মণিশংকর মুখোপাধ্যায়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(মণিশঙ্কর মুখোপাধ্যায় থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শংকর
জাতিসংঘে বক্তৃতা রাখছেন শংকর
জাতিসংঘে বক্তৃতা রাখছেন শংকর
জন্ম (1933-12-07) ৭ ডিসেম্বর ১৯৩৩ (বয়স ৮৫)
বনগাঁও, উত্তর চব্বিশ পরগনা, পশ্চিমবঙ্গ
ছদ্মনামশংকর
পেশালেখক, উপন্যাসিক, প্রাবন্ধিক, গবেষক
জাতীয়তাভারতীয়
উল্লেখযোগ্য রচনাবলিচৌরঙ্গী, সীমাবদ্ধ, জন অরণ্য

শংকর একজন ভারতীয় বাঙালি লেখক। তাঁর আসল নাম মণিশংকর মুখোপাধ্যায়। তাঁর প্রথম বই প্রকাশিত হয় ১৯৫৫ সালে। তাঁর রচিত উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ হল চৌরঙ্গী, সীমাবদ্ধ এবং জন অরণ্য। এই তিনটি বই নিয়ে চলচ্চিত্রও নির্মিত হয়েছে। ২০১৬ সালে তিনি উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডি.লিট সম্মানে ভূষিত হন।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

শংকর ১৯৩৩ সালের ৭ ডিসেম্বর যশোরের বনগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। আইনজীবী বাবা হরিপদ মুখোপাধ্যায় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরুর আগেই চলে যান কলকাতার ওপারে হাওড়ায়। সেখানেই শংকরের বেড়ে ওঠা, পড়াশোনা ও সাহিত্য সাধনার শুরু। জীবনের শুরুতে কখনো ফেরিওয়ালা, টাইপরাইটার ক্লিনার, কখনো প্রাইভেট টিউশনি, কখনো শিক্ষকতা অথবা জুট ব্রোকারের কনিষ্ঠ কেরানিগিরি করেছেন। এক ইংরেজের অনুপ্রেরণায় শুরু করেন লেখালেখি।[১]

সাহিত্য জীবন[সম্পাদনা]

শংকরের তাঁর প্রথম বই প্রকাশিত হয় ১৯৫৫ সালে।[২] অল্প বয়সে কত অজানারে বইটি লিখে জনপ্রিয়তা লাভ করেন।[৩] বিখ্যাত পরিচালক সত্যজিৎ রায় তাঁর সীমাবদ্ধ এবং জন অরণ্য উপন্যাসের কাহিনী অবলম্বনে চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন। তাঁর চৌরঙ্গী উপন্যাস অবলম্বনেও চলচ্চিত্র নির্মিত হয়েছে। এতে মুখ্য চরিত্র স্যাটা বোসের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন উত্তম কুমার। সেই প্রসঙ্গে শংকর বললেন, "সত্যজিৎই আমাকে সকলের কাছে পৌঁছে দিয়েছে, ছড়িয়ে দিয়েছে।"[১] ২০১২ সাল পর্যন্ত চৌরঙ্গী উপন্যাসের ১১১তম সংস্করণ প্রকাশিত হয়েছে।[৪] বোধোদয় উপন্যাস প্রকাশের পর শংকরকে উৎসাহ-বাণী পাঠান শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়: "ব্রাইট বোল্ড বেপরোয়া"। ভাবনা বা প্রকাশভঙ্গিতে এ-উপন্যাস নিজের অন্য লেখালেখি থেকে অনেকটাই অন্য রকম হওয়ায় তখন তা পড়তে দিয়েছিলেন মুম্বইবাসী শরদিন্দুকে, পড়ে তিনি বলেছিলেন "তোমার এই লেখায় জননীজন্মভূমিকেই আমি সারাক্ষণ উপলব্ধি করলাম।" এই বই সম্পর্কে শংকর বলেন, "পাঠকমহলের নিন্দা ও প্রশংসার ডালি নিয়ে আমি নিজেও একসময় বোধোদয়-কে ভালবাসতে শুরু করেছি।" সত্তর দশকের অশান্ত কলকাতা নিয়ে তাঁর ‘স্থানীয় সংবাদ’ উপন্যাসটি এবং ‘সুবর্ণ সুযোগ’— এই তিনটি উপন্যাস মিলিয়ে আগে প্রকাশিত হয়েছিল যে উপন্যাস-সংগ্রহ জন্মভূমি, সম্প্রতি[কখন?] প্রকাশিত হল তার ১০২তম সংস্করণ।

গ্রন্থ তালিকা[সম্পাদনা]

  • রসবতী
  • বঙ্গ বসুন্ধরা
  • চরণ ছুঁয়ে যাই
  • শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ রহস্যামৃত
  • মনজঙ্গল
  • রূপতাপস
  • মরুভূমি
  • আশা-আকাঙ্খা
  • তীরন্দাজ
  • পটভূমি
  • কামনা বাসনা
  • অনেক দূর
  • সুখ সাগর
  • সীমন্ত সংবাদ
  • চৌরঙ্গী
  • একদিন হঠাৎ
  • মুক্তির স্বাদ
  • কাজ
  • নবীনা
  • এবিসিডি
  • যেখানে যেমন
  • বাংলার মেয়ে
  • এক ব্যাগ শংকর
  • ঘরের মধ্যে ঘর
  • সোনার সংসার
  • মাথার উপর ছাদ
  • মানবসাগর তীরে
  • সুবর্ণ সুযোগ
  • সীমাবদ্ধ
  • স্থানীয় সংবাদ
  • এপার বাংলা ওপার বাংলা
  • নিবেদিতা রিসার্চ ল্যাবরেটরি
  • বোধোদয়
  • এক দুই তিন
  • সার্থক জনম
  • মানচিত্র
  • যোগ বিয়োগ গুন ভাগ
  • পাত্র-পাত্রী
  • পদ্মপাতায় জল
  • যা বলো তাই বলো
  • কত অজানারে
  • বিত্তবাসনা
  • সম্রাট ও সুন্দরী
  • মান সম্মান
  • হনিমুন
  • নগরনন্দিনী
  • জন অরণ্য
  • এক যে ছিল দেশ
  • লক্ষ্মীর সন্ধানে
  • সপ্তসাগর পারে
  • অবসরিকা
  • স্বর্গ মর্ত পাতাল
  • তনয়া
  • চিরকালের উপকথা
  • সহসা

চিত্রকক্ষ[সম্পাদনা]

সম্মাননা[সম্পাদনা]

  • ২০১৬ সালে উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডি.লিট সম্মান।[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "শংকর বললেন, এলেন বড্ড দেরিতে"দৈনিক প্রথম আলো। ২২ অক্টোবর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০১৭ 
  2. "শংকরের বইয়ের প্রকাশনা উৎসব ও বক্তৃতা"বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। ২১ অক্টোবর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০১৭ 
  3. "লেখকের অন্য চোখ: নুন ছাড়া আলুনি লাগে"বাংলাদেশ প্রতিদিন। ২ এপ্রিল ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০১৭ 
  4. "জীবনটাই তো একটা চৌরঙ্গী"আনন্দবাজার পত্রিকা। ৯ জুন ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০১৭ 
  5. "সাহিত্যিক শঙ্করকে উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্মানিক ডি.লিট"এবেলা। ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]