সাউদাম্পটন বন্দর

স্থানাঙ্ক: ৫০°৫৩′৪৭″ উত্তর ১°২৩′৪৮″ পশ্চিম / ৫০.৮৯৬৫° উত্তর ১.৩৯৬৮° পশ্চিম / 50.8965; -1.3968
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সাউদাম্পটন বন্দর
Southampton Docks - geograph.org.uk - 1721650.jpg
অবস্থান
দেশযুক্তরাজ্য
অবস্থানসাউদাম্পটন, হ্যাম্পশায়ার, ইংল্যান্ড
স্থানাঙ্ক৫০°৫৩′৪৭″ উত্তর ১°২৩′৪৮″ পশ্চিম / ৫০.৮৯৬৫° উত্তর ১.৩৯৬৮° পশ্চিম / 50.8965; -1.3968
বিস্তারিত
পরিচালনা করেঅ্যাসোসিয়েটেড ব্রিটিশ বন্দর (এবিপি)
উপলব্ধ নোঙরের স্থান৪৫ (২০–৪৯, ১০১—১১০, ২০০—২০৭)
বন্দর চ্যানেলের দৈর্ঘ১৬ কিলোমিটার
সর্বোচ্চ গভীরতা১৬ মিটার
পরিসংখ্যান
ওয়েবসাইট
সাউদাম্পটন বন্দর

সাউদাম্পটন বন্দর ইংল্যান্ডের দক্ষিণ উপকূলে কেন্দ্রীয় অংশে অবস্থিত একটি যাত্রী এবং মালবাহী বন্দর। সাউথাম্পটন বন্দরের ইতিহাসে আধুনিক যুগের সূচনা হয় ১৮৪৩ সালে যখন বন্দরের প্রথম ডকটি উদ্বোধন করা হয়। বন্দরটি ১৯৮২ সাল থেকে অ্যাসোসিয়েটেড ব্রিটিশ পোর্টের মালিকানাধীন এবং অ্যাসোসিয়েটেড ব্রিটিশ পোর্ট দ্বারা পরিচালিত। এটি যুক্তরাজ্যের ব্যাস্ততম ক্রুজ টার্মিনাল এবং দ্বিতীয় বৃহত্তম কন্টেইনার বন্দর

বন্দরটি ১০ মাইল (১৬ কিলোমিটার) অভ্যন্তরে টেস্ট ও ইচেন নদীর সঙ্গমস্থলে এবং সাউথাম্পটন ওয়াটার নামে পরিচিত এক মাইল প্রশস্ত নিমজ্জিত উপত্যকার সম্মুখ ভাগে অবস্থিত। ইটাল অফ উইট খারাপ আবহাওয়ার প্রভাব থেকে বন্দরকে রক্ষা করে, যা বন্দরে চলাচলকারী জাহাজগুলিকে ঝুকিমুক্ত একটি আশ্রয়স্থল প্রদান করে। বন্দরের অতিরিক্ত সুবিধার মধ্যে রয়েছে একটি ঘনবসতিপূর্ণ পশ্চাৎভূমি ও লন্ডনের নিকটতম ঘনিষ্ঠতা এবং অবশিষ্ট যুক্তরাজ্যের সঙ্গে রেল ও সড়ক সংযোগ, যা লন্ডনের যানজটকে সহজেই অতিক্রম করে।

গড় জোয়ারের পরিসরটি প্রায় ৫ ফুট (১.৫ মিটার)। কন্টেইনার টার্মিনাল পরিচালনাকারী ডিপি ওয়ার্ল্ড সাউথাম্পটন অনুযায়ী বৃহৎ কন্টেইনার এবং ক্রুজ জাহাজগুলি ৮০% সময় বন্দর প্রবেশের অনুমতি পায়। প্রভাবটি ইংলিশ চ্যানেলের মাধ্যমে জোয়ার প্রবাহের ফলস্বরূপ: চ্যানেলর এক প্রান্তে (ডোভার) উচ্চ জোয়ার, একই সময়ে অন্য প্রান্তে (ল্যান্ডস এন্ড) নিম্ন জোয়ার সংঘটিত হয়। চ্যানেলের কেন্দ্রীয় স্থানে একটি উচ্চ জলস্তর থাকে, কারণ জোয়ারের জল বাম থেকে ডানে চলে যায়, অন্যদিকে এটি ডান থেকে বামে যায়। ।[১]

বন্দরটি তিনটি অঞ্চলে বিভক্ত। টেস্ট এবং ইচেন নদীর সংযোগস্থলে পুরাতন ডক, যা ২০-৪৯ নং বার্থ নিয়ে গঠিত, ওয়েস্টার্ন ডক নামে পরিচিত নতুন ডকটি সাউথর্না রেলওয়ে দ্বারা নির্মিত, যেটি ১০০-১১০ নং বার্থ নিয়ে গঠিত এবং কনটেইনার টার্মিনাল ২০০-২০৭ নং বার্থ নিয়ে গঠিত। শেষ দুটি পুনরুদ্ধারকৃত জমির উপর নির্মিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ক্রুজ শিপিং[সম্পাদনা]

টার্মিনাল[সম্পাদনা]

সাউদাম্পটন বন্দরে চার সক্রিয় ক্রুজ টার্মিনাল রয়েছে। দুটি আধুনিক টার্মিনাল এবং যখন দুটি পুরনো টার্মিনালকে নতুন ডরে পুনর্বিবেচনা করা হয়েছে:[২]

  • রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ টার্মিনাল, বার্থ নং ৩৮/৩৯, খোলা হয় ১৯৬৬ সালে, ২০০৩ এবং ২০১৬ সালে টার্মিনালের আধুনিকীকরণ করা হয়।
  • মেফ্লোয়ার টার্মিনাল, বার্থ নং ১০৬, খোলা হয় ১৯৬০ সালে, আধুনিকীকরণ করা হয় ২০০৩ এবং ২০১৫ সালে।[৩]
  • সিটি টার্মিনাল, বার্থ নং ১০১, খোলা হয় ২০০৩, আধুনিকীকরণ করা হয় ২০০৭ সালে।
  • মহাসাগর টার্মিনাল, বার্থ নং ৪৬, খোলা হয় ২০০৯।[৪]
  • বার্থ নং ১০৪ (ফলের শেড), সাধারণত ফল পরিবহন জন্য ব্যবহৃত হয়, তবে ব্যস্ত সময়ে যাত্রীবাহী জাহাজের জন্য এটি ব্যবহার করা হয়।

মাল এবং পণ্যসম্ভার[সম্পাদনা]

কনটেইনার[সম্পাদনা]

এডিথ মেরস্ক-এই শ্রেণির কুড়িটি জাহাজ বিশ্বের বৃহত্তম কন্টেইনার জাহাজ।

কন্টেইনার টার্মিনালটি ডিপি ওয়ার্ল্ড সাউদাম্পটন দ্বারা পরিচালিত হয়। কনটেইনার বন্দরের ২১০ একর (৮৫ হেক্টর) জমি রয়েছে - পুরোনো ওয়েস্টার্ন ডকের ৩৭৫ একর (১৫২ হেক্টর) জমি এখানো ধরা হচ্ছে না - তবে বন্দর পরিচালনার জন্য উপলব্ধ। টার্মিনালটি একসঙ্গে চারটি বড় গভীর সমুদ্রগামী কন্টেইনার জাহাজ এবং সঙ্গে ৫০০ ফুট (১৫০ মি) দৈর্ঘ্যের একটি ছোট কন্টেইনার জাহাজের মাল বোঝাই এবং খালাস করতে পাড়ে।

এই কনটেইনার টার্মিনালটি ফিলিক্সস্টোয়ে বন্দরের পরে যুক্তরাজ্যের দ্বিতীয় বৃহত্তম গভীর সমুদ্র টার্মিনাল।[৫] সাউদাম্পটনের রেলপথটি বার্মিংহামের কন্টেইনার বন্দর এবং এবিপি টার্মিনালের মাঝামাঝি রুটটিতে ডব্লিউ১০- এর অপেক্ষাকৃত বড় লোডিং গেজে উন্নিত করা হয়েছে, যেখানে এটি ইতিমধ্যে এই সুবিধা পেয়েছে এমন লাইনগুলির সাথে সংযুক্ত। এই রেল লাইন ব্যাপকভাবে এখন অধিক উচ্চতার কনটেইনার পরিচালনা করতে পারবে।[৬]

সামুদ্রিক ব্যবস্থাপনা সংস্থা থেকে কন্টেইনার টার্মিনালটি ২০১ নং এবং ২০২ নং বার্থের মধ্যে বর্ধিত করার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। জেটিটি ৪০০ মিটার দীর্ঘ জাহাজের নোঙরে উপযুক্ত করার জন্য পুনর্গঠন করা হয়। প্রধান চ্যানেলের জলের গভীরতা ড্রেজিং করে ৬৩ ফুটে (১৬ মি) বৃদ্ধি করা হয়ে। [1 এই পরিষেবাতে বৃহত্তম কন্টেইনার জাহাজ পরিচালনা করার জন্য বার্থ সক্রিয়। ভোল্কার ওয়েসেলস গ্রুপের অংশ ভোলকার্সটভিন এই প্রকল্পটি পরিচালনা করেছিলেন এবং ২০১৩ সালের শেষ নাগাদ এটি সম্পন্ন হওয়ার কথা ছিল।[৭]

২০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ তারিখে, ঘোষণা করা হয়েছিল যে চ্যানেল আইল্যান্ড লাইন সাউদাম্পটন এবং জার্সিয়ের মধ্যে "লিফট অন লিফট অফ" কন্টেইনার পরিষেবাটি চালিয়ে যাবে এবং এসোসিয়েটেড ব্রিটিশ পোর্ট থেকে এমভি হিউলিন ডিসপ্যাচ কিনে নেবে।[৮]

বন্দর পরিষেবা[সম্পাদনা]

টাগ বোট[সম্পাদনা]

সাউথাম্পটন ওয়াটারে "ইচেন মেরিন টাগ" সংস্থার ওয়েস্টরম

চারটি সংস্থা বন্দর এলাকায় টাগ বোট পরিচালনা করে। ফাউলে অবস্থিত সোলেন্ট টাগ চারটি অগ্নিনির্বাপক টাগ বোট পরিচালনা করে। সুইজার মরিন ডক হেডের উপর ভিত্তি করে অনেকগুলি অগ্নিনির্বাপক টাগবোট পরিচালনা করেন। উইলিয়ামস শিপিং টাগ বোট, ওয়ার্কবোট এবং বার্জের একটি ছোট ফ্লিট পরিচালনা করে। ইচেন নদী ভিত্তিক ইচেন মেরিন ছয়টি টাগ এবং দুটি মুরিং লঞ্চ পরিচালনা করে।

বাংকারিং[সম্পাদনা]

জন এইচ হুইটকার বন্দরে নোঙর করা ক্রুজ জাহাজগুলিতে বাংকারিং এবং অন্যান্য পরিষেবাদি সরবরাহকারী ট্যাঙ্কারগুলির একটি ছোট ফ্লিট পরিচালনা করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Southampton weather"। সংগ্রহের তারিখ ১৯ নভেম্বর ২০১০ 
  2. "Cruise Terminal Facilities"। Visit Southampton। ১৬ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১২ 
  3. http://www.cruiseandferry.net/articles/southampton-reopens-mayflower-cruise-terminal-after-upgrade
  4. "Video – Ocean terminal May 2009 BBC News"। ৮ মে ২০০৯। 
  5. Clifton, Paul (২৭ নভেম্বর ২০১৩)। "Electric dilemma"। RAIL (736): 54–59। আইএসএসএন 0953-4563 
  6. "Port of Southampton Master Plan 2009–2030" (PDF)। Associated British Ports। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১২ 
  7. "Reconstruction of Berths 201 and 202"Development Projects। Associated British Ports। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১২ 
  8. bbc.co.uk: "New Channel Island company offers freight service" 20 Sep 2013

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]