বিফোর আই ওয়েক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বিফোর আই ওয়েক
বিফোর অাই ওয়েক পোস্টার.jpg
প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পোস্টার
পরিচালকমাইক ফ্লানাগন
প্রযোজকস্যাম এঙ্গেলবার্ড
উইলিয়াম ডি জনসন
ট্রেভর মেসি
রচয়িতামাইক ফ্লানাগন
জেফ হাওয়ার্ড
শ্রেষ্ঠাংশেকেট বসওয়ার্থ
থমাস জেন
জ্যাকব ট্রেম্বলে
আনাবাথ গিশ
ড্যাশ মিহক
সুরকারড্যানি এলফম্যান
দ্য নিউটন ব্রাদার্স
সম্পাদকমাইক ফ্লানাগন
প্রযোজনা
কোম্পানি
ইন্টারেপিড পিকচার্স
ডিমারেস্ট ফিল্মস্
এমআইসিএ এন্টারটেইনমেন্ট
মুক্তি
  • ৩১ জুলাই ২০১৬ (2016-July-31) (ফ্যান্টাসিয়া)
  • ৫ জানুয়ারি ২০১৮ (2018-January-05) (নেটফ্লিক্স)
দৈর্ঘ্য৯৭ মিনিট[১]
দেশযুক্তরাষ্ট্র
ভাষাইংরেজী
আয়$৩.৩ মিলিয়ন[২]

বিফোর আই ওয়েক ২০১৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত আমেরিকান ডার্ক ফ্যান্টাসি হরর চলচ্চিত্র যেটি মাইক ফ্লানাগন কর্তৃক পরিচালিত ও সম্পাদিত।[৩]

সারাংশ[সম্পাদনা]

এক ব্যক্তি বন্দুক হাতে সন্তস্ত্রভাবে একটি ঘুমন্ত শিশুর কক্ষে প্রবেশ করে। সে চারিদিকে এমনভাবে তাকায় যেন আশা করছিল অন্ধকার থেকে কিছু বেরিয়ে আসবে। কিন্তু কোন কিছুতে সে চমকে গেলে ভুলবশত বন্দুক থেকে গুলি বেরিয়ে যায় এবং গুলির শব্দে শিশুটির ঘুম ভেঙ্গে যায়। তখন বন্দুধারী ব্যাক্তিটি কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে। এর কিছুদিন পর জেসি ও মার্ক হবসন দম্পতি কোডি মর্গান নামের আট বছর বয়সী এক অনাথ শিশুকে দত্তক নেয়। আর অল্প সময়ের মধ্যেই তারা জানতে পারে কোডির স্বপ্ন বাস্তবে রূপ নেয়।
দত্তক নেওয়ার প্রথম রাতে হবসন দম্পতি অবাক হয়ে লক্ষ্য করে তাদের ঘরে ঊজ্জ্বল আভা ছড়ানো বিচিত্র রঙ্গের প্রজাপতি উড়ে বেড়াচ্ছে । যেহেতু কোডি প্রজাপতি ভালবাসে তাই মার্ক তাকে দেখানোর জন্য একটি নীল প্রজাপতি ধরে। কিন্তু কোডি জেগে ওঠে আর প্রজাপতিগুলোও অদৃশ্য হয়ে যায়। পরেরদিন কোডি স্কুলে যায় এবং সেখানে একটি মেয়ের সাথে বন্ধুত্ব করে আর এক দুষ্টু ছেলেকে প্রতিহত করে।স্কুল থেকে ফেরার পর ঘরে সে তার মত এক শিশুর ছবি দেখতে পায় এবং শিশুটি কে জানতে চাইলে মার্ক উত্তর দেয় যে ছবিটি হচ্ছে তাদের মৃত সন্তান শনের যে দুর্ঘটনাবশত বাথটাবে ডুবে মারা গেছে। কোডি জানায় তার মাও মারা গেছে। ঐ দিন রাতে মার্ক ও জেসির সাথে আরেকটি অদ্ভুত ঘটনা ঘটে। তারা তাদের মৃত সন্তান শনকে দেখতে পায়। জেসি শনকে জড়িয়ে ধরে কিন্তু কোডির ঘুম ভেঙ্গে যাওয়ায় শন অদৃশ্য হয়ে যায়।

কোডির ক্ষমতা সম্পর্কে জানার পর থেকে জেসি এর থেকে সুবিধা নেওয়া শুরু করে। সে কোডিকে শনের ভিডিওচিত্র দেখায় যা ক্রিস্টমাসের সময় ধারণ করা হয়েছিল। ঐ রাতে মার্ক ও জেসি তাদের স্নেহের সন্তান শনকে আরও একবার দেখতে পায়। কয়েকদিনের মধ্যেই মার্ক লক্ষ্য করে যে কোডির প্রতি জেসির ব্যবহার বাড়াবাড়ি পর্যায়ে চলে গেছে। ভালবাসার বদলে জেসি কোডির ক্ষমতার অপব্যাবহার করছে। এই বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে তর্ক হয় যার অবসান ঘটে মার্ক কর্তৃক শনের সকল ছবি নামিয়ে ফেলার মাধ্যমে।

কোডির দুঃস্বপ্ন অন্যকারও ক্ষতি করবে এই ভয়ে সে খুব কম ঘুমায়। কিন্তু একদিন সে স্কুলে ঘুমিয়ে পড়ে আর তার দুঃস্বপ্নের প্রাণী যাকে সে "ক্যানকার ম্যান" বলে ডাকে দুষ্টু ছেলেটির সামনে অভির্ভূত হয় আর এই দৃশ্যটি ঐ মেয়েটি দেখে যার সাথে কোডি পূর্বে বন্ধুত্ব করেছিল। মেয়েটির চিত্‍কারে কোডির ঘুম ভাঙ্গে ফলে তার দুঃস্বপ্নের প্রাণীটিও অদৃশ্য হয়ে যায়। এদিকে জেসি একজন ডাক্তারের সাথে দেখা করে এবং তাকে জানায় তার শিশু সন্তানের ঘুমাতে অসুবিধা হয়। ডাক্তার জেসিকে ঘুমের ওষুধ দেয় যা সে মার্কের অগোচরে পানীয়ের সাথে মিশিয়ে কোডিকে দেয়। সেই রাতে তারা শনকে আরও একবার দেখতে পায় কিন্তু এবার কোডির দুঃস্বপ্ন রূপে। মার্ক কোডিকে জাগাবার চেষ্টা করে কিন্তু ব্যার্থ হয়। এদিকে জেসি স্বীকার করে যে সে কোডিকে ঘুমের ওষুধ দিয়েছে। কিন্তু ততক্ষনে খুব দেরী হয়ে যায়। কোডির দুঃস্বপ্নের প্রাণীটি মার্ককে গ্রাস করে আর জেসিকে অজ্ঞান অবস্থায় দূরে ছুড়ে ফেলে।

কোডির ৯১১ এ কল করে সাহায্যের আবেদন করা শোনার মাধ্যমে জেসির জ্ঞান ফেরে। পুলিশ সন্দেহ করে কোডিকে নির্যাতন করা হয়েছে ও তাকে মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ প্রদান করা হয়েছে। তাই সোশ্যাল সার্ভিস কোডিকে জেসির কাছ থেকে নিজেদের জিম্মায় নিয়ে নেয়।

জেসি কোডির পূর্বের পিতামাতা সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করা শুরু করে। সে এক ব্যক্তির সাথে দেখা করে যে পূর্বে কোডিকে দত্তক নিয়েছিল। ঐ ব্যাক্তির কাছ থেকে জেসি জানতে পারে তার স্ত্রীও কোডির দুঃস্বপ্নের স্বীকার হয়ছে আর এজন্য সে কোডিকে হত্যা করতে চেয়েছে কিন্তু ছোট শিশুকে হত্যা করতে তার মন সায় দেয়নি। সে আরও জানায় যদি সে তাকে হত্যা করত তাহলে জেসিকে মার্ককে হারাতে হত না। আর এজন্য জেসিকে ঐ কাজটি সম্পন্ন করতে হবে যেটিতে সে ব্যর্থ হয়েছিল। জেসি তার এ প্রস্তাবে রাজি হয় না। বরং সে কোডির আসল মা সম্পর্কে তথ্য যোগাড় করা শুরু করে।

কোডিকে যে অনাথাশ্রমে রাখা হয় তার কর্মীরা লক্ষ্য করে কোডি টানা দুইদিন ঘুমায়নি। তাই তারা তাকে ঘুমের ওষুধ দিয়ে ঘুম পাড়িয়ে রাখে। জেসি যখন অনাথাশ্রমে পৌছায় তখন জায়গাটি ছিল অন্ধকার ও নিশ্চুপ।সেখানের প্রতিটি কামরায় সে কোডির দুঃস্বপ্নের প্রাণীদের দেখতে পায়। এরপর সে কোডির কামরায় পৌছায় এবং তার কাছে যাওয়ার পূর্বে "ক্যানকার ম্যান" আভির্ভূত হয় এবং জেসিকে দূরে ছুড়ে ফেলে। জেসি বালিশের আকৃতির মত একটি নীল প্রজাপতি সদৃশ বস্তু বের করে এবং দুঃস্বপ্নের প্রাণীটিকে জড়িয়ে ধরে। সে যখন এটিকে জড়িয়ে ধরে তখন এটি কোডির রুপ ধারন করে এবং অদৃশ্য হয়ে যায়। অদৃশ্য হওয়ার পূর্বে জেসি তার কানের কাছে গিয়ে বলে সে যতগুলো মানুষকে তার সাথে নিয়ে গেছে তাদের সকলকে মুক্ত করে দিতে। দুঃস্বপ্ন সুন্দর স্বপ্নে রুপ নেয় এবং "ক্যানকার ম্যান" যতগুলো লোককে নিয়ে গিয়েছিল তারা সকলে ফিরে আসে যদিও কোডির স্বপ্ন হিসেবে। জেসি কোডিকে অচেতন অবস্থায় তার সাথে ঘরে ফিরেয়ে নেয়।

জেসি কোডিকে একটি ডায়েরী দেখায় যা কোডির আসল মা অ্যান্ড্রিয়ার। ডায়েরীটি পড়ে বোঝা যায় তার মা তাকে ও তার স্বপ্ন দেখার ক্ষমতাকে কতটা ভালবাসতো। কিন্তু সে ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে মারা যায় যখন কোডির বয়স মাত্র তিন বছর। জেসি কোডিকে বলে তার অসাধারন ক্ষমতা রয়েছে যা শুধুমাত্র দুঃস্বপ্নের থেকেও অনেক বেশিকিছু। আর কোডিও ধীরে ধীরে তার ক্ষমতাকে নিয়ন্ত্রন করতে শেখে।

কুশীলব[সম্পাদনা]

  • কেট বসওয়ার্থ — জেসি হবসন
  • থমাস জেন — মার্ক হবসন
  • জ্যাকব ট্রেম্বলে — কোডি মর্গান
  • আনাবেথ গিশ — ন্যাটালি ফ্রিডম্যান
  • ড্যাশ মিহক — হুইলান ইয়াং
  • টোফার বুসকেট — দ্য ক্যানকার ম্যান
  • জেই কারনিস — পিটার
  • ল্যান্স ই. নিকোলস — ডিটেক্টর ব্রাউন
  • কাইলা ডিভার — এনি
  • কোর্টনী বেল — অ্যান্ড্রিয়া
  • হান্টার ওয়েজ্ঝেল — টেট
  • এন্টনিও ইভান রোমেরো — শন
  • স্কটি থম্পসন — শিক্ষক
  • জাস্টিন গর্ডন — ড. টেনট

নির্মাণ[সম্পাদনা]

২০১৩ সালের ৭ই সেপ্টেম্বর ঘোষনা করা হয়েছিল যে "ওকিউলাস" চলচ্চিত্রের পরিচালক মাইক ফ্লানাগন "সোমনিয়া" নামক হরর চলচ্চিত্র পরিচালনা করতে যাচ্ছেন যেটি তিনি ইন্টারেপিড পিকচার্সের জন্য জেফ হাওয়ার্ডের সাথে যৌথভাবে রচনা করেছেন এবং ডিমারেস্ট ফিল্মসের সাথে এর যৌথ প্রযোজক হবেন ট্রেভর মেসি ও উইলিয়াম ডি. জনসন। স্যাম এঙ্গেলবার্ড ছবির সহ-প্রোযোজক এবং তিনি যৌথভাবে অর্থায়ন করবেন মিকা এন্টারটেইনমেন্ট কোম্পানীর সাথে যার প্রধান ডেল আরমিন জনসন।[৩] ২০১৫ সালের মার্চে মাইক ফ্লানাগনের অভিযোগের ভিত্তিতে ছবির নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় "বিফোর আই ওয়েক"।[৪]

অভিনয়[সম্পাদনা]

২০১৩ সালের ৭ই নভেম্বর কেট বসওয়ার্থ ও থমাস জেন প্রধান চরিত্র "কোডির পালক বাবা-মা" হিসাবে অভিনয়ের জন্য যোগদান করেন এবং একইদিন কোডি মর্গানের ভূমিকায় জ্যাকব ট্রেম্বলেও যোগ দেয় যে কোডি মর্গানের ভূমিকায় অভিনয় করে। ।[৫] ১৮ই নভেম্বরে আনাবেথ গিশ "ন্যাটালি" যে কোডিকে দত্তক দেওয়া তত্ত্বাবধান করে তার ভূমিকায় অভিনয়ের জন্য অংশগ্রহন করেন।[৬]

দৃশ্যধারন[সম্পাদনা]

২০১৩ সালের ১১ নভেম্বরে আলাবামার ফেয়ারহোপে চলচ্চিত্রটির দৃশ্যধারন শুরু হয়।[৭][৮][৯] ১২ই ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের একটি ঐতিহ্যবাহী স্কুল বার্টন একাডেমীতেও এর দৃশ্যধারন হয়।[১০] সম্পূর্ণ দৃশ্যধারন শেষ হয় ২০১৩ সালের ১৬ ডিসেম্বরে।[৭][৮] চলচ্চিত্রটিতে সঙ্গীত পরিচালনা করেন ড্যানি এলফম্যান ও দ্য নিউটন ব্রাদার্স।[১১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "AMC Theatres: Before I Wake"AMC Theatres (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ২, ২০১৬ 
  2. "Before I Wake (2016)"The Numbers (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ৩০, ২০১৬ 
  3. McNary, Dave (৭ সেপ্টেম্বর ২০১৩)। "'Oculus' Director Mike Flanagan Tapped For 'Somnia'"variety.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১৪ 
  4. "Mike Flanagan on Twitter"twitter.com (ইংরেজি ভাষায়)। ২০ জুলাই ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৬ 
  5. Roxborough, Scott (৭ নভেম্বর ২০১৩)। "Kate Bosworth, Thomas Jane Will Star in Horror Pic 'Somnia'"hollywoodreporter.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০১৪ 
  6. "'Somnia' Adds Annabeth Gish"deadline.com (ইংরেজি ভাষায়)। ১৮ নভেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০১৪ 
  7. D. Anderson, Marc (৪ ডিসেম্বর ২০১৩)। "Kate Bosworth muses on Fairhope life on Twitter while filming 'Somnia' in town"al.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১৪ 
  8. Kaylor, Mike (২২ নভেম্বর ২০১৩)। "ON THE SET OF 'SOMNIA': Executive producer Scott Lumpkin brings movie film crew to his hometown"gulfcoastnewstoday.com। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১৪ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  9. "Extras Casting Call this weekend in Mobile, AL for 'Somnia', starring Katee Sackhoff"onlocationvacations.com (ইংরেজি ভাষায়)। ২৬ অক্টোবর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১৪ 
  10. Philips, Rena (১২ ডিসেম্বর ২০১৩)। "Somnia movie crew filming at historic Barton Academy"mcpss.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০১৪ 
  11. Schweiger, Daniel (৮ এপ্রিল ২০১৪)। "Interview with The Newton Brothers"Film Music Magazine (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]