচতে থাকেন।[১] সেপ্টেম্বরের দিকে মহামারীর প্রাদুর্ভাব কমতে শুরু করে।

ঐতিহাসিক কাগজপত্র, যেমন চিকিৎসকদের নোট, খ্রিস্টান ধর্মোপদেশ, স্থানীয় এবং আঞ্চলিক ইতিহাস এবং স্ট্র‍্যাসবার্গ সিটি কাউন্সিলের নোটসমূহ থেকে এটা পরিষ্কার জানা গিয়েছে যে, এ রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিরা নেচেছিলেন। [১]জানা যায়নি কেন। বিভিন্ন ঐতিহাসিক উৎস হতে জানা যায় যে একজন মহিলা স্ট্র‍্যাসবার্গের রাস্তায় নাচ শুরু করার পর থেকে মহামারীটির প্রাদুর্ভাব হয়।[২] মহিলাটির নাচ এতটাই দীর্ঘসাময়িক ছিল যে এটি স্ট্র‍্যাসবার্গের ম্যাজিস্ট্রেট এবং বিশপের দৃষ্টি আকর্ষণ করে এবং অবশেষে কয়েকজন চিকিৎসক তার নৃত্যে হস্তক্ষেপ করেন এবং তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান।

এ ধরণের মহামারীর সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ ঘটনা মধ্যযুগেও ঘটেছে। যেমন ১১ শতকে স্যাক্সোনির কোলবিগে উক্ত ঘটনা ঘটেছিল এবং ধারণা করা হয়েছিল শয়তান ভর করায় অথবা ঐশ্বরিক রায়ের ফলে এমনটা ঘটেছে। [৩] In 15th century Apulia, Italy,[৪]১৫ শতকে ইতালির আপুলিয়ায় টারান্টুলা (এক প্রকার বিষাক্ত মাকড়শা) এর কামড়ে বিষের প্রভাবে একজন মহিলা খিঁচুনি দিয়ে নাচা শুরু করেন। এক্ষেত্রে বিষের প্রভাব কমানোর একমাত্র উপায় হচ্ছে "শিমি" (এক ধরণের শরীর দোলানোর নাচ) এবং সঠিক বাজনার ব্যবহার; জার্মান পন্ডিত আথানশিয়াস কার্সারের মত পন্ডিতেরা নিরাময়ের এই পন্থাকে সমর্থন জানিয়েছেন। [৫]

শয়তানের ভর করা এবং অতিরিক্ত উত্তপ্ত রক্ত প্রসঙ্গে সমসাময়িক বর্ণনাঃ

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Viegas, Jennifer (১ আগস্ট ২০০৮)। "'Dancing Plague' and Other Odd Afflictions Explained"Discovery NewsDiscovery Communications। ১৩ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৩ 
  2. Midelfort, H. C. Erik (১৯৯৯)। A History of Madness in Sixteenth-century Germany (ইংরেজি ভাষায়)। Stanford University Press। পৃষ্ঠা 33। আইএসবিএন 978-0-8047-4169-9 
  3. Miller (2017), পৃ. 149–164
  4. Soth, Amelia (২০১৯-০১-১০)। "When Dancing Plagues Struck Medieval Europe"JSTOR Daily (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-২২ 
  5. Gloyne, Howard F. (মার্চ ১৯৫০)। "TARANTISM: Mass Hysterical Reaction to Spider Bite in the Middle Ages"American Imago7 (1): 29–42। আইএসএসএন 0065-860Xজেস্টোর 26301236পিএমআইডি 15413592