বিষয়বস্তুতে চলুন

মেমত জেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মেমত
ស្រុកមេមត់
জেলা (শ্রোক)
মেমত কম্বোডিয়ায় অবস্থিত
মেমত
মেমত
কম্বোডিয়ায় অবস্থান
Coordinates: ১১°৪৯′৩৭″উ ১০৬°১০′৫৮″পূ / ১১.৮২৬৯৪°উ ১০৬.১৮২৭৮°পূ / ১১.৮২৬৯৪; ১০৬.১৮২৭৮
দেশ  কম্বোডিয়া
প্রদেশ তবুং খমুম
ইউনিয়ন ১৪
গ্রাম ১৭৫
জনসংখ্যা (১৯৯৮)
 • মোট ১১১,২৯৬
সময় অঞ্চল +৭
ভৌগোলিক কোড ২৫১০

মেমত জেলা (খ্‌মের: ស្រុកមេមត់) কম্বোডিয়ার তবুং খমুম প্রদেশে অবস্থিত একটি জেলা। জেলার রাজধানী মেমত শহর প্রদেশের রাজধানী কমপং চাম থেকে ৮০ কিমি পূর্বে অবস্থিত। মেমত একটি সীমান্ত জেলা এবং ভিয়েতনামের শহর। তাই নিন এই জেলা থেকে ৮০ কিমি দূরে অবস্থিত।[১]

এই জেলা সড়ক পথে কমপং চাম বা ক্রাটি থেকে সহজেই প্রবেশ করা যায়। যদিও শহরের ভেতর বিভিন্ন সীমানা পার হওয়ার ছোট ছোট পথ রয়েছে, কিন্তু সরকারিভাবে কোন সীমানা পার হওয়ার আন্তর্জাতিক পথ নেই। মেমত শহর কমপং চাম এবং ক্রাটি শহরের মধ্যবিন্দুতে অবস্থিত।[২]

অবস্থান

[সম্পাদনা]

মেমত জেলা তবুং খমুম প্রদেশের সবচেয়ে পূর্বের জেলা এবং এর সাথে ভিয়েতনামের সীমানা রয়েছে। উত্তরে, মেমত ক্রাতি প্রদেশের সাথে সীমানা রয়েছে। পূর্বে এর সাথে ভিয়েতনামের সীমানা রয়েছে। পশ্চিমে, এর সাথে সীমানা রয়েছে দামবাই এবং পনহি জেলার।[৩]

প্রাগৈতিহাসিক সভ্যতা

[সম্পাদনা]

মেমত তার নাম পেয়েছে একটি প্রাগৈতিহাসিক সভ্যতা থেকে যারা এই এলাকায় ২৫০০ বছর আগে বসবাস করত। এই জেলায় কিছু প্রাগৈতিহাসিক জায়গা রয়েছে, যেগুলো সম্পর্কে কিছুদিন আগেই জানা গিয়েছে।[৪] ১৯৫৯ সালে, ফ্রান্সের প্রত্নতত্ত্ববিদ লুইস ম্যালারেট ১৭টি ভূস্থাপনা আবিষ্কার করেন। তিনি নতুন এই অঞ্চলটিকে লাল মাটির এলাকা হিসেবে শ্রেণিবিভাগ করেন, যা মেকং এর পূর্বে অবস্থিত এবং কমপং চাম প্রদেশের অন্তর্ভুক্ত ছিল। ১৯৬২ সালে, বার্নার্ড ফিলিপ গ্রসলিয়ার মেমতের কাছে খনন কাজ চালিয়ে একটি স্থল পান এবং সেই সভ্যতার নামকরণ করা হয় "মিমোতিয়ান"। এখন পর্যন্ত কম্বোডিয়ায় ৩৬টি প্রাগৈতিহাসিক জায়গা পাওয়া গিয়েছে।[৫][৬] ২০১০ সালে, " সামরোং ভূস্থাপনা" কম খরচে বাড়ি বানাতে গিয়ে অনিচ্ছাকৃতভাবে ধ্বংস হয়ে যায়।[৭]

সরকার

[সম্পাদনা]

মেমত জেলার প্রশাসনিক প্রধান হলেন মি. চেং বুন্নারা।[৮] নিচের সারণীতে ইউনিয়ন অনুসারে গ্রামের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

১) চ্যান মুল - কোর, কালোউ, তা কেভ, পিম

২) চোয়াম - লিচ লেও, মং, পপলোয়াম, জিয়েভ

৩) মেমং - পেউক, মেমং, কাব্বাস, ত্রিয়েক

৪) মেমত - মেমত থমেই, মাসিন তুয়েক

৫) রাঙ - বেং, ডং, বস, চামবাক, মাসিন, তাওন

৬) রুমচেক - কামপে, থমা দাব, খপোব, খ্লিয়েচ

৭) ত্রিয়েক - দক পোর, ব্যাংকোভ, খলেই

৮) কোকির - চামকার থমেই, সালাং বেই, কোকির চেয়ুং, তুয়ল থমা, কোকির তবুয়ং

৯) তনলুং - কডল লেউ, কডল রাওম, মকাওর, কাওহ থমা, বেং কাওং, সামবোর

তথ্যসূত্র

[সম্পাদনা]
  1. Total Road Atlas of Cambodia 2006 (3rd সংস্করণ)। Total Cambodge। ২০০৬। পৃষ্ঠা 44। 
  2. Cambodia Road Network (Version 03-00 সংস্করণ)। Ministry of Public Works and Transport। ২০০১। 
  3. "Kampong Cham Provincial Resources"। Ministry of Commerce। জানুয়ারি ৫, ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০১-২৫ 
  4. Thuy, Chanthourn। "Preliminary Study of the Memotian Culture" (পিডিএফ)Siksacakr - Issue No5। Center for Khmer Studies। আগস্ট ২০, ২০০৮ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০২-০৪ 
  5. "Research History"। Memot Centre for Archaeology। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০২-০৬ 
  6. Gerd Albrecht (২০০০)। "Circular Earthwork Krek 52/62 Recent Research on the Prehistory of Cambodia" (পিডিএফ)আইএসএসএন 0066-8435। ২০২০-০৪-২২ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-১১-১৫ 
  7. Kent Davis। "Bulldozers Destroy Priceless Archaeological Site in Cambodia"। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৯-০৭ 
  8. "'Dry' port to start operations in Kompong Cham" (পিডিএফ)। Business Press। ১৭–২৩ অক্টোবর ২০০৫। ৬ অক্টোবর ২০১১ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০২-০৪