চাতুল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

চাতুল
Monkey puzzle
Close wing position of Rathinda amor, Fabricius,1775 – Monkey Puzzle WLB.jpg
ডানা বন্ধ অবস্থায়
Open wing posture bsking of Rathinda amor Fabricius, 1775 – Monkey Puzzle WLB DSC 9221.jpg
ডানা খোলা অবস্থায়
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: Arthropoda
শ্রেণী: Insecta
বর্গ: Lepidoptera
পরিবার: Lycaenidae
গণ: Rathinda
Moore, [1881]
প্রজাতি: R. amor
দ্বিপদী নাম
Rathinda amor
(Fabricius, 1775)

চাতুল (বৈজ্ঞানিক নাম: Rathinda amor (Fabricius))[১] এক প্রজাতির ছোট আকারের প্রজাপতি যার শরীর ও ডানা ময়লা সাদা বর্ণের এবং ডানার উপর খয়েরি আলপনা আঁকা থাকে। এদের তিনটি অসমান আকৃতির লেজ দেখা যায়। এরা ‘লাইসিনিডি’ গোত্রের এবং 'থেকলিনি' উপগোত্রের সদস্য।[২]

আকার[সম্পাদনা]

চাতুলের প্রসারিত অবস্থায় ডানার আকার ২৬-২৮মিলিমিটার দৈর্ঘ্যের হয়।[৩]

বিস্তার[সম্পাদনা]

উইন্টার-ব্লাইদ লিখেছেন প্রজাপতিটি কলকাতা এবং তার আশেপাশের অঞ্চলে অত্যন্ত সুলভ।[২] ওড়িশা, ভারতের দক্ষিণাংশ,[৪] পূর্বঘাট পর্বতমালার দৈর্ঘ্য বরাবর দেখা যায়। এছাড়া অসম, সিকিম এর ৩০০০ ফুট উচ্চতা অবধি এদের দেখা যায়।[৫]

বর্ণনা[সম্পাদনা]

প্রজাপতির দেহাংশের পরিচয় বিষদ জানার জন্য প্রজাপতির দেহ এবং ডানার অংশের নির্দেশিকা দেখুন:-

চাতুলের পিছনের ডানার বেস এর বর্ন ময়লা সাদা থেকে খয়েরি হলুদ মেশানো। তার উপর খয়েরি এবং কমলা রঙের নানা আকৃতির নকশা কাটা থাকে যার যথাযত বর্ণনা দেওয়া দুষ্কর। নানা আকৃতিগুলি লম্বাটে বিন্দু এবং খাঁজকাটা রেখা দিয়ে তৈরী। সামনের ডানার নিচের পিঠের আঁচলে একটি সাদা ব্যান্ড অথবা পটি দেখা যায়। সেখান থেকে শীর্ষ পর্যন্ত চওড়া খয়েরি রঙ বিস্তৃত। ডানার গোড়ার দিকে কমলা এবং খয়েরি রঙ এর আঁজি থাকে।[২]

ডানার ওপর পিঠ কালচে খয়েরি রঙের। সামনের ডানার আঁচলে ময়লা সাদা রঙের একটি অংশ থাকে। পিছনের ডানার ভূমিকোনে কয়েকটি ছোট লালচে কমলা বিন্দু দেখা যায় যার বাইরের দিকে কালো রঙ দিয়ে ঘেরা থাকে। ১,২ এবং ৩ নং শিরা থেকে তিনটি সুতোর মতো লেজ আছে এবং এদের দৈর্ঘ্য যথাক্রমে ২মিলিমিটার, ৬মিলিমিটার এবং ২.৫মিলিমিটার[১]

আচরণ[সম্পাদনা]

চাতুলরা মাটি থেকে ১০-১২ ফুট উচ্চতা পর্যন্ত উড়তে দেখা যায়। এদের ওড়ার ভঙ্গি দুর্বল প্রকৃতির। ওড়ার সময় ডানা যতটা এগোয় শরীরটা ততটা এগোয় না।[৩] ফুলের উপর অনেকক্ষণ ওড়ার পর থিতু হয়। সাধারণত ঝুলে পড়া পাতায় উলম্ব ভাবে বসে থাকার অভ্যাস এদের। চাতুলদের আহার্য্য উদ্ভিদের আশেপাশেই বেশি দেখা যায়।[২][৩] ভিজে মাটিতে এদের প্রায় দেখাই যায় না।[৬]

বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

ডিম[সম্পাদনা]

চাতুল এর ডিম ফ্যাকাশে নীল অথবা প্রায় সাদা বর্ণের। রঙ্গন গাছে ফুলের কুঁড়ির খাঁজে ডিম পাড়তে দেখা যায়। ডিম পাড়ার আগে স্ত্রী চাতুল গাছটিকে বহুক্ষণ ধরে পর্যবেক্ষন করতে থাকে। এরা সাধারনত বিভিন্ন পাতায় ৭-৯টি ডিম পাড়ে।

শূককীট[সম্পাদনা]

শূককীট সবুজ বর্নের আবার কোথাও লালচে রঙের আভা দেখা যায়। শূককীট এর পিঠের উপর অনেকগুলি বিভিন্ন দৈর্ঘ্যের মাংশল কাঁটা থাকে ।

আহার্য উদ্ভিদ[সম্পাদনা]

এই শূককীট Rubiaceae গোত্রের রঙ্গন Ixora coccinea,Ixora singaporensis,Ixora arborea[৭] এছাড়া Dipterocarpeae, Euphorbiaceae, Loranthaceae, Sapindaceae এবং Myrtaceae[২] গোত্রের বিভিন্ন গাছের কচি পাতার রসালো অংশ আহার করে।[৮]

মূককীট[সম্পাদনা]

মূককীট সবুজ বর্নের হয়। এদের উদর অংশের অপর পিঠ নীলচে গোলাপি রঙের হয়। ধীরে ধীরে এই রঙ খয়েরি রংগে পরিনত হয়। শরীরের পিছন দিক ডালে সংযুক্ত থাকে।

জীবনচক্রের চিত্রশালা[সম্পাদনা]

চিত্রশালা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Dāśagupta, Yudhājit̲̲̲̲̲̲a (২০০৬)। Paścimabaṅgera prajāpati (1. saṃskaraṇa. সংস্করণ)। Kalakātā: Ānanda। পৃষ্ঠা 150। আইএসবিএন 81-7756-558-3 
  2. Wynter-Blyth, M.A. (১৯৫৭)। Butterflies of the Indian region (First Edition সংস্করণ)। Bombay: The Bombay Natural History Society। পৃষ্ঠা 349-350। 
  3. A Pictorial Guide Butterflies of Gorumara National Park (2013 সংস্করণ)। Department of Forests Government of West Bengal। পৃষ্ঠা 102। 
  4. P Patwardhan, Amol। "Butterflies of Sanjay Gandhi National Park, Mumbai, Maharashtra, India" (PDF)। National Cave Research and Protection Organization। পৃষ্ঠা 1-15। আইএসএসএন 2348-5191। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০১৭ 
  5. "Rathinda Moore, [1881]" at Markku Savela's Lepidoptera and Some Other Life Forms
  6. বসু রায়, অর্জন; বৈদ্য, সারিকা; রায়, লিপিকা। সুন্দরবনের কিছু পরিচিত প্রজাপতি (মার্চ ২০১৪ সংস্করণ)। সুন্দরবন জীবপরিমণ্ডল,Department of Forest Government of West Bengal। পৃষ্ঠা ৬৪। 
  7. ATLURI, J. B.। "HOST PLANT UTILIZATION BY BUTTERFLIES AT VISAKHAPATNAM" (PDF)। The Bio Scan। পৃষ্ঠা 85-90। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০১৭ 
  8. Kalesh, S & S K Prakash (২০০৭)। "Additions of the larval host plants of butterflies of the Western Ghats, Kerala, Southern India (Rhopalocera, Lepidoptera): Part 1"। Journal of the Bombay Natural History Society104 (2): 235–238।