সানা মারিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সানা মারিন
Sanna Marin (cropped).jpg
ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী
দায়িত্ব গ্রহণ
১০ ডিসেম্বর ২০১৯
রাষ্ট্রপতিসাউলি নিনিস্তো
যার উত্তরসূরীআন্টি রিনে
পরিবহন ও যোগাযোগ মন্ত্রী
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
৬ জুন ২০১৯
প্রধানমন্ত্রীআন্টি রিনে
পূর্বসূরীআনু ভেভিলাইনেন
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্মসানা মিরেলা মারিন
(1985-11-16) ১৬ নভেম্বর ১৯৮৫ (বয়স ৩৪)
হেলসিঙ্কি, ফিনল্যান্ড
রাজনৈতিক দলসোশ্যাল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি
দাম্পত্য সঙ্গীমার্কুস রাইকোনেন
সন্তান
শিক্ষাতামপেরে বিশ্ববিদ্যালয়

সানা মিরেলা মারিন (জন্ম ১৬ নভেম্বর ১৯৮৫) হলেন একজন ফিনীয় রাজনীতিবিদ। সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট দলের সদস্য মারিন ২০১৫ সাল থেকে ফিনল্যান্ডের সংসদে অধিষ্ঠিত এবং ২০১৯ সালের ৬ই জুন থেকে দেশটির পরিবহন ও যোগাযোগ মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।[১]

আন্টি রিনে তার প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়ালে ফিনল্যান্ডের সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি মারিনকে ২০১৯ সালের ৮ই ডিসেম্বর তাদের নতুন প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত করেন।[২] প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ পেলে তিনি হবেন বর্তমান বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী এবং ফিনল্যান্ডের সর্বকনিষ্ঠ ও তৃতীয় নারী প্রধানমন্ত্রী।[৩]

জন্ম ও শিক্ষা জীবন[সম্পাদনা]

মারিন হেলসিঙ্কিতে জন্মগ্রহণ করেন এবং তামপেরে শহরে যাওয়ার আগে এস্পো এবং এর মধ্যে পিরকালায় বসবাস করতেন। [৪] তিনি ২০১২ সালে তামপেরের তামপেরে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রশাসনিক বিজ্ঞান বিভাগের স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। [৫]

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

সানা ২০১২ সালে তামপেরের সিটি কাউন্সিলের নির্বাচিত হয়েছিলেন। [৬][৭] তিনি ২০১৩ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত সিটি কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ছিলেন। ২০১৭ সালে, তিনি সিটি কাউন্সিলের পুনর্নির্বাচিত হয়েছিলেন। [৮] তিনি তামপেরে অঞ্চল কাউন্সিলের অ্যাসেমব্লির সদস্যও। [৫]

সানা ২০১৪ সালে সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির দ্বিতীয় উপ-সভাপতির পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন।[৫] ২০১৫ সালে তিনি পিরকানমা নির্বাচনী জেলা থেকে ফিনল্যান্ডের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। [৯] চার বছর পরে তিনি আবার নির্বাচিত হন[১০] ২০১৯ সালের ৬ই জুন তিনি পরিবহন ও যোগাযোগমন্ত্রী হন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

সানা মারিন দু'জন সমকামী মায়ের সন্তান। [১১] দীর্ঘদিনের সঙ্গী মার্কুস রাইকোনেনের সাথে তাঁর একটি সন্তান রয়েছে।[১২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Sanna Marin"ফিনল্যান্ডের সংসদ (ফিনিশ ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  2. "Finland's Social Democrats name Marin to be youngest ever prime minister"রয়টার্স (ইংরেজি ভাষায়)। ৮ ডিসেম্বর ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  3. "Finland anoints Sanna Marin, 34, as world's youngest-serving prime minister"দ্য গার্ডিয়ান (ইংরেজি ভাষায়)। ৯ ডিসেম্বর ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  4. Kuka Sanna? Sanna Marin's website. Retrieved 10 January 2017.
  5. Sanna Marin Parliament of Finland (in Finnish). Retrieved 10 January 2017.
  6. "Finland anoints Sanna Marin, 34, as world's youngest-serving prime minister"The Guardian। ৯ ডিসেম্বর ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  7. Candidates elected Tampere Ministry of Justice of Finland. Retrieved January 10, 2017.
  8. "Elected"vaalit.fi। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুলাই ২০১৭ 
  9. Candidates elected Ministry of Justice of Finland. Retrieved January 10, 2017.
  10. "Valitut"tulospalvelu.vaalit.fi। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-০৩ 
  11. "Uusi valtuuston puheenjohtaja jakoi nuorena Tamperelaista" (Finnish ভাষায়)। Tamperelainen। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৩। 
  12. Matson-Mäkelä, Kirsi (২০১৯-০১-৩১)। "Kansanedustaja Sanna Marinille syntyi vauva"Yle Uutiset (ফিনিশ ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-০৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

রাজনৈতিক দপ্তর
পূর্বসূরী
আন্টি রিনে
ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী
২০১৯
অভিষিক্ত হননি