শুকনো হাড়ের উপত্যকার দর্শন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
গুস্তাভ ডোরের দ্বারা অঙ্কিত "দ্য ভিশন অফ দ্য ভ্যালি অফ দ্য ড্রাই বোনস"

শুকনো হাড়ের উপত্যকার দর্শন (অথবা শুকনো হাড়ের উপত্যকা কিংবা শুকনো হাড় দর্শন) হল যিহিষ্কেলের পুস্তকের অধ্যায় ৩৭-এ বর্ণিত একটি ভবিষ্যতবাণী[১] এই অধ্যায়ে নবী যিহিষ্কেলকে বিশদে একটি স্বপ্নময় বাস্তব-দৃশ্যমান দৈব্য দর্শন করানো হয়।

দৈব্য দর্শনে, মানুষের শুকনো হাড়ে ভর্তি একটি উপত্যকায় নবী নিজেকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখেন। তার সামনে হাড়গুলো একত্র হয়ে মানুষের কঙ্কালে রূপ নিলো; তারপর হাড়গুলোতে মাংস ও চামড়া গজাতে শুরু করলো। এরপর ঈশ্বর নবীকে জানায় যে হাড়গুলো হল নির্বাসনে যাওয়া ইসরায়েলের মানুষ এবং তিনি নবীকে ওই লোকদের পুনরুজ্জীবিত করা এবং তাদের ইসরায়েল ভূমিতে আনার উদ্দেশ্যে আরেকটি দৈব্যবাণী প্রচারের দায়িত্ব প্রদান করেন।

সাহিত্যে উল্লেখ[সম্পাদনা]

উপন্যাসিক অ্যান্টনি পাওয়েল তার সপ্তম উপন্যাসের অ্যা ড্যান্স টু দ্য মিউজিক অব টাইম অনুক্রমে যিহিষ্কেল ৩৭ অংশ থাকার জন্য এর নাম রাখেন দ্য ভ্যালি অব দ্যা বোন্স। উপন্যাসটি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রথমদিকের দিনগুলো নিয়ে। যিহিষ্কেল ৩৭ এর সম্পূর্ণ উপজীব্য অংশ শুরু হয় প্রথম অধ্যায়ের শেষে ইংল্যান্ডের গির্জার যাজক যখন বহুবর্ণের একটি দল, বিশেষত খনিতে কাজ করা ওয়েলশ কর্মী ও ব্যাংক কর্মকর্তার পাশাপাশি ইংল্যান্ডের কিছু উচ্চবিত্তের লোকদের নিয়ে যারা একটি কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করতে চায়, তাদের সাথে কথা বলতে থাকে। যাজক পরামর্শ দেয় যে শুধু তারাই নয়, সব ব্রিটিশ সেনা যেহেতু যুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে, সেহেতু এই কথাটি মাথায় রেখে ভাবা উচিত কিভাবে সবাই একসাথে কাজ করবে। যিহিষ্কেলের লেখার ব্যতিক্রমী হয়ে এই উপন্যাসে উল্লেখ করা হয়,

ঈশ্বরের হাত ও আত্মা অনুপস্থিত; বরং, মানুষেরা – যারা কখনোই শক্তিশালী নয়, প্রায়ই অকার্যকরী, কদাচিৎ নিরাপদ, সবসময় বিরক্ত....পাওয়েলের বর্ণনা একটি পদাতিক কোম্পানি আংশিক ভেঙ্গে পড়াকে তুলে ধরে: কিছু পুরুষের ব্যক্তিগত হাড় জেগে উঠা, অন্যদের হাড়ের ছাঁচ ভেঙ্গে যাওয়া, ও এরপরেও অনেকের ব্যর্থতা (এবং এমনকি মৃত্যু)।[২]

কবি গ্লাওকো অর্টোলানো যিহিষ্কেলের ৩৭ তম অধ্যায় অবলম্বনে ভ্যালি অব দ্যা ড্রাই বোন্স নামক একটি কবিতা লিখেন।

ইসরাইল ব্যাবিলনকে বিদায় জানিয়েছিল
শুকনো হাড়ের উপত্যকায়
তাই আমাদের উচিত
পাপ এবং প্রলোভন কাটিয়ে উঠা
বিশ্বের

এইভাবে, যখন আমাদের কবর থেকে ফিরে আসার সময় আসে,
আমাদের হাড়গুলি আমাদের দেহের সাথে পুনরায় সংযোগ করতে দেওয়া হোক
যাতে আমাদের শেষ বিদ্রোহের সাথে লড়াই করার অনুমতি দেওয়া হয়
প্রথম পুনরুত্থানের ফল হিসাবে

জনপ্রিয় সংস্কৃতিতে[সম্পাদনা]

জেমস ওয়েলডন জনসনের জনপ্রিয় আধ্যাত্মিক "ডেম বোন্স, যা "ড্রাই বোন্স" নামেও পরিচিত, এটি ছিল যিহিষ্কেলের শুকনো হাড়ের উপত্যকার দৈব্য বাণী থেকে অনুপ্রাণিত।
ব্লিজার্ডের ভিডিও গেম ওয়ার্ল্ড অব ওয়্যারক্রাফটে হেলফায়ার পেনিনসুলা নামক বার্নিন ক্রিসেডে ভ্যালি অব দ্যা বোন্স নামক একটি এলাকা রয়েছে। এটি গেমের একটি লক্ষ্যে স্মুথ এজ বাটারের সাথে সম্পর্কিত।[৩] ২০২০ সালের এলিভেশন ওরশিপের ধর্মীয় গান র‍্যাটোল শুকনো হাড় অবলম্বনে লেখা।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Book of Ezekiel, 37:1-14
  2. Morris, Robert (১৯৬৮)। The Novels of Anthony Powell। University of Pittsburgh Press। পৃষ্ঠা 218–230। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৪, ২০২০ 
  3. স্মুথ এজ বাটার