লুক ইভান্স

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
লুক ইভান্স
Luke Evans 2014 Comic Con (cropped).jpg
২০১৪ সালের স্যান ডিয়াগো কমিকনে ইভান্স
জন্ম (1979-04-15) ১৫ এপ্রিল ১৯৭৯ (বয়স ৩৯)
পন্টাইপুল, ওয়ালশ, যুক্তরাজ্য
বাসস্থানলন্ডন,ইংল্যান্ড
যেখানের শিক্ষার্থীলন্ডন ড্রামা সেন্টার
পেশা
  • অভিনেতা
  • গায়ক
কার্যকাল২০০০-বর্তমান
আদি শহরএবেরবারগড, ওয়ালশ

লুক ইভান্স (জন্ম ১৫ই এপ্রিল ১৯৭৯)[১] হচ্ছেন একজন ওয়েলিশ অভিনেতা এবং গায়ক। ইভান্স তাঁর ক্যারিয়ার শুরু করেন মঞ্চে ‘লন্ডন ওয়েস্ট আন্ড’ প্রডাকশনের হয়ে বিভিন্ন জায়গায় মঞ্চনাটক পারফর্ম করেন যেমন রেন্ট, মিস সাইগোন, এবং পিয়াফ । ২০১০ সালে ক্লাস অব দা টাইটান এর মাধ্যমে হলিউড জীবন শুরু করেন। আবির্ভাব এর পরই ইভান্স “ইমমরটাল”(২০১১), “দা রাবেন”(২০১২), “দা থ্রি মাস্কুটারস”(২০১১) এর মত একশন-থ্রিলার ছবিতে অভিনয় করেন। ২০১৩ সালে ইভান্স প্রধান খলনায়কের ভূমিকায় ওয়েন শো চরিত্রে ব্লকবাস্টার ছবি ‘ফিউরিয়াস ৬’ এ অভিনয় করেন। এছাড়াও পিটার জ্যাকসনের ছবি “দা হবিট” এ ব্রাড দা বো ম্যান চরিত্রে অভিনয় করেন। [২] ইভান্স ভ্যাম্পায়ার কাউন্ট ড্রাকুলা চরিত্রেও অভিনয় করেছেন “ড্রাকুলা আন্টোল্ড” ছবিতে।[৩] ২০১৭ সালে ডিজনির "বিউটি এন্ড দ্য বিস্ট" ছবিতে গাস্টন চরিত্রে অভিনয় করেন।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

লুক ইভান্স জন্মগ্রহণ করেছিলেন ‘পন্টাইপুল’ এ,[৪] এবং বড় হয়েছেন এবেরবারগড এ,[১] ওয়ালশ এ অবস্থিত রাইম্নে ভ্যালি এর ছোট্ট শহর।[১] ইভন্নে এবং ডেভিড ইবান্স এর একমাত্র সন্তান।[৫][৬] তাঁকে প্রতিপালিত করা হয় “যিহোবার সাক্ষী" হিসাবে, যদিও তিনি ১৬ বছর বয়সে ধর্ম ত্যাগ করেন এবং একই সময় বিদ্যালয়ও ত্যাগ করেন।[৭]

সতের বছর বয়সে তিনি কার্ডিফে চলে যান,[৮] যেখানে তিনি পড়শুনা করেন লুইস রায়ান এর তত্ত্বাবধানে, যিনি একজন প্রতিষ্ঠিত গানের প্রশিক্ষক।[৯] ১৯৯৭ সালে তিনি লন্ডনের কিং ক্রসের লন্ডন স্টুডিও সেন্টারের একটি বৃত্তি লাভ করেন।[১০] ২০০০ সালে ইভান্স স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন।

ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

২০১১ সালে ওয়ান্ডারকন এ ইভান্স

২০০০ থেকে ২০০৮ সালে ইভান্স অভিনয় করেন বেশিরভাগ লন্ডনের ওয়েস্ট আন্ড প্রডাকশন এর কাজে, যেগুলোর মধ্যে ছিল লা কাভা, ট্যাবু, রেন্ট, মিস সাইগন এবং এভিনিউ কিউ এ। ২০০৮ সালে তিনি ভিন্সেন্ট সেরা মঞ্চ চরিত্রে মঞ্চনাটক ‘স্মল চেঞ্জ’ এ অভিনয় করেন যেটি রচনা ও পরিচালনা করেছিলেন পিটার গিল। তাঁর এই চরিত্রে অভিনয়ে তিনি ছবির পরিচালক এবং যুক্তরাষ্ট্রের এজেন্সির নিকট পরিচিত হয়ে উঠে ছিলেন এবং সেরা নবাগত হিসাবে ‘ইভিনিং স্ট্যান্ডার্ড এওয়ার্ড’ লাভ করেন। ইভেন্স ত্রিশ বছর বয়সে প্রথম ফিল্ম অডিশন দেন। ২০০৯ সালে তিনি তাঁর প্রথম চলচিত্র “ক্লাস অব টাইটানস”(২০১০) এ গ্রীক দেবতা এপলো চরিত্রে অভিনয় করেন। ২০১০ সালে থাকে ক্লাইভ চরিত্রে ‘সেক্স এন্ড ড্রাগস এন্ড রক এন্ড রোল’ ছবিতে তাঁকে দেখা যায়, শেরিফ নটিংহাম এর খুনি হিসাবে ‘রবিন হুড’ ছবিতেও দেখা যায়। এছাড়া ২০১১ সালে দা থ্রি মাস্কোটারস এ অভিনয় করেন। তারসেম সিং এর গ্রীক এপিক ‘ইমমরটালস’ এ প্রধান চরিত্রে ইভান্স অভিনয় করেন দেবতাদের রাজা জিউস চরিত্রে। ২০১০ এর শেষের দিকে দা রাবেন(২০১২) মুভিতে জেরেমি রেনারকে প্রতিস্তাপিত করে জন কুজাক এর বিপরীতে অভিনয় করেন। [১১] নিউ অরলান্স এ তিনি পিটার জ্যাকসনের দা হবিট ছবিতে ব্রাড দা বো ম্যান চরিত্রে শুটিং শুরু করেন।[২] ২০১৩ সালে ইভান্স খল চরিত্র ওয়েন শ হিসাবে ফিউরিয়াস ৬ ছবিতে অভিনয় করেন, এবং ২০১৪ সালে কাউন্ট ড্রাকুলা চরিত্রে ড্রাকুলা আন্টোল্ড ছবিতে অভিনয় করেন। [১২][১৩][১৪] ২০১৪ সালের জুনে ইভান্স হাই-রাইজ ছবিতে টম হাইডলেস্টন এবং জেরেমি আয়রন এর সাথে অভিনেতা হিসাবে যোগদান করেন।[১৫] ইভান ২০১৭ সালের ডিজনির রিমেক ছবি বিউটি এন্ড দা বিস্ট(২০১৭) ছবিতে এমা ওয়াটসন এর বিপরীতে গাস্টন চরিত্রে অভিনয় করেন।[১৬] ২০১৬ সালে তাঁকে “দা গার্ল অন দা ট্রেন” ছবিতে দেখা যায়। [১৭]

ব্যাক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ইভান্সা একজন সমকামী। ২০০২ সালে একটি ইন্টারভিউ এ তিনি বলেন “সবাই আমাকে সমকামী পুরুষ হিসাবে জানে এবং আমার লন্ডনের জীবনে আমি কখনো এটা লুকানোর চেষ্ঠা করিনি”[১৮] ২০০৪ সালে তিনি বলেন এতে তাঁর অভিনয় জীবনে কোন প্রভাব পড়েনি। [১৯] ২০১৪ সালে স্প্যানিশ গণমাধ্যম খবর প্রচার করে যে লুক ইভান্স মডেল জন কটাজারেনা এর সাথে সম্পর্কে ছিলেন।[২০][২১][২২] ২০১৫ সালে জিকিউ এর সেরা সজ্জিত ৫০ ব্রিটিশ পুরুষ এ ইভান্স এর নাম দেখা যায়।[২৩]

চলচিত্রসমূহ[সম্পাদনা]

২০১৪ সালের জানুয়ারিতে ইভান্স
  • ট্যাবু (২০০০)
  • ডোন্ট প্রেস বেঞ্জামিন বাটনস্‌(২০০৯)
  • কাওয়ার্ডস এন্ড মনস্টারস(২০১০)
  • সেক্স এন্ড ড্রাগস এন্ড রক এন্ড রোল (২০১০)
  • ক্লাস অব টাইটানস (২০১০)
  • রবিন হুড (২০১০)
  • তামেরা ড্রিউয়ি (২০১০)
  • ব্লিটজ (২০১১)
  • দা থ্রি মাসক্টারস্‌(২০১১)
  • ইমমরটালস (২০১১)
  • ফ্লুটার (২০১১)
  • এসেজ (২০১২)
  • দা রাবেন (২০১২)
  • নো ওয়ান লিভস(২০১২)
  • দা হভিটঃ এন আনএক্সপেক্টেড জার্নি(২০১২)
  • ফাস্ট এন্ড ফিউরিয়াস ৬(২০১৩)
  • দা হবিট: দা ডেজুলুশন অব সামগ (২০১৩)
  • দা গ্রেট ট্রেন রবারি (২০১৩) (টিভি সিরিজ)
  • ড্রাকুলা আন্টোল্ড(২০১৪)
  • দা হভিটঃ ব্যাটল অব ফাইভ আর্মিস (২০১৪)
  • ফিউরিয়াস ৭ (২০১৫)
  • হাই-রাইজ (২০১৫)
  • মেসেজ ফ্রম কিং (২০১৬)
  • দা গার্ল অন দা ট্রেন (২০১৬)
  • বিউটি এন্ড দা বিস্ট (২০১৭)
  • দা ফেইট অব দা ফিউরিয়াস (২০১৭)
  • স্টেট লাইক শিপ (২০১৭)
  • প্রফেসর মার্টসন এন্ড ওয়ান্ডার ওম্যান (২০১৭)
  • দা এলিয়েনিস্ট (২০১৭) (টিভি সিরিজ)
  • ১০X১০ (২০১৭)

পুরুষ্কার এবং মনোনয়ন[সম্পাদনা]

মিনিসিরিজে অসাধারণ অভিনেতা শ্রেণীতে দা গ্রেট ট্রেন রবারি এর জন্য ২০১৪ সালে মন্টে-কার্লো টেলিভিশন ফেস্টিভাল এওয়ার্ড এ মনোনীত হন। সেরা সহ-অভিনেতা হিসাবে ফিউরিয়াস ৬ এর জন্য একাপুল্কো ব্লাক ফিল্ম ফেস্টিভাল এ মনোনীত হন। এছাড়াও হাই-রাইজের জন্য সেরা সহ-অভিনেতা হিসাবে ব্রিটিশ ইন্ডিপেনডেন্ট ফিল্ম এওয়ার্ডে মনোনীত হন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Evans finds himself among the stars"walesonline। ৮ সেপ্টেম্বর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৫ 
  2. Fleming, Mike (১৬ জুন ২০১১)। "Luke Evans To Play Bard in 'The Hobbit'"Deadline Hollywood। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুন ২০১১ 
  3. Justin Vactor। "Luke"Screen Rant। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৫ 
  4. "Pontypool-born Luke Evans hopes to be new Bourne star"walesonline। ৯ এপ্রিল ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৫ 
  5. "Aberbargoed actor Luke Evans' success in Hollywood"। Wales Online। ৩ জুন ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুলাই ২০১৩ 
  6. Rachel Mainwaring (৩০ মে ২০১০)। "Welsh actor Luke Evans is hot Hollywood property"। Wales Online। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুলাই ২০১৩ 
  7. "Hobbit star Luke Evans swaps the valleys for the Shire"। The Guardian। ৭ ডিসেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  8. "Luke Evans Interview TAMARA DREWE"Collider। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৫ 
  9. "Welsh actor Luke Evans is hot Hollywood property"walesonline। ২৯ মে ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৫ 
  10. Mo-Net s.r.l. Milano-Firenze। "Luke Evans"mymovies.it। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৫ 
  11. Leins, Jeff। "Luke Evans, Alice Eve Join 'The Raven'"News in Film। ৯ জানুয়ারি ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ অক্টোবর ২০১০ 
  12. Mike Fleming Jr। "'The Crow' Reboot Flies With Luke Evans - Deadline"Deadline। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৫ 
  13. The Deadline Team। "Universal Dates 'Dracula' Origin Pic For August 8, 2014 - Deadline"Deadline। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৫ 
  14. Pamela McClintock। "Title Change: 'Dracula' Renamed 'Dracula Untold'"The Hollywood Reporter। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৫ 
  15. Oliver Lyttelton (১৩ জুন ২০১৪)। "'The Hobbit' Star Luke Evans Joins Tom Hiddleston in Ben Wheatley's 'High Rise'"। Indie Wire। ১৬ জুন ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুন ২০১৪ 
  16. "Luke Evans To Star Opposite Emma Watson In Disney's Beauty And The Beast" 
  17. "Luke Evans in The Girl on the Train"Rotten Tomatoes। ১২ অক্টোবর ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০১৬ 
  18. Barclay, Paris (৩ সেপ্টেম্বর ২০০২)। "Breaking the Taboo"The Advocate। পৃষ্ঠা 55। সংগ্রহের তারিখ ৪ আগস্ট ২০১১  available online
  19. "Luke Goes Hardcore" (PDF)। QX Magazine। জুলাই ২০০৪। ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১১ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০১১ 
  20. "Luke Evans, Jon Kortajarena's vampire" (Spanish ভাষায়)। dparejas। ২ অক্টোবর ২০১৪। 
  21. "Jon Kortajarena introduces his boyfriend Luke Evans to his mother" (Spanish ভাষায়)। El Mundo। ২০ ডিসেম্বর ২০১৪। 
  22. "Jon Kortajarena: sus 30 'buenorros' años en fotos" (Spanish ভাষায়)। El Mundo। ১৯ মে ২০১৫। 
  23. "50 Best Dressed Men in Britain 2015"GQ। ৫ জানুয়ারি ২০১৫। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]