মিউনিখ আবাসন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(মিউনিখ বাসস্থান থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
Plan of the Residenz
Munich Residenz looking southwest

মিউনিখ আবাসন ( জার্মান: [ʁesiˈdɛnts] , Residence) জার্মানির বাভারিয়া রাজ্যের রাজধানী কেন্দ্রীয় মিউনিখের উইটল্সবাখ শাসকদের প্রাক্তন রাজকীয় প্রাসাদ।[১] মিউনিখ আবাসন জার্মানির বৃহত্তম রাজপ্রাসাদ এবং বর্তমানে এটির স্থাপত্য, সজ্জা এবং প্রাক্তন রাজাদের সংগ্রহগুলি দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত।

গঠনশৈলী[সম্পাদনা]

১০টি চত্বরে ঘেরা প্রাসাদটিতে মোট ১৩০টি কক্ষ রয়েছে। তিনটি প্রধান অংশ হচ্ছে কোনিগবাউ (Königsbau, ম্যাক্স-জোসেফ-প্লাৎজের নিকটস্থ), আল্টে রেসিডেন্স (পুরাতন রেসিডেন্স, রেজেনডেনস্ট্রাসের দিকে) এবং ফিস্টসালবাউ (হফগার্টের দিকে)। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরবর্তীতে ভবনটি পুনর্গঠনের পর থেকে পূর্ববর্তী ফিস্টআলালবোর একটি শাখা হিসেবে ক্যুভিলিস থিয়েটার রয়েছে। এটি বাভারিয়া বেতার সিম্ফনি অর্কেস্ট্রার প্রাথমিক কনসার্টের স্থান হারকুলেসাল হল হিসেবে পরিচিত। পূর্ব দিকে সকল সন্তদের জন্য বাইজেন্টাইন আদালত গির্জা (Allerheiligen-Hofkirche) পূর্বমুখী মার্স্টল আদালত গির্জাটি আগেকার আদালত রাইডিং বিদ্যালয় এবং রাজকীয় জনবলের জন্য নির্মিত।

ইতিহাস এবং স্থাপত্য[সম্পাদনা]

১৩৮৫ খ্রিস্টাব্দে এই স্থাপনার প্রথম ভবনটি তৃতীয় স্টিফেন (১৩৭৫-১৪১৩) এবং তার কনিষ্ঠ ভাইয়ের বিরুদ্ধে ব্যর্থ বিদ্রোহের নিদর্শন হিসাবে মিউনিখের নগর কর্তৃপক্ষের অর্থায়নে নির্মাণ করা হয়েছিল।[২] সিলভার টাওয়ার (সিলবার্টম), শক্তিশালী দুর্গ হিসাবে উল্লেখযোগ্য যা শহরের অভ্যন্তরের কেল্লাগুলির সুরক্ষার্থে প্রাচীর হিসেবে অবস্থিত। এই বলিষ্ঠ নতুন দুর্গ (নিউভেস্তে - নতুন দুর্গ), প্রশস্ত খাদ দ্বারা ঘেরা এবং এর উত্তর পূর্ব কোণে নতুন দ্বি-চক্রাকার শহরের দেয়াল অবস্থিত, এর মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত আল্টার হোফ (পুরাতন আদাতল) উইটল্সবাখ শাসকদের রক্ষাকারী আবাসস্থল হিসাবে স্থাপন করা হয়েছিল। সদা বিভক্ত দেশগুলির নৃপতিদের জন্য একদিকে ঘন ঘন বিদ্রোহকারী নগরবাসিন্দাদের কাছ থেকে কিছু দূরে রাখা এবং অন্যদিকে তাদের যুদ্ধপ্রিয় আত্মীয়দের বিরুদ্ধে কিছু প্রতিরক্ষা প্রয়োজন বোধ করা হয়েছিল। ফলস্বরূপ, তারা একই সময়ে নিজেদেরকে দুর্ভেদ্য আশ্রয় এবং সহজ বহির্গমন পথ হিসেবে (সরাসরি গ্লাসিসের দিকে, শহরের লেনগুলিতে প্রবেশ না করে) নির্মাণ করা হয়। চতুর্থ অ্যালবার্ট (১৪৬৫-১৫০৮)-এর অধীনে ১৪৭০ সালের দিকে, দুর্গ প্রাচীর এবং উত্তরে ফটক ও দুটি বুরুজ নির্মিত হয়েছিল।

গথিক ফাউন্ডেশনের দেয়াল এবং তথাকথিত বলিউম সেলার (বুলালকেলার)-এর গোলাকার স্তম্ভগুলি সহ পুরাতন দুর্গগুলির পিলার ভল্টগুলি আজ প্রাসাদের প্রাচীনতম জীবিত অংশ। শতাব্দী ধরে প্রাসাদটির বিকাশ কেবলমাত্র তার কেন্দ্রীয় স্থাপনা- নিউভেস্ট এই স্থান নেয় নি, তবে এর সাথে সাথে ক্ষুদ্র অংশ এবং সম্প্রসারিত অংশ গুলোর মধ্যেও পেয়েছিল। অবশেষে, চার শতক বিকাশের পর, বিশালাকার প্রাসাদটি পুরোপুরি পুরানো শহরের চতুর্থাংশ ব্যারাকে, একটি আশ্রম, ঘর এবং বাগান দিয়ে রেনেসাঁ পরবর্তী সময়ের পাশাপাশি বারোক, রকোকো এবং নব্য-ধ্রুপদী শৈলীগুলিকে একত্রিত করে প্রতিস্থাপন করেছিল।

পর্যটন শিল্প[সম্পাদনা]

মিউনিখ আবাসন এবং এর জাদুঘরে প্রতি বছর প্রায় ৩০০,০০০ পর্যটক ভিড় জমান।

চিত্রশালা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

স্থানাঙ্ক: ৪৮°০৮′২৮″ উত্তর ১১°৩৪′৪১″ পূর্ব / ৪৮.১৪১১১° উত্তর ১১.৫৭৮০৬° পূর্ব / 48.14111; 11.57806