যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজ
তথ্য
অবস্থান যশোর শহরের কেন্দ্র থেকে ২ কি: মি: উত্তর-পশ্চিমে ক্যান্টনমেন্টের দক্ষিণ-পূর্ব কোনে।
প্রতিষ্ঠার তারিখ জুন, ১৯৬৯
প্রথম শিক্ষাবর্ষ ১৯৬৯
পরিচয়সূচক নাম যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজ
প্রথম অধ্যক্ষ জহির হাসান মারুফ
হাউস সংখ্যা
আয়তন ২০ একর
হাউজের তথ্য
নামকরণ কাজী নজরুল ইসলাম
নামকরণ জসীমউদ্দীন
নামকরণ মাইকেল মধুসূদন দত্ত

যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজ বাংলাদেশে অবস্থিত একটি সামরিক কলেজ। কলেজটি ক্যান্টনমেন্ট বোর্ড ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। ১৯৬৯ সালে কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়। কলেজে অধ্যাপনা এবং পরীক্ষার ফলাফল উচ্চ মানের জন্য বিখ্যাত। এটা তাদের ঐতিহ্যের জন্য পরিচিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

যশোর সেনানিবাসের অভ্যন্তরে ১৯৬৯-এর জুনে দাউদ পাবলিক স্কুল এর দুইটি ছোট কক্ষে কলেজটির কার্যক্রম শুরু হয়। প্রথমে মাত্র ৫জন শিক্ষার্থী নিয়ে কলেজটি অগ্রযাত্রা শুরু করে। তৎকালীন দাউদ পাবলিক স্কুলের শিক্ষক মরহুম মোজাম্মেল হকের প্রচেষ্টা ও উর্দ্ধতন সামরিক কর্মকর্তাদের অনুপ্রেরনায় এটা করা সম্ভব হয়। তখনও কলেজটি দাউদ পাবলিক স্কুল ও কলেজ নামেই পরিচিত ছিল। ১৯৮৩ সালে দাউদ পাবলিক স্কুল থেকে কলেজের ক্যাম্পাসে স্থানান্তরিত করা হয় এবং যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজ নাম করণ করা হয়। প্রথমত কলেজটিতে শুধুমাত্র মানবিক শাখা চালু ছিল। পরে ১৯৭৭ সালে বিজ্ঞান শাখা এবং ১৯৮৫ সালে বাণিজ্য শাখা চালু করা হয়। নব্বই দশকের মাঝামাঝির দিকে এখানে ডিগ্রী পর্যন্ত শিক্ষা গ্রহনের সুযোগ করে দেয়া হয়। বর্তমানে কলেজটি বাংলাদেশের প্রথম সারির কলেজের মধ্যে একটি।

২০০২ সালে কলেজটি শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে প্রত্যয়িত হয়। কলেজে মোট ৬৫জন শিক্ষক এবং প্রায় ২০০০জন শিক্ষার্থী আছে।

শিক্ষা ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

পরিচালনা কমিটি[সম্পাদনা]

অন্যান্য তথ্য[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]