প্রিজন ব্রেক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
প্রিজন ব্রেক
প্রিজন ব্রেক
প্রিজন ব্রেক.jpg
প্রিজন ব্রেক মৌসুম ২ শিরোনাম
ফরম্যাটমারদাঙ্গা, রোমাঞ্চ, নাটক
নির্মাতাপল শিউরিং
অভিনয়েডোমিনিক পারসেল
ওয়েন্টওয়ার্থ মিলার
Amaury Nolasco
Wade Williams
Robert Knepper
Paul Adelstein
Sarah Wayne Callies
William Fichtner
প্রস্তুতকারক দেশমার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
মূল ভাষাইংরেজি
মৌসুম সংখ্যা
পর্বসংখ্যা৯০ (পর্বের সংখ্যা)
নির্মাণ
ব্যাপ্তিকাল৪৩ মিনিট (প্রতি পর্ব)
সম্প্রচার
মূল চ্যানেলফক্স
ছবির ফরম্যাট৪৮০আই (এসডিটিভি)
৭২০পি (এইচডিটিভি)
অডিও ফরম্যাটSurround sound
মূল প্রদর্শনীআগস্ট ২৯, ২০০৫বর্তমান
বহিঃসংযোগ
ওয়েবসাইট

প্রিজন ব্রেক একটি আমেরিকান সিরিয়াল ড্রামা টেলিভিশন সিরিজ। ২০০৫ সালের আগস্ট ২৯ তারিখে ফক্স নেটওয়ার্কে এই সিরিয়ালটির প্রিমিয়ার হয়। সিরিয়ালটির কাহিনী আবর্তিত হয়েছে এমন একজনকে নিয়ে যে কোন অপরাধ না করেও আদালতের রায়ে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছে। টিভি ধারাবাহিকটির নির্মাতা হলেন পল টি শিউরিংটুয়েন্টিয়েথ সেঞ্চুরি ফক্স টেলিভিশনের সহায়তায় এর প্রযোজনা করেছে অ্যাডেলস্টেইন-প্যারোজ প্রোডাকশন্‌স। বর্তমানে নির্বাহী প্রযোজকরা হলেন পল শিউরিং, ম্যাট ওল্‌মস্ট্যাড, ডন প্যারোজ, মার্টি অ্যাডেলস্টেইন, নিল মর্টিজ এবং ব্রেট র‌্যাটনার। থিম মিউজিকের সুরকার রামিন জাওয়ান্ডি। এই মিউজিকটি ২০০৬ সালে প্রাইমটাইম অ্যামি অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনয়ন লাভ করেছিল।

এখন পর্যন্ত এর দুইটি মৌসুমের সম্প্রচারের সম্পন্ন হয়েছে। প্রথমে কেবল দুইটি মৌসুম সম্প্রচারের কথা থাকলেও বিশ্বব্যাপী এর বিপুল জনপ্রিয়তা লক্ষ্য করে ফক্স টেলিভিশন সিরিয়ালটিকে তৃতীয় মৌসুম পর্যন্ত নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যা এখন পঞ্চম সিজন পর্যন্ত গড়িয়েছে। এই ধারাবাহিকটির কাহিনী একই সূত্রে গাঁথা, অর্থাৎ এক্স ফাইল্‌স-এর মত একেক পর্বে একেক কাহিনী অনুসৃত হয়নি। এদিক থেকে এটি লস্ট এবং টুয়েন্টি ফোর-এর সমতুল্য। এছাড়া খুব কম টেলিভিশন ধারাবাহিকই সম্পূর্ণ জেলের ভিতরে এতো গভীর পটভূমি তৈরি করতে পেরেছে। সকল অনন্যতা বিবেচনায় একে একটি সফল প্রিজন ড্রামা (কারাগার কেন্দ্রিক নাটক) হিসেবে আখ্যায়িত করা যেতে পারে।

নির্মাণ[সম্পাদনা]

ধারণা[সম্পাদনা]

প্রিজন ব্রেক প্রথমত একটি সাধারণ ধারণা হিসেবে শুরু হয়েছিল। চলচ্চিত্র প্রযোজক ডন প্যারোজের পরামর্শে পল শিউরিং এ ধরনের একটি চিন্তাধারা নিয়ে ভাবতে শুরু করেছিলেন। একজন লোক অন্য কাউকে মুক্ত করার লক্ষ্যে ইচ্ছাকৃতভাবে জেলে যাবে, এটিই ছিল চিন্তাধারার কেন্দ্রীয় ভাব। ডন প্যারোজের লক্ষ্যে ছিল সম্পূর্ণ অ্যাকশনধর্মী একটি সিরিয়াল প্রযোজনা। ধারণাটি বেশ ভাল হলেই শিউরিং চিন্তা করছিলেন ঠিক কি কারণে একজন ব্যক্তি এ ধরনের একটি মিশন নিয়ে স্বেচ্ছায় কারাবাসের সিদ্ধান্ত নিতে পারে। চিন্তা করে মিথ্যা মামলার দায়ে অভিযুক্ত ভাইকে উদ্ধার করার পরিকল্পনাটিই গ্রহণ করেন এবং একে কেন্দ্র করে অন্যান্য চরিত্র নিয়ে ভাবতে থাকেন। ২০০৩ সালে তিনি ফক্স ব্রডকাস্টিং কোম্পানির কাহিনীর সারমর্ম জানান। কিন্তু এ ধরনের কাহিনী নিয়ে দীর্ঘমেয়াদি সিরিয়াল চালিয়ে নেয়া সম্ভব কি-না চিন্তা করে কোম্পানি তা প্রত্যাখ্যান করে। অন্য চ্যানেলগুলোর কাছে গিয়েও তিনি প্রত্যাখ্যাত হন। সবারই ধারণা ছিল এ ধরনের কাহিনী কেবল পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের জন্য প্রযোজ্য হতে পারে, সিরিয়ালের জন্য নয়। পরবর্তীতে এই কাহিনী নিয়ে ১৪ পর্বের একটি মিনি ধারাবাহিক নির্মাণের ব্যাপারে বিখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক স্টিভেন স্পিলবার্গ উৎসাহী হয়ে উঠেন। কিন্তু ওয়ার অফ দ্য ওয়ার্ল্ডস চলচ্চিত্র পরিচালনায় জড়িয়ে পড়ায় তিনি এই চিন্তা ঝেড়ে ফেলেন। ফলে মিনি ধারাবাহিকটি নির্মাণ আর সম্ভব হয়ে উঠেনি। কিন্তু লস্ট এবং টুয়েন্টি ফোর ধারাবাহিকের বিপুল জনপ্রিয়তা লক্ষ্য করে ফক্স নেটওয়ার্ক তাদের মত পাল্টিয়ে ২০০৪ সালে এই কাহিনী নিয়ে সিরিয়াল নির্মাণের কাজ শুরু করে। পাইলট পর্বটি শিউরিংয়ের লেখার এক বছর পর চিত্রায়িত হয় এবং এরও পাঁচ মাস পড়ে সিরিয়াল চিত্রায়নের কাজ শুরু হয়।

অভিনেতা-অভিনেত্রী নির্বাচন[সম্পাদনা]

প্রিমিয়ারে মোট আটটি প্রধান চরিত্র ছিল যাদের বিল মূল তারকা হিসেবে দেয়া হয়েছে। নির্মাণকাজ শুরু হওয়ার মাত্র কয়েক সপ্তাহ পূর্বে মূল চরিত্র তথা মাইকেল স্কোফিল্ডের চরিত্রের জন্য অভিনেতা নির্ধারণ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। পল শিউরিং এই চরিত্রের জন্য যাদের সাক্ষাৎকার নেন তাদের অধিকাংশকেই এভাবে বর্ণনা করেন: "বেশ রহস্যময় হিসেবে অভিনয় করছিল, কিন্তু তা ছিল অনেকটাই মেকি"। নির্মাণ শুরুর মাত্র এক সপ্তাহ আগে ওয়েন্টওয়ার্থ মিলার অডিশনে অংশ নেন এবং শিউরিংকে সন্তুষ্ট করতে সক্ষম হন। সেদিনই তাকে মনোনীত করা হয়।

ডোমিনিক পারসেলকে নির্মাণকাজ শুরুর তিন দিন আগে মনোনীত করা হয়। তিনিই ছিলেন সিরিয়ালের জন্য মনোনীত সর্বশেষ অভিনেতা। পারসেল লিংকন বারোজ চরিত্রের জন্য অডিশন করেন। একই সময় তিনি নর্থ শোর নামক চলচ্চিত্রে টমি র‌্যাভেটো চরিত্রে অভিনয় করছিলেন। জন ডোতে কাজ করার সময় থেকেই পারসেলের সাথে ফক্স নেটওয়ার্কের সুসম্পর্ক ছিল। এ হিসেবেই তার কাছে প্রিজন ব্রেকের পাইলট স্ক্রিপ্ট পাঠানো হয়। অডিশনের দিন তার বিশেষভাবে স্টাইল করা চুল দেখে শিউরিং খুব একটা পছন্দ করতে পারেননি। অবশ্য তিনি এই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য মনোনীত হন। প্রথম দিন সেটে আসার সময় পারসেল মাথা ন্যাড়া করে উপস্থিত হন। সিরিয়ালের মূল দুটি চরিত্রের অভিনেতার সাদৃশ্য দেখে শিউরিং তখন পারসেলকে বেশ পছন্দ করে ফেলেন।

পাইলট পাণ্ডুলিপিটি হাতে পাওয়ার পর পুয়ের্তো রিকান অভিনেতা আমাউরি নোলাস্কি ভেবেছিলেন ফক্স নেটওয়ার্ক হয়ত এর নির্মাণকাজে অতটা উৎসাহী হবেনা। কারণ তখন একই সাথে আরও অনেক সিরিয়ালের নির্মাণ শুরু হচ্ছিল যার অনেকগুলোই পরবর্তিতে খুব একটি টিকে যেতে পারেনি। প্রথমে তিনি পাণ্ডুলিপিটি পড়তে চাননি। কিন্তু শুরু করার পর তিনি বুঝতে পারেন শেষ না করে উঠা সম্ভব নয়। অডিশনে অংশ নেন এবং পল শিউরিং যখন বলেন তাকেই তিনি সবচেয়ে পছন্দ করেছেন তখন তার উদ্বেগ আরও বেড়ে যায়। অবশেষে তাকে মনোনীত করা হয়।

এই পাণ্ডুলিপি পড়ার পর ওয়েড উইলিয়াম্‌স মোটেই এই চরিত্রটি নিতে চাননি। কারণ দর্শক মাত্রেই বুঝবেন ব্রাড বেলাক চরিত্রটি কতখানি গ্লানিকর। তিনি হয়তো চার বছর বয়সী এক ছোট্ট মেয়ের বাবার চরিত্রে অভিনয় করার ব্যাপারেই বেশি আগ্রহী ছিলেন। কিন্তু তার ম্যানেজারের অনুরোধে তিনি এই চরিত্রের জন্য অডিশনে অংশ নেন। তাকে মনোনীত করা হয়। সিরিয়ালে কার অভিনয় দেখে অনেকেই উচ্ছসিত প্রশংসা করেছেন।

সারাহ ওয়েইন ক্যালিস সারা টানক্রেডি চরিত্রের জন্য অডিশনে আসা অভিনেত্রীদের মধ্যে সর্বপ্রথম ছিলেন। প্রথমেই তিনি শিউরিংয়ের চোখে পড়ে যান এবং সিরিয়ালের প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের জন্য মনোনীত প্রথম শিল্পী হিসেবে মনোনয়ন লাভ করেন। অবশ্য অডিশনের পরপরই তিনি মনোনয়নের ব্যাপারটি জানতে পারেননি। অডিশন শেষে পার্কিং লটে তার গাড়ির কাছে গিয়ে বুঝতে পারেন তালা দেয়া হলেও চাবি নিতে ভুলে গেছেন, চাবি ভিতরেই রয়ে গেছে। আমেরিকান অটোমোবাইল অ্যাসোসিয়েশনের সহযোগিতার জন্য যখন অপেক্ষা করছিলেন তখনউ কল আসে, নিজের এজেন্টের কাছ থেকে জানতে পারেন মনোনয়নের বিষয়টি। অন্যান্য প্রধান চরিত্রের মনোনয়ন পান রবিন টুনে, মার্শাল আলম্যান এবং পিটার স্টরমেয়ার যাদের চরিত্র ছিল যথাক্রমে ভেরোনিকা ডোনোভান, এল জে বারোজ এবং জন আব্রুজ্জি

সুর[সম্পাদনা]

কাহিনী[সম্পাদনা]

চরিত্র[সম্পাদনা]

মাইকেল স্কোফিল্ড
লিংকন বারোজ

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

নেটওয়ার্ক সাইটসমূহ
অন্যান্য সাইটসমূহ