সাইফুল আলম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সাইফুল আলম
Saiful Alam.jpg
সভাপতি, জাতীয় প্রেস ক্লাব
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
১৮ ডিসেম্বর ২০১৮
সম্পাদক, দৈনিক যুগান্তর
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
১৯ নভেম্বর ২০১৩
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1956-12-31) ৩১ ডিসেম্বর ১৯৫৬ (বয়স ৬৪)
ঢাকা
দাম্পত্য সঙ্গীফেরদৌসী বেগম
প্রাক্তন শিক্ষার্থীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাসাংবাদিক

সাইফুল আলম (জন্ম ৩১ ডিসেম্বর ১৯৫৬) একজন বাংলাদেশি সাংবাদিক। তিনি দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি বর্তমানে বাংলাদেশের সাংবাদিকদের সংগঠন জাতীয় প্রেস ক্লাবের নির্বাচিত সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।[১]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

সাইফুল আলম ১৯৫৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন।[২] তার পৈতৃক নিবাস চাঁদপুরের কচুয়ায়। তার পিতার নাম আলী আরশাদ মিয়া এবং মাতার নাম শামসুন নাহার।[৩] আলী আরশাদ মিয়া একজন সরকারি কর্মকর্তা ছিলেন।

সাইফুল আলম মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক ও ১৯৭৪ সালে ঢাকা কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভাষা ও সাহিত্যে স্নাতক ও ১৯৭৮ সালে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।[৪] ১৯৭২ সাল থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের রাজনীতিতে জড়িত ছিলেন।[৪] বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত অবস্তায় তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংস্কৃতি সংসদের সহ-সভাপতি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।[৪]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

সাইফুল আলম ১৯৭৯ সালে তিনি সাপ্তাহিক কিশোর বাংলা দিয়ে সাংবাদিকতা শুরু করেন।[৪] ১৯৮৩ সালে তিনি দৈনিক জনতায় জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক হিসেবে যোগ দেন। ১৯৮৬ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত তিনি দৈনিক ইনকিলাবের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।[৪] ২০০০ সালে গোলাম সারওয়ারের নেতৃত্বে শুরু হওয়া নতুন দৈনিক যুগান্তর পত্রিকায় জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক হিসেবে যোগ দেন। পরবর্তীতে তিনি এ পত্রিকাটির উপসম্পাদক, নির্বাহী সম্পাদক ও ২০১৩ সালের ১৯ নভেম্বর থেকে ২০২০ সালে ২১ ফব্রুয়ারি পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।[৫] ২০২০ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি তিনি যুগান্তরের সম্পাদক পদে অধিষ্ঠিত হন।[৬]

সাইফুল আলম ১৯৯৭ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ প্রেস ইন্সটিটিউটের (পিআইবি) পরিচালনা কমিটির সদস্য এবং ২০১৬ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার পরিচালনা বোর্ডের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।[৪] এছাড়ও তিনি বাংলাদেশ সম্পাদক পরিষদের একজন সদস্য। তিনি ১৯৯৫ থেকে ১৯৯৮ পর্যন্ত দুই মেয়াদে জাতীয় প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক, ২০১৭-২০১৮ মেয়াদের কমিটির জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালনের পর ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে প্রতিষ্ঠানটির সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হন।[৪] তিনি ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটির একজন প্রতিষ্ঠাতা সদস্য।[৪]

রচনা ও প্রকাশনা[সম্পাদনা]

সাইফুল আলমের গ্রন্থসমূহ হল, ছেঁড়াপাতা (শিশু-কিশোর গল্পগ্রন্থ - ১৯৮২), নিম ফুলের ঘ্রাণ (১৯৯৬), ছড়া-কবিতার গ্রন্থ হাত বাড়ালেই আকাশ, কিছু ভাবনা কিছু কথা (প্রবন্ধ সংলন ২০১৩), মাইনাস নয়, প্লাসের প্রজ্ঞাই গণতন্ত্র এবং গণতন্ত্রের যাত্রা ও অন্যান্য (২০১৯)[৪][৫][৭]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

  • বাংলাদেশ মিউজিক জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের আবদুর রহমান চিশতি স্মৃতি পুরস্কার (২০০৭)
  • পদক্ষেপ পুরস্কার (২০১০)
  • জাতীয় সমন্বিত উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের সম্মাননা স্মারক (২০১৪)
  • আলতাফ আলী হাসু স্মৃতি পদক (২০১৯) [৮]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

সাইফুল আলম ব্যক্তিগত জীবনে ব্যাংকার ফেরদৌসী বেগমের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।[৪] এই দম্পতির দুই মেয়ে রয়েছে।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইফুল, সাধারণ সম্পাদক ফরিদা"প্রথম আলো। ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮। 
  2. "Managing Committee – JATIYA PRESS CLUB"জাতীয় প্রেস ক্লাব (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০১৯ 
  3. "যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলমের বাবার ইন্তেকাল"দৈনিক যুগান্তর। ১৪ জুন ২০১৮। 
  4. "সাইফুল আলম - সাংবাদিক"দৈনিক যুগান্তর। সংগ্রহের তারিখ ১৭ এপ্রিল ২০১৯ 
  5. "সাইফুল আলম পথ হারাতে প্রস্তুত নন"দৈনিক কালের কন্ঠ। ৬ মার্চ ২০১৫। 
  6. "যুগান্তরের সম্পাদকের দায়িত্ব পেলেন সাইফুল আলম"দৈনিক যুগান্তর। ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০। 
  7. "ব্যক্তি সাইফুল আলম ও তার সাহিত্যবোধ"দৈনিক যুগান্তর। ২২ মার্চ ২০১৯। 
  8. "সাইফুল আলম পেলেন আলতাফ আলী হাসু স্মৃতিপদক"জাগো নিউজ। ১৫ মার্চ ২০১৯।