মাঙ্গা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
মাঙ্গা
Languages জাপানি

মাঙ্গা (漫画 মান্‌গা?) হল জাপানের জনপ্রিয় কমিক বই। মাঙ্গা পড়া হয় সাধারণত ডান থেকে বামে। মাঙ্গা শব্দটি একবচন বা বহুবচন উভয়ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়। জাপানে শিশু, কিশোর, বৃদ্ধ সকলে বয়সের লোকেরা মাঙ্গা পড়তে পছন্দ করে। ১৯৫০ সাল থেকে মাঙ্গা জাপানের প্রকাশনা শিল্পের গুরুত্বপূর্ণ অংশ। মাঙ্গা বর্তমানে বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয়। মাঙ্গার গল্পকাহিনীগুলো রঙিন, সাদা কালো সকল রং প্রিন্ট করা হয়ে থাকে।

পাদটীকা[সম্পাদনা]

তথ্য সূত্র[সম্পাদনা]

  • Allison, Anne (২০০০)। "Sailor Moon: Japanese superheroes for global girls"। Craig, Timothy J.। Japan Pop! Inside the World of Japanese Popular Culture। Armonk, New York: M.E. Sharpe। আইএসবিএন 978-0-7656-0561-0 
  • Arnold, Adam (২০০০)। "Full Circle: The Unofficial History of MixxZine"। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  • Bacon, Michelle (১৪ এপ্রিল ২০০৫)। "Tangerine Dreams: Guide to Shoujo Manga and Anime"। সংগ্রহের তারিখ ১ এপ্রিল ২০০৮ 
  • Berger, Klaus (১৯৯২)। Japonisme in Western Painting from Whistler to Matisse। Cambridge: Cambridge University Press। আইএসবিএন 0-521-37321-2 
  • Boilet, Frédéric (২০০১)। Yukiko's Spinach। Castalla-Alicante, Spain: Ponent Mon। আইএসবিএন 84-933093-4-6 
  • Boilet, Frédéric; Takahama, Kan (২০০৪)। Mariko Parade। Castalla-Alicante, Spain: Ponent Mon। আইএসবিএন 84-933409-1-X 
  • Bosker, Bianca (৩১ আগস্ট ২০০৭)। "Manga Mania"The Wall Street Journal। সংগ্রহের তারিখ ১ এপ্রিল ২০০৮ 
  • Bouquillard, Jocelyn; Marquet, Christophe (১ জুন ২০০৭)। Hokusai: First Manga Master। New York: Abrams। আইএসবিএন 0-8109-9341-4 
  • Brenner, Robin E. (২০০৭)। Understanding Manga and Anime। Westport, Connecticut: Libraries Unlimited/Greenwood। আইএসবিএন 978-1-59158-332-5 
  • Clements, Jonathan; McCarthy, Helen (২০০৬)। The Anime Encyclopedia: A Guide to Japanese Animation Since 1917, Revised and Expanded Edition। Berkeley, California: Stone Bridge Press। আইএসবিএন 1-933330-10-4 
  • Crandol, Mike (১৪ জানুয়ারি ২০০২)। "The Dirty Pair: Run from the Future"Anime News Network। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০০৮ 
  • Cube (১৮ ডিসেম্বর ২০০৭)। "2007年のオタク市場規模は1866億円―メディアクリエイトが白書" (Japanese ভাষায়)। Inside for All Games। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  • "Dark Horse buys Studio Proteus" (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। Dark Horse Comics। ৬ ফেব্রুয়ারি ২০০৪। 
  • Drazen, Patrick (২০০৩)। Anime Explosion! The What? Why? & Wow! of Japanese Animation। Berkeley, California: Stone Bridge। আইএসবিএন 978-1-880656-72-3 
  • Farago, Andrew (৩০ সেপ্টেম্বর ২০০৭)। "Interview: Jason Thompson"। The Comics Journal। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০০৮ 
  • Fishbein, Jennifer (২৬ ডিসেম্বর ২০০৭)। "Europe's Manga Mania"BusinessWeek। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  • Gardner, William O. (নভেম্বর ২০০৩)। "Attack of the Phallic Girls"Science Fiction Studies (88)। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০০৮ 
  • Glazer, Sarah (১৮ সেপ্টেম্বর ২০০৫)। "Manga for Girls"The New York Times। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০০৮ 
  • Gravett, Paul (২০০৪)। Manga: Sixty Years of Japanese Comics। New York: Harper Design। আইএসবিএন 1-85669-391-0 
  • Gravett, Paul (১৫ অক্টোবর ২০০৬)। "Gekiga: The Flipside of Manga"। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০০৮ 
  • Griffiths, Owen (২২ সেপ্টেম্বর ২০০৭)। "Militarizing Japan: Patriotism, Profit, and Children's Print Media, 1894–1925"Japan Focus। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ডিসেম্বর ২০০৮ 
  • Isao, Shimizu (২০০১)। "Red Comic Books: The Origins of Modern Japanese Manga"। Lent, John A.। Illustrating Asia: Comics, Humor Magazines, and Picture Books। Honolulu, Hawaii: University of Hawai'i Press। আইএসবিএন 978-0-8248-2471-6 
  • Ito, Kinko (২০০৪)। "Growing up Japanese reading manga"। International Journal of Comic Art (6): 392–401। 
  • Ito, Kinko (২০০৫)। "A history of manga in the context of Japanese culture and society"The Journal of Popular Culture38 (3): 456–475। doi:10.1111/j.0022-3840.2005.00123.x। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০০৮ 
  • Johnston-O'Neill, Tom (৩ আগস্ট ২০০৭)। "Finding the International in Comic Con International"। The San Diego Participant Observer। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০০৮ 
  • Katzenstein, Peter J.; Shiraishi, Takashi (১৯৯৭)। Network Power: Japan in Asia। Ithaca, New York: Cornell University Press। আইএসবিএন 978-0-8014-8373-8 
  • Kern, Adam (২০০৬)। Manga from the Floating World: Comicbook Culture and the Kibyōshi of Edo Japan। Cambridge: Harvard University Press। আইএসবিএন 978-0-674-02266-9 
  • Kern, Adam (২০০৭)। "Symposium: Kibyoshi: The World's First Comicbook?"। International Journal of Comic Art (9): 1–486। 
  • Kinsella, Sharon (২০০০)। Adult Manga: Culture and Power in Contemporary Japanese Society। Honolulu, Hawaii: University of Hawai'i Press। আইএসবিএন 978-0-8248-2318-4 
  • Kittelson, Mary Lynn (১৯৯৮)। The Soul of Popular Culture: Looking at Contemporary Heroes, Myths, and Monsters। Chicago: Open Court। আইএসবিএন 978-0-8126-9363-8 
  • Lee, William (২০০০)। "From Sazae-san to Crayon Shin-Chan"। Craig, Timothy J.। Japan Pop!: Inside the World of Japanese Popular Culture। Armonk, New York: M.E. Sharpe। আইএসবিএন 978-0-7656-0561-0 
  • Lent, John A. (২০০১)। Illustrating Asia: Comics, Humor Magazines, and Picture Books। Honolulu, Hawaii: University of Hawaii Press। আইএসবিএন 0-8248-2471-7 
  • Leonard, Sean (১২ সেপ্টেম্বর ২০০৪)। "Progress Against the Law: Fan Distribution, Copyright, and the Explosive Growth of Japanese Animation" (PDF)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  • Lone, Stewart (২০০৭)। Daily Lives of Civilians in Wartime Asia: From the Taiping Rebellion to the Vietnam War। Westport, Connecticut: Greenwood Publishing Groupআইএসবিএন 0-313-33684-9 
  • Mahousu (জানুয়ারি ২০০৫)। "Les editeurs des mangas"। self-published। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০০৭  [অনির্ভরযোগ্য উৎস??]
  • Masters, Coco (১০ আগস্ট ২০০৬)। "America is Drawn to Manga"। Time Magazine 
  • "First International MANGA Award" (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। Ministry of Foreign Affairs of Japan। ২৯ জুন ২০০৭। 
  • Napier, Susan J. (২০০০)। Anime: From Akira to Princess Mononoke। New York: Palgrave। আইএসবিএন 0-312-23863-0 
  • Nunez, Irma (২৪ সেপ্টেম্বর ২০০৬)। "Alternative Comics Heroes: Tracing the Genealogy of Gekiga"The Japan Times। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  • Ōgi, Fusami (২০০৪)। "Female subjectivity and shōjo (girls) manga (Japanese comics): shōjo in Ladies' Comics and Young Ladies' Comics"। The Journal of Popular Culture36 (4): 780–803। doi:10.1111/1540-5931.00045 
  • Patten, Fred (২০০৪)। Watching Anime, Reading Manga: 25 Years of Essays and Reviews। Berkeley, California: Stone Bridge Press। আইএসবিএন 978-1-880656-92-1 
  • Perper, Timothy; Cornog, Martha (২০০২)। "Eroticism for the masses: Japanese manga comics and their assimilation into the U.S."। Sexuality & Culture6 (1): 3–126। doi:10.1007/s12119-002-1000-4 
  • Perper, Timothy; Cornog, Martha (২০০৩)। "Sex, love, and women in Japanese comics"। Francoeur, Robert T.; Noonan, Raymond J.। The Comprehensive International Encyclopedia of Sexuality। New York: Continuum। আইএসবিএন 978-0-8264-1488-5 
  • Petersen, Robert S. (২০১১)। Comics, Manga, and Graphic Novels: A History of Graphic Narratives। ABC-CLIO। আইএসবিএন 9780313363306 
  • Pink, Daniel H. (২২ অক্টোবর ২০০৭)। "Japan, Ink: Inside the Manga Industrial Complex"Wired15 (11)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  • Poitras, Gilles (২০০১)। Anime Essentials: Every Thing a Fan Needs to Know। Berkeley, California: Stone Bridge। আইএসবিএন 978-1-880656-53-2 
  • Reid, Calvin (২৮ মার্চ ২০০৬)। "HarperCollins, Tokyopop Ink Manga Deal"Publishers Weekly। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০০৮ 
  • Reid, Calvin (৬ ফেব্রুয়ারি ২০০৯)। "2008 Graphic Novel Sales Up 5%; Manga Off 17%"Publishers Weekly। সংগ্রহের তারিখ ৭ সেপ্টেম্বর ২০০৯ 
  • Riciputi, Marco (২৫ অক্টোবর ২০০৭)। "Komikazen: European comics go independent"। Cafebabel.com। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০০৮  [অনির্ভরযোগ্য উৎস??]
  • Rifas, Leonard (২০০৪)। "Globalizing Comic Books from Below: How Manga Came to America"। International Journal of Comic Art6 (2): 138–171। 
  • Sanchez, Frank (১৯৯৭–২০০৩)। "Hist 102: History of Manga"। AnimeInfo। ৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ সেপ্টেম্বর ২০০৭ 
  • Schodt, Frederik L. (১৯৮৬)। Manga! Manga! The World of Japanese Comics। Tokyo: Kodansha। আইএসবিএন 978-0-87011-752-7 
  • Schodt, Frederik L. (১৯৯৬)। Dreamland Japan: Writings on Modern Manga। Berkeley, California: Stone Bridge Press। আইএসবিএন 978-1-880656-23-5 
  • Schodt, Frederik L. (২০০৭)। The Astro Boy Essays: Osamu Tezuka, Mighty Atom, and the Manga/Anime Revolution। Berkeley, California: Stone Bridge Press। আইএসবিএন 978-1-933330-54-9 
  • Shimizu, Isao (জুন ১৯৮৫)। 日本漫画の事典 : 全国のマンガファンに贈る (Nihon Manga no Jiten – Dictionary of Japanese Manga) (Japanese ভাষায়)। Sun lexica। আইএসবিএন 4-385-15586-0 
  • Stewart, Bhob (অক্টোবর ১৯৮৪)। "Screaming Metal"। The Comics Journal (94)। 
  • Tai, Elizabeth (২৩ সেপ্টেম্বর ২০০৭)। "Manga outside Japan"Star Online। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  • Tchiei, Go (১৯৯৮)। "Characteristics of Japanese Manga"। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০০৮ 
  • Thompson, Jason (২০০৭)। Manga: The Complete Guide। New York: Ballantine Books। আইএসবিএন 978-0-345-48590-8 
  • Thorn, Matt (জুলাই–সেপ্টেম্বর ২০০১)। "Shôjo Manga—Something for the Girls"The Japan Quarterly48 (3)। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০০৮ 
  • Toku, Masami (Spring ২০০৬)। "Shojo Manga: Girl Power!"Chico Statements। California State University, Chico। আইএসবিএন 1-886226-10-5। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০০৮ 
  • Vollmar, Rob (১ মার্চ ২০০৭)। "Frederic Boilet and the Nouvelle Manga revolution"World Literature Today। সংগ্রহের তারিখ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০০৭ 
  • Webb, Martin (২৮ মে ২০০৬)। "Manga by any other name is..."The Japan Times। সংগ্রহের তারিখ ৫ এপ্রিল ২০০৮ 
  • Wong, Wendy Siuyi (২০০২)। Hong Kong Comics: A History of Manhua। New York: Princeton Architectural Press। আইএসবিএন 978-1-56898-269-4 
  • Wong, Wendy Siuyi (২০০৬)। "Globalizing manga: From Japan to Hong Kong and beyond"। Mechademia: an Annual Forum for Anime, Manga, and the Fan Arts। পৃষ্ঠা 23–45। 
  • Wong, Wendy (সেপ্টেম্বর ২০০৭)। "The Presence of Manga in Europe and North America"Media Digest। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  • "About Manga Museum: Current situation of manga culture"। Kyoto Manga Museum। সংগ্রহের তারিখ ৬ সেপ্টেম্বর ২০০৯ 
  • "Correction: World Manga"Anime News Network। ১০ মে ২০০৬। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  • "I.C. promotes AmeriManga"Anime News Network। ১১ নভেম্বর ২০০২। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০০৮ 
  • "Interview with Tokyopop's Mike Kiley"ICv2। ৭ সেপ্টেম্বর ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  • Japan: Profile of a Nation, Revised Edition। Tokyo: Kodansha International। ১৯৯৯। আইএসবিএন 4-7700-2384-7 
  • "Japan's Foreign Minister Creates Foreign Manga Award"Anime News Network। ২২ মে ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ৫ অক্টোবর ২০০৯ 
  • "manga"। Merriam-Webster Online Dictionary। সংগ্রহের তারিখ ৬ সেপ্টেম্বর ২০০৯ 
  • "Manga-mania in France"Anime News Network। ৪ ফেব্রুয়ারি ২০০৪। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০০৭ 
  • "'Manga no Kuni': A manga magazine from the Second Sino-Japanese War period"। Kyoto International Manga Museum। সংগ্রহের তারিখ ২১ ডিসেম্বর ২০০৮ 
  • "'Poten': a manga magazine from Kyoto"। Kyoto International Manga Museum। সংগ্রহের তারিখ ২১ ডিসেম্বর ২০০৮ 
  • "'Shonen Pakku'; Japan's first children's manga magazine"। Kyoto International Manga Museum। সংগ্রহের তারিখ ২১ ডিসেম্বর ২০০৮ 
  • "The first Japanese manga magazine: Eshinbun Nipponchi"। Kyoto International Manga Museum। সংগ্রহের তারিখ ২১ ডিসেম্বর ২০০৮ 
  • "Tokyopop To Move Away from OEL and World Manga Labels"Anime News Network। ৫ মে ২০০৬। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০০৭ 

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Comicnav টেমপ্লেট:Comics region টেমপ্লেট:Japan topics