মি এট দ্য জু

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

টেমপ্লেট:Infobox internet video মি এট দ্য জু হচ্ছে ইউটিউবে আপলোড হওয়া সর্বপ্রথম ভিডিও। এটি আপলোড করা হয় ৮:২৭:১২  পিএম ইউটিসি, এপ্রিল ২৩, ২০০৫-এ।[১] সাইটটির সহ-প্রতিষ্ঠাতা জাওয়েদ করিম এটি আপলোড করেন "জাওয়েদ" ব্যাবহারকারী নামে এবং ভিডিওটি রেকর্ড করেন তার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বন্ধু "ইয়াকুব লিপিটস্কি"।[২][৩][৪]

একই দিনে ইউটিউবে তিনিও একটি একাউন্ট খোলেন।.[৫]

১৯ সেকেন্ডের ভিডিওটি ইয়াকুব লিপিটস্কি "সান দিয়াগো চিড়িয়াখানায়" তোলেন। ভিডিওটিতে দেখা যায় জাওয়েদ হাতীর খাঁচার সামনে দাড়িয়ে হাতি গুলোর প্রশংসা করছেন। আর বলছেন " সত্যি, সত্যি, সত্যি, দীর্ঘ শুঁড়"।[৬][৭]

লিখিত প্ৰতিলিপি ক্যাপসন[সম্পাদনা]

ভিডিওর প্ৰতিলিপি:

Alright, so here we are in front of the, uh, elephants. Uh. The cool thing about these guys is that, is that they have really, really, really long, um, trunks, and that's, that's cool. And that's pretty much all there is to say. (অলরাইট, সো হিয়ার, উই আর ইন ফ্ৰণ্ট অব দ্য , আহ, এলিফেণ্টস। আহ, দ্য কুল থিং এবাউট দিজ গাইজ ইজ দ্যাট, ইজ দ্যাট দেই হ্যাভ রিয়েলি রিয়েলি রিয়েলি লং, উম, ট্রাংকস, অ্যান্ড দ্যাটস, দ্যাটস কুল। অ্যান্ড দ্যাটস প্ৰিটি মাচ অল দেয়ার ইজ টু সেই।

ইউটিউব ক্যাপশন:

All right, so here we are in front of the elephants, the cool thing about these guys is that they have really, really, really long trunks, and that's, that's cool. And that's pretty much all there is to say.

বাংলা অনুবাদ:

ঠিক আছে, আমরা এখন হাতিগুলির সামনে দাঁড়িয়ে আছি, তাদের সম্পর্কে আকর্ষণীয় ব্যাপারটা হল এই যে তাদের খুব, খুব, খুবই লম্বা শুঁড় আছে আর এটা, এটা একটা আকর্ষণীয় ব্যাপার। এবং এর চেয়ে বেশি কিছু বলার দরকার নেই।

গ্রহন[সম্পাদনা]

লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমস ব্যাখ্যা করেছে, ইউটিউবে আপলোড হওয়া সর্বপ্রথম ভিডিও হিসাবে মিডিয়ার প্রসারে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে ।[৮] মার্চ ২০১৭ এর হিসাবে ভিডিওটি ৩৭ মিলিয়ন বার দেখা হয়েছে এবং এতে ২৬০,০০০ মন্তব্য করা হয়েছে ।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Extract Meta Data"www.amnestyusa.org। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-২২ 
  2. Hartley, Matt (ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১০)। "Ten of YouTube's most influential videos"। Canwest 
  3. McGuinness, Ross (এপ্রিল ১৫, ২০১০)। "Elephants to Gaga"। Metro। পৃষ্ঠা 34। IT began with a spectacularly ordinary 18-second clip of man at the zoo, watching some elephants... It has been viewed almost 2 million times. 
  4. Meltzer, Tom; Phillips, Sarah (অক্টোবর ২৩, ২০০৯)। "G2: A First Time For Everything"। The Guardian (London)। পৃষ্ঠা 14। "Me at the zoo" is a man called Karim's 19-second long report from the elephant enclosure at San Diego zoo... But its historical significance means that it has had well over a million hits so far. 
  5. "jawed - YouTube"YouTube। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৪-২৫Joined 23 Apr 2005 
  6. Hoby, Hermione; Tom Lamont (এপ্রিল ১১, ২০১১)। "How YouTube made superstars out of everyday people"The ObserverKings Place, London, England, UK: Guardian Media Groupআইএসএসএন 0029-7712ওসিএলসি 50230244। অক্টোবর ২৩, ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মে ১, ২০১১A girl in red hotpants helped elect a US president, a British pensioner became everyone's favourite grandad. In just five years, the YouTube website has invented a new kind of celebrity 
  7. Heffernan, Virginia (সেপ্টেম্বর ৬, ২০০৯)। "Uploading the Avant-Garde"The New York Times। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ৪, ২০১১The first video on YouTube was uploaded at 8:27 p.m. on Saturday, April 23, 2005. It’s called “Me at the Zoo,” and it features the musings of Jawed Karim, one of the site’s founders, as elephants nose around in hay behind him. 
  8. Pham, Alex (মে ১৭, ২০১০)। "YouTube turns 5, can't wait to grow up"Los Angeles TimesLos Angeles, California, USA: Eddy Hartenstein। আইএসএসএন 0458-3035ওসিএলসি 3638237। আগস্ট ২০, ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ২০, ২০১১Born as a clearinghouse for quick, quirky homemade videos, the site now seeks to add more professional — and profitable — content. 
  9. Karim, Jawed (এপ্রিল ২৩, ২০০৫)। "Me at the zoo"San Diego Zoo, San Diego, California, USA: YouTube। সংগ্রহের তারিখ জুন ২১, ২০১২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]