হাসপাতালের বহির্বিভাগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

হাসপাতালের বহির্বিভাগ বলতে একটি হাসপাতালের এমন একটি অংশকে বোঝায় যেটিকে হাসপাতালের বহির্বিভাগীয় রোগীদের স্বাস্থ্য সমস্যা বা রোগ নির্ণয়করণ ও চিকিৎসা প্রদানের উদ্দেশ্যে নকশা করা হয়। বহির্বিভাগীয় রোগী বলতে এমন সব রোগীকে বোঝায়, যাদের কোনও শয্যার জন্য বা রাত্রিকালীন সেবা গ্রহণের জন্য হাসপাতালে ভর্তি হবার প্রয়োজন নেই।[১] আধুনিক বহির্বিভাগগুলিতে ব্যাপক সংখ্যক রোগনির্ণয় পরীক্ষা, চিকিৎসা সেবা এবং অপ্রধান শল্যচিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। ইংরেজি ভাষাতে এগুলিকে "আউটপেশেন্ট ডিপার্টমেন্ট" (Outpatient department) বা সংক্ষেপে "ওপিডি" (OPD) এবং কখনও কখনও "আউটপেশেন্ট ক্লিনিক" (Outpatient clinic) বলা হয়।

কিছু কিছু স্বাস্থ্যকেন্দ্র বা চিকিৎসাকেন্দ্র হাসপাতালের বহির্বিভাগের মতো সেবা প্রদানের জন্য নির্মাণ করা হয়, কিন্তু সেগুলি কোনও হাসপাতালের সাথে সম্পর্কিত থাকে না, বরং স্বাধীনভাবে কাজ করে। এইসব স্বতন্ত্র চিকিৎসাকেন্দ্রকেও ইংরেজিতে "আউটপেশেন্ট ক্লিনিক" বলা হয়।

গুরুত্ব[সম্পাদনা]

কোনও হাসপাতালের বহির্বিভাগ সেটির সামগ্রিক পরিচালনার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এটি সাধারণত ভর্তিকৃত রোগীদের সেবাব্যবস্থাগুলির সাথে অঙ্গীভূত থেকে কাজ করে। হাসপাতালের বহির্বিভাগে যেসব চিকিৎসক ও শল্যচিকিৎসক কাজ করেন, তারা হাসপাতালের অন্তঃস্থ বিভাগগুলিতেও রোগীদেরকে সেবাদান করেন। অনেক রোগীকে প্রথমে বহির্বিভাগীয় রোগী হিসেবে পরীক্ষা করা হয় ও চিকিৎসা প্রদান করা হয় এবং প্রয়োজন হলে পরবর্তীতে তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হতে পারে। হাসপাতালের অভ্যন্তরীণ সেবা থেকে অব্যাহতি লাভের পরেও রোগীকে আবার হাসপাতালের বহির্বিভাগে অনুবর্তনমূলক চিকিৎসার (follow-up ফলো-আপ) জন্য ফেরত আসতে হতে পারে।[২]

বর্ণনা[সম্পাদনা]

সাধারণত হাসপাতালের বহির্বিভাগ হাসপাতাল ভবনের নিচ তলায় অবস্থিত থাকে, যার কাছে গাড়ি রাখার সুবন্দোবস্ত থাকতে পারে। হাঁটতে অক্ষম রোগীদের জন্য চাকা লাগানো আসন ("হুইলচেয়ার") এবং খাটুলি-র ("স্ট্রেচার") ব্যবস্থা থাকে। রোগীরা হাসপাতালের অভ্যর্থনা কেন্দ্রে গিয়ে রোগী হিসেবে নিবন্ধন সম্পন্ন করেন এবং সেখানে তাদের বসবার ব্যবস্থা থাকে যাতে তারা চিকিৎসকের সাথে সাক্ষাৎ বা বৈঠকের জন্য অপেক্ষা করতে পারেন। প্রতিটি চিকিৎসকের একটি স্বতন্ত্র বৈঠকখানা বা সাক্ষাতের কক্ষ থাকে এবং এগুলির পাশেও অপেক্ষাকৃত ক্ষুদ্র বসবার জায়গা থাকতে পারে। শিশুদের চিকিৎসার উদ্দেশ্যে নির্মিত বহির্বিভাগ প্রাপ্তবয়স্কদের বহির্বিভাগের থেকে পৃথক কোনও স্থানে অবস্থিত হতে পারে। বহির্বিভাগের কাছেই রঞ্জনরশ্মি (এক্স-রে) করার সুবিধা, পরীক্ষণাগার, চিকিৎসা-সংক্রান্ত নথিপত্রের (Medical records "মেডিক্যাল রেকর্ডস") কার্যালয়, ঔষধালয়, ইত্যাদি থাকতে পারে। প্রধান অপেক্ষার এলাকাটিতে রোগী ও তার পরিবারের জন্য শৌচাগার, দূরালাপনি (টেলিফোন), চাঘর বা কফিঘর বা জলখাবারের সুবিধা, খাবার পানির সুবিধা, উপহারের দোকান, ফুলের দোকান, উপাসনার স্থান, নিরব ঘর, ইত্যাদি সুযোগ সুবিধা থাকতে পারে।[২]

সব হাসপাতালে পৃথক করে বহির্বিভাগ না-ও থাকতে পারে। সেক্ষেত্রে ভর্তিকৃত রোগীদের যে বিভাগে চিকিৎসা করা হয়, সেখানেই ভর্তি না হওয়া রোগীদের চিকিৎসা করা হতে পারে।


তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]