হ য ব র ল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(হ-য-ব-র-ল থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
হযবরল
লেখকসুকুমার রায়
অনুবাদকজয়িনী বসু
অঙ্কনশিল্পীসুকুমার রায়
দেশভারতবর্ষ
ভাষাবাংলা
ধরনরম্য রচনা
প্রকাশকলুলু.কমে নিষ্ঠা
প্রকাশনার তারিখ
১৯২১
ইংরেজিতে প্রকাশিত
২০০৫
মিডিয়া ধরনমুদ্রণ (মলাটত্তয়ালা বই)
পৃষ্ঠাসংখ্যা৬৮ (ইংরেজি অনুবাদ)
আইএসবিএন1-4116-3983-9 (ইংরেজি অনুবাদ)

হ য ব র ল হল সুকুমার রায় রচিত একটি রম্য রচনা। হ য ব র ল বাংলা সাহিত্যের ননসেন্স ধারার একটি শ্রেষ্ঠরচনা। রচনাটির শৈল্পিক সৌন্দর্য ও তাৎপর্য বোঝাতে গিয়ে অনেকে একে এলিস ইন দ্য ওয়ান্ডারল্যান্ডের সাথে তুলনা করেন যদিও দুটি গল্প সুরে-স্বভাবে, সাংস্কৃতিক পটভূমি, ও ভাষিক কারুকার্যে সম্পূর্ণভাবে আলাদা।

বিষয়বস্তু[সম্পাদনা]

গল্পটা শুরু হয় একটা বাচ্চা ছেলের ঘুম থেকে উঠার মধ্যে দিয়ে। গরমকালে ঘাম মোছবার জন্য রুমালটা তুলতে গিয়ে সে দেখে তার রুমাল একটা বেড়াল হয়ে গেছে। বেড়ালটার সাথে সে গল্প করতে শুরু করে এবং বুঝতে পারে বেড়ালটা উল্টোপাল্টা কথা বলছে। পরে ছেলেটার দেখা হয় কাকেশ্বর নামক দাঁড়কাক সাথে যে বিদঘুটে হিসাব করে। এরপরে একে একে উদো আর বুদো, হিজিবিজবিজ, ব্যাকরণ শিং, নেড়া, সজারু, প্যাঁচা ইত্যাদি আরও অনেক চরিত্রের অনুপ্রবেশ ঘটে আর বাড়তে থাকে বিশৃঙ্খলা। গল্পের চূড়ান্ত সমাপ্তি ঘটে বাচ্চা ছেলেটির ঘুম থেকে উঠার মধ্যে দিয়ে।

চরিত্রসমূহ[সম্পাদনা]

চন্দ্রবিন্দু

চন্দ্রবিন্দু হল একটি অদ্ভুত মোটাসোটা লাল টকটকে বেড়াল। সে কথায় কথায় এক চোখ বন্ধ করে ফ্যাচফ্যাচ করে হাসতে থাকে।

শ্রীকাকেশ্বর কুচকুচে

৪১নং গেছোবাজার, কাগেয়াপট্টি-এর বাসিন্দা এই দাঁড়কাক, যে বিদঘুটে রকমের হিসাব করে।

উদো আর বুদো

উদো আর বুদো যমজ ভাই। এরা কখনো ঝগড়া করে, আবার কখনো বন্ধুত্ব করে। দেহের আকৃতি দেড় হাত, পা পর্যন্ত সবুজ রঙের দাড়ি, হাতে হুঁকো যাতে কোন কল্কে নেই। টাকের উপর খড়ি দিয়ে কেউ একটা কিছু লিখছে।

হিজিবিজবিজ

একটা বিদঘুটে দেখতে জন্তু যে বিভিন্ন জিনিস কল্পনা করে আর সেইগুলো ভেবে হাসে।

ব্যাকরণ শিং, বি.এ. খাদ্যবিশারদ

এক্তি রামছাগল যে বিভিন্ন বিষয়ে বক্তব্য রাখে। যেমনঃ ছাগলে কি না খায়।

নেড়া

বিভিন্ন অদ্ভুত গান গায়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]