রাজসাক্ষী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search

যে অপরাধী, প্ররোচক বা জড়িত হিসেবে অপরাধের বিষয়ে বা প্রত্যেক সহ অপরাধীর (Accomplice) বিষয়ে তার জ্ঞানের মধ্যে থাকা সকল ঘটনার সম্পূর্ন ও সত্য বিবরন প্রকাশ করবে, এই শর্তে তাকে বিচারক ক্ষমার প্রস্তাব দিতে পারেন। ফৌজদারী মামলাতে এই সুযোগপ্রাপ্ত অপরাধীকে রাজসাক্ষী (Approver) বলা হয়।[১] ভারতীয় সাক্ষ্য আইনে যদিও রাজসাক্ষী কথাটি সংজ্ঞায়িত করা নেই।[২]

অপরাধের সহযোগী[সম্পাদনা]

ভারতীয় সাক্ষ্য আইনের (The Indian Evidence Act-1872) ১৩৩ নং ধারায় সহ অপরাধী, অভিযুক্ত ব্যক্তি বা ব্যক্তিগণের বিরুদ্ধে সাক্ষী হতে পারে এবং তার দেওয়া সাক্ষ্যে দোষী সাব্যাস্তকরণ কেবলমাত্র এই কারনে বে-আইনি হবেনা, যে তা অসমর্থিত সাক্ষ্যের (Uncorroborated Testimony) ভিত্তিতে নেওয়া হয়েছে।[১] সরকার পক্ষের এই সাক্ষ্যদানকারী সহ অপরাধীকেই প্রচলিত আদালত পরিভাষায় রাজসাক্ষী নামে অভিহিত করা হয়ে থাকে।

রাজসাক্ষীর গুরুত্ব[সম্পাদনা]

ভারতীয় সাক্ষ্য আইনের ১১৪ নং ধারা অনুসারে সিদ্ধান্তে আসা যেতে পারে যে রাজসাক্ষীর বয়ান যথেষ্ট বিশ্বাসযোগ্য নয় যদিনা তা বিশিষ্টতায় পরিপূর্ণ বা সমর্থিত (Corroborated) হয়। সহ অপরাধী বা রাজসাক্ষীর বক্তব্যে নির্ভর করে সাজা দান করার ক্ষেত্রে সতর্কতা ও আদালতের বিচক্ষণতা কাম্য।[১][৩]

ঐতিহাসিক রাজসাক্ষী[সম্পাদনা]

১৯০৮ সালে আলিপুর বোমা মামলায় নরেন গোঁসাই সরকার পক্ষের রাজসাক্ষী হয়েছিল। যাকে এই অপরাধে হত্যা করেন বিপ্লবী কানাইলাল দত্তসত্যেন্দ্রনাথ বসু[৪] মহাত্মা গান্ধীর হত্যা মামলায় হিন্দু মহাসভা কর্মী দিগম্বর বাগদে রাজসাক্ষী হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Batuk Lal (২০০৪)। Law of Evidence। Allahabad: Central Law Agency। পৃষ্ঠা 427। 
  2. Justice V. Ramkumar (7.06.16)। "Tendering perdon to an accomplice"। Live Law। সংগ্রহের তারিখ 21.01.2017  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ=, |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  3. Ayus Yadav (21.11.2011)। "Accomplice Witness and it's Admissibility"। Legal India।  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  4. Article in the 'Bangalee' 19th september, 1908। "Documents in the life of Sri Arabinda"। সংগ্রহের তারিখ 21.01.17  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)