মেরু স্নায়ু

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
Nerve: মেরু স্নায়ু
মেরু স্নায়ু

'মেরু স্নায়ু' ('Spinal nerves ') : যে সকল স্নায়ু মেরুরজ্জু হতে বের হয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে গিয়েছে অথবা শরীরের বিভিন্ন অংশ হতে এসে মেরুরজ্জুতে এসে প্রবেশ করেছে তাকে মেরু স্নায়ু বলে।

মেরু স্নায়ুর কাজ[সম্পাদনা]

মেরু স্নায়ু মেরুদন্ডে প্রবেশের দূটি পথ রয়েছে একটি পশ্চাৎ মূল (Dorsal root), অন্যটি সম্মুখ মূল (Vental root)। পশ্চাৎ মূল হল সংবেদী স্নায়ুর প্রবেশ পথ, আর সম্মুখ মূল হল চেষ্টীয় স্নায়ুর বহির্গমন পথ। শরীরের বিভিন্ন অংশ থেকে সংবেদী (Sensory) স্নায়ু পশ্চাৎ মূল দিয়ে মেরুরজ্জুতে প্রবেশ করে। অন্যদিকে, চেষ্টীয় (Motor) স্নায়ু সম্মুখ মূল দিয়ে বের হয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে চলে যায়। সংবেদী স্নায়ু হাত, পা ও শরীরের বিভিন্ন অংশ হতে স্পর্শ, তাপ, বেদনা প্রভৃতির সংবেদন বহন করে মেরুরজ্জুতে পৌঁছে দেয় এবং মেরুরজ্জু তা মস্তিষ্কে প্রেরণ করে। চেষ্টীয় স্নায়ু মস্তিষ্ক ও মেরুরজ্জু হতে সিদ্ধান্তকৃত তথ্য সম্মুখ মূল দিয়ে ঘাড় ও মাথা ছাড়া শরীরের অন্যান্য মাংসপেশিতে পৌছে দেয়। ৩১ জোড়া স্নায়ুর প্রতি জোড়ার একটি (সংবেদী) পশ্চাৎ মূল দিয়ে, অন্যটি (চেষ্টীয়) সম্মুখ মূল দিয়ে মেরুরজ্জুতে প্রবেশ করেছে। যে সকল সংবাদবাহী স্নায়ু বিভিন্ন ইন্দ্রিয় হতে এসে মেরুরজ্জুতে প্রবেশ করেছে তাদের কোষদেহ প্রবেশ পথে অবস্থিত। তাই মেরুস্নায়ুর পশ্চাৎ মূল একটু স্ফীত দেখায়, যা পশ্চাৎমূলীয় স্নায়ুসন্ধি নামে পরিচিত। কিন্তু চেষ্টীয় স্নায়ুর কোষদেহ মেরুরজ্জুর অভ্যন্তরে অবস্থিত।

মেরুরজ্জুর অঞ্চলভিত্তিক সংখ্যা[সম্পাদনা]

স্নায়ু নামঃ সংখ্যাঃ

  • গ্রীবাদেশীয় ( Cervical) ৮ জোড়া
  • বক্ষদেশীয় (Thoracic) ১২ জোড়া
  • কটিদেশীয় ( Lumber) ৫জোড়া
  • বস্তিদেশীয় (Sacral) ৫ জোড়া
  • পুচ্ছদেশীয় ( Coccygeal) ১ জোড়া

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]