ধ্রুপদী অর্থনীতি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

অ্যাডাম স্মিথ, ডেভিড রিকার্ডো থেকে শুরু করে ১৯৩৬ সালে Keynes The General Theory প্রকাশের পূর্ব প্রর্যন্ত বিস্তৃত সময়ে বিভিন্ন অর্থনীতিবিদ গনের দেওয়া আয় ও নিয়োগ স্নংক্রান্ত মতবাদের সংমিলিত রূপ কে একত্রে ক্ল্যাসিক্ল্যল মডেল বলে । মূল বক্ত্যবঃ ক্ল্যাসিক্ল্যল অর্থনীতিবিদের মতে সামষ্টিক অর্থনীতির ভারসাম্য সব সময় পূর্ণ নিয়োগ প্রর্যায়ে স্থির থাকবে এবং Say’s এর The Quantity Theory Of Money মূল বক্তব্য সত্য হবে ।তারা মনে করেন দ্রব্য ও সামগ্রিক সেবা ও মোট চাহিদা(AD) তুলনায় কম হতে পারে না ।Say’s বলেছেন যোগান নিজেই তার স মপ রিমান চাহিদা সৃস্টি করে (Supply Creates It’s Own Demand )তাই অর্থনীতিতে সামগ্রিক যোগান সমান হয় সামগ্রিক চাহিদা (AS = AD) ।সাময়িক ভাবে AS=AD নাও হতে পারে তবে দীর্ঘকালে AS=AD হতে পারে তখন পূর্ণ নিয়োগ বিচ্ছুতি কোন সম্ভাবনা নেই । অনুমতি শর্তঃ ১)হ্রাসক্রত মজুরিতে শ্রমিকরা কাজ করতে ইচ্ছুক । ২)অর্থ শুধু মাত্র বিনিময়ের মাধ্যম হিসেবে কাজ করে । ৩)ব্যক্তি তন্ত্রবাদ ও পূর্ণ প্রতিযোগিতা বিদ্যমান । ৪)I=S শর্ত সাপেক্ষে সুদের হার নির্ধারিত এবং সুদের হারের ভূমিকা গৌন । উপরের অনুমিত শর্তের ভিত্তিতে ক্ল্যসিকাল মডেল উপাস্থাপনা কালে তিনটি বাজার ব্যবস্থা লক্ষ্য করা যায়। ১)শ্রম বাজার ২)অর্থবাজার ৩)উৎপাদন বাজার শ্রম বাজার ও অর্থ বাজারের সাথে উৎপাদন বাজার সমন্বয় ঘটিয়ে পূর্ণাঙ্গ ক্ল্যাসিক্যাল মডেল পাওয়া যায় । যার বিশ্লেষন দেওয়া হল । ১)শ্রম বাজারঃ ক্ল্যাসিক্যাল অর্থনীতিবিদের মতে শ্রমের চাহিদা ও যোগান প্রকৃত মজুরির উপর নির্ভরশীল তবে প্রকৃত মজুরির সাথে শ্রমের যোগানের সম্পর্ক ধনাত্নক তাই শ্রমের যোগান রেখা ডান দিকে নিম্মগামী ।অন্যদিকে প্রকৃত মজুরির সাথে শ্রমের যোগান রেখা ডানদিকে ঊর্ধগামী হয় ।