জুডাস প্রিস্ট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জুডাস প্রিস্ট

জুডাস প্রিস্ট (ইংরেজি: Judas Priest) ১৯৬৮ সালে ইংল্যান্ডের বাকিংহামে জন্ম নেওয়া একটি হেভি মেটাল ব্যান্ড। জুডাস প্রিস্টের মূল লাইন আপ ছিল ভোকালে রব হেলফোর্ড, গিটারিস্ট গ্লেন টিপ্টন ও কে.কে. ডাউনিং এবং বেজিস্ট ইয়ান হিল। ব্যান্ডটির ড্রামার সবসময়ই পরিবর্তিত হচ্ছিল। তারা অনেক হেভি মেটাল ব্যান্ড ও মিউজিশিয়ানের অনুপ্রেরণার উৎস হিসেবে কাজ করেছে। তাদের জনপ্রিয়তা ও অবস্থান তাদের মেটাল গড ডাক নাম এনে দিয়েছে। তাদের এ পর্যন্ত ৩৫ মিলিয়ন অ্যালবাম বিক্রি হয়েছে। ১৯৯০ সালে জুডাস প্রিস্ট ব্যান্ডের ওপর দু’জনকে খুনের অভিযোগ আনা হয়। ১৯৮৫ সালে ২০ বছর বয়সী জেমস ভান্স ও ১৮ বছর বয়সী রেমন্ড ব্যালকন্যাপ এক ঘণ্টা ধরে বিয়ার পান করে, মারিজুয়ানা গ্রহণ করে এবং জুডাস প্রিস্টের গান শুনে একটা চার্চে যেয়ে শটগানের সাহায্যে আত্নহত্যা করে। ১৯৯০ সালের ২৪শে আগস্ট মামলাটা বাতিল হয়ে যায়। এমটিভি জুডাস প্রিস্টকে ব্ল্যাক সাবাথের পর হেভি মেটালের ক্ষেত্রে ২য় গুরুত্বপূর্ণ ব্যান্ড বলে মনে করে। স্লেয়ার ব্যান্ড তাদের ভক্তি প্রকাশ করে ডিসিডেন্ট আগ্রেসর গানটি কাভার করার মাধ্যমে। হেভি মেটাল ফ্যাশনের ক্ষেত্রেও জুডাস প্রিস্ট অগ্রণী ভূমিকা পালন করে।

বর্তমান সদস্য[সম্পাদনা]

  • রব হেলফোর্ড
  • গ্লেন টিপ্টন
  • কে .কে. ডাউনিং
  • ইয়ান হিল
  • স্কট ট্রাভিস

ডিস্কোগ্রাফি[সম্পাদনা]

  • রকা রোলা(১৯৭৪)
  • স্যাড উইংস অব ডেস্টিনি(১৯৭৬)
  • সিন আফটার সিন(১৯৭৭)
  • স্টেইন্ড ক্লাস(১৯৭৮)
  • কিলিং মেসিন(১৯৭৮)
  • ব্রিটিশ স্টীল(১৯৮০)
  • পয়েন্ট অব এন্ট্রি(১৯৮১)
  • স্ক্রিমিং ফর ভেনজ্যান্স(১৯৮২)
  • ডিফেন্ডারস অব দ্যা ফেইথ(১৯৮৪)
  • টারবো(১৯৮৬)
  • রাম ইট ডাউন(১৯৮৮)
  • পেইন কিলার(১৯৯০)
  • জুগুলেটর(১৯৯৭)
  • ডিমোলিশন(২০০১)
  • এ্যাঞ্জেল অব রিট্রিবিশন(২০০৫)
  • নস্ট্রাডামুস(২০০৮)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]