হামিদা ওমারোভা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

হামিদা মাম্মাদ ক্বিজি ওমারোভা (আজারবাইজানি: Həmidə Ömərova, বাকুতে ১৯৫৭ সালের ২৫ এপ্রিল তারিখে জন্মগ্রহণ করেন) হলেন একজন আজারবাইজানি অভিনেত্রী। 

প্রাথমিক জীবন [সম্পাদনা]

হামিদা ওমারোভা এক শিক্ষক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন (তাঁর বাবা মা দুজনই শিক্ষক ছিলেন)। তাঁর বাবা মা এর নাম যথাক্রমে মাম্মাদ এবং নাসিবা ওমারভ। তাঁর বাবা মা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম পরিচিত হয় যেখানে তাঁরা দুজনই বিদেশি ভাষা নিয়ে পড়াশুনা করত। তাঁদের চার সন্তান ছিল যাদের তিনজনই শৈশবেই মারা যায়। হামিদা যখন জন্মগ্রহণ করেন তখন তাঁর বাবা মা ক্বাযাখ এ অবস্থিত সুফি হামিদ মঠ দর্শন করেন এবং যখন নিশ্চিত হলেন তাঁদের নতুন সন্তান বেঁচে থাকবে, তাঁরা তাঁর নাম সেই পবিত্র স্থানের নামেই রাখলেন। ১৯৬০ সালে তাঁর বা মা এর বিচ্ছেদ হয় এবং তাঁর বাবা তাঁর গ্রাম গাযাখ এ স্থায়ী ভাবে চলে আসেন, হামিদা ওমারভা তাঁর মা এবং নানী দ্বারা পালিত হন। উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ালেখা শেষ করে তিনি বাকু স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ে ভাষাবিজ্ঞান পড়ার জন্য ভর্তি হন। ১৯৭৫ সালে তাঁর প্রথম বর্ষ শেষের পর, তিনি ৩০০ ব্যক্তির একাডেমিক প্রতিযোগীতায় যোগদান করেন এবং তিনি সেই ১৫ জন প্রতিযোগীদের একজন ছিলেন যারা মস্কোতে অবস্থিত গেরাসিমভ ইন্সটিটিউট অব সিনেমাটোগ্রাফি তে ভর্তি হন।    [১]

কর্মজীবন [সম্পাদনা]

ওমারভা ১৯৭৭ সালেদ্য ডেন্টিস্ট (The Dentist) নামে ছোট চলচ্চিত্রের মাধ্যমে অভিনয় জগতে প্রবেশ করেন। তখন থেকে, তিনি ৩০ টিরও বেশি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি পরবর্তীতে সেই দশকে আজারবাইজানের সবচেয়ে সফল অভিনেত্রীতে পরিণত হন এবং একযোগে চারটি সিনেমার শুটিং করেন। রাশিয়াতে, তিনি ইউলি গুসম্যান এর চলচ্চিত্র গোর্খমা,  Gorkhma, saninlayam / Не бойся, я с тобой ("ভয় পেয়ো না, আমি আছি তোমার সাথে", ১৯৮১), যা আজারবাইজানের গাখ এ মঞ্চায়িত হয়েছিল,) এ  অভিনয় করার জন্য বেশি পরিচিত। তাঁর অভিনয় পরিবেশনা অনেক পুরস্কারে পুরস্কৃত হয়, অন্যতম পুরস্কার হলো আজারবাইজানের জনগণের শিল্পী। ১৯৯১, সালে সোভিয়েত ইউনিয়নের ভাঙনের পরে, আজারবাইজানের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি গুরুতর পতনের সম্মূখীন হয়। এ কারণে ওমরোভার কর্মজীবন ক্ষয়ে যেতে শুরু করে এবং তিনি মানসিক অগ্নিপরীক্ষার সম্মূখীন হন। কিছুকাল হতাশার মধ্য দিয়ে যাওয়ার পর, ১৯৯২ সালে তিনি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন এবং এক পুত্র সন্তানের জন্ম দেন। একই সময়, তিনি শেষ রাত্রিরের অনুষ্ঠান রেত্রো হোস্ট করেন, যা ছিল আজারবাইজানি এবং বিদেশি চিরায়ত সিনেমাগুলোর একটি পর্যালোচনা ভিত্তিক অনুষ্ঠান। ২০০৬ সালে, ওমারোভা আজারবাইজানে ইউনিয়ন অব সিনেমাটোগ্রাফারস এর সভাপতিতে নির্বাচিত হন।   [২]

তথ্যসূত্র [সম্পাদনা]

  1. (আজারবাইজানি) Hamida Omarova: An Italian-Style Confession by N.Badalov. EL Jurnali. January 2007
  2. (রুশ) Hamida Omarova: Everything in Life is a Gift from Destiny. Echo-az. 19 February 2007

বহিঃসংযোগ [সম্পাদনা]