বাঘ ছাগল খেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

বাঘ ছাগল খেলা, গ্রামীণ বাংলাদেশের একটি জনপ্রিয় খেলা। এই খেলা সাধারনত শিশুরা খেলে থাকে।[১] বাংলাদেশের গ্রামাঞ্চলে ছেলে ও মেয়ে উভয়ই এ খেলা খেলে থাকে। এই খেলাটি কোন কোন জায়গায় অ্যাঙ্গা অ্যাঙ্গা খেলা নামেও পরিচিত।[২]

নিয়মকানুন[সম্পাদনা]

বাঘ ছাগল খেলায় প্রথমে মাটিতে দাগ কেটে বৃত্ত তৈরি করা হয়। এরপর দল থেকে একজনকে বাঘ নির্বাচন করা হয় এবং দলের বাকী খেলোয়াড় ছাগল হিসেবে বৃত্তের ভেতর অবস্থান করে। বাঘের কাজ হলো বৃত্তের বাইরে থেকে, বৃত্তের ভেতর আক্রমণ করা এবং একটি ছাগল ছিনিয়ে নেয়া। এভাবে বাঘ একজন একজন করে নিয়ে তার দল ভারী করে। শেষ পর্যন্ত যে ছাগল বৃত্তের ভেতরে টিকে থাকতে পারে, সে পরবর্তী দানের জন্য বাঘ নির্বাচিত হয়।[১]

বাঘ, ছাগদলকে আক্রমণ করার সময় বিভিন্ন রকম কৌশল অবলম্বন করে। এবং কোন ছাগলকে আক্রমণ করলে ছাগদলের অন্য সদস্যরা তাকে টেনে ধরে রাখে। খেলা চলতে থাকে দুই পক্ষের কথোপকথনের মধ্য দিয়ে, বাঘ প্রথমে কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলতে থাকে, অ্যাঙ্গা, অ্যাঙ্গা। এরপর ছাগলরা সমস্বরে বলে, “কান্দো ক্যান?” এভাবে কথোপকথনের মাঝেই বাঘ ছাগদলকে আক্রমণ করে।

বাঘঃ অ্যাঙ্গা, অ্যাঙ্গা।

ছাগদলঃ কান্দো ক্যান?
বাঘঃ গরু হারাইছে
ছাগদলঃ কি গরু?
বাঘঃ নাঙ্গা গরু।
ছাগদলঃ শিঙ্গি কী?
বাঘঃ কুষ্টার আঁশ।
ছাগদলঃ একটা গান গাও, শুনি
বাঘঃ এতি চোর, বেতি চোর
চলে আয় আমার স্যায়না চোর।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. হঋতা আলম (১৪ জুলাই ২০১২)। "বাঘ-ছাগল খেলা"। ২০১৬-০৩-০৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-২৯ 
  2. "অ্যাঙ্গা অ্যাঙ্গা খেলা"। বাংলাপিডিয়া। ২০১৩-০৮-০৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৫-২৯