গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
দ্যা গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ
কুইন্সল্যান্ডের উপকূলে অবস্থিত গ্রেট ব্যারিয়ার রিফের চিত্র।
ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান
অবস্থান অস্ট্রেলিয়া উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন[১][২]
আয়তন [রূপান্তর: অকার্যকর সংখ্যা] [২]
মানদণ্ড vii, viii, ix, x[৩]
তথ্যসূত্র 154
স্থানাঙ্ক ১৮°১৭′১০″ দক্ষিণ ১৪৭°৪২′০০″ পূর্ব / ১৮.২৮৬১১১১১১১১১° দক্ষিণ ১৪৭.৭° পূর্ব / -18.286111111111; 147.7
শিলালিপির ইতিহাস 1981 (5th সভা)
ওয়েবসাইট www.gbrmpa.gov.au
স্যাটেলাইট থেকে তোলা গ্রেট ব্যারিয়ার রীফের ছবি

গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ হচ্ছে পৃথিবীর দীর্ঘতম প্রবাল রিফ[৪][৫] যা ২,৯০০ এর বেশি একক রিফের সমন্বয়ে গঠিত।[৬][৭]রিফটি অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড রাজ্যের উপকূল ঘেঁষা কোরাল সাগরে অবস্থিত।মহাশূন্য থেকে পৃথিবীর যে কয়েকটি বস্তু দৃশ্যমান তার মধ্যে গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ অন্যতম।[৮] প্রবাল, পলিপস ইত্যাদি কোটি কোটি ক্ষুদ্র অর্গানিজমস দ্বারা এই রিফ কাঠামো গঠিত।[৯] এখানে অনেক প্রানের অস্তিত্ব আছে, ১৯৮১ সালে এটাকে বিশ্ব হেরিটেজ সাইটে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[৪][৫] সিএনএন এই প্রবাল প্রাচীরকে পৃথিবীর প্রাকৃতিক সপ্তাচার্য্যের একটি বলে ঘোষণা করে।[১০] কুইন্সল্যান্ড ন্যাশনাল ট্রাস্ট এই রিফকে কুইন্সল্যান্ড রাজ্যের প্রতীক হিসেবে ঘোষণা করে।[১১]

তথ্য উৎস[সম্পাদনা]

  1. http://www.greatbarrierreef.org/about-the-reef/.
  2. http://data.gov.au/dataset/2016-soe-her-aus-national-heritage; সংগ্রহের তারিখ: 21 জুলাই 2017; প্রকাশনার তারিখ: 7 জুন 2017.
  3. http://whc.unesco.org/en/list/154.
  4. UNEP World Conservation Monitoring Centre (১৯৮০)। "Protected Areas and World Heritage – Great Barrier Reef World Heritage Area"Department of the Environment and Heritage। ১১ মে ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মার্চ ২০০৯ 
  5. "The Great Barrier Reef World Heritage Values"। সংগ্রহের তারিখ ৩ সেপ্টেম্বর ২০০৮ 
  6. Fodor's। "Great Barrier Reef Travel Guide"। সংগ্রহের তারিখ ৮ আগস্ট ২০০৬ 
  7. Department of the Environment and Heritage। "Review of the Great Barrier Reef Marine Park Act 1975"। ১৮ অক্টোবর ২০০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ নভেম্বর ২০০৬ 
  8. Sarah Belfield (৮ ফেব্রুয়ারি ২০০২)। "Great Barrier Reef: no buried treasure"। Geoscience Australia (Australian Government)। ১ অক্টোবর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুন ২০০৭ 
  9. Sharon Guynup (৪ সেপ্টেম্বর ২০০০)। "Australia's Great Barrier Reef"Science World। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুন ২০০৭ 
  10. CNN (১৯৯৭)। "The Seven Natural Wonders of the World"। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০০৬  [অকার্যকর সংযোগ]
  11. National Trust Queensland। "Queensland Icons"। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০০৬ 

বইয়ে পড়ুন[সম্পাদনা]

বিস্তারিত পাঠ[সম্পাদনা]

  • Bell, Peter (১৯৯৮)। AIMS: The First Twenty-five Years। Townsville: Australian Institute of Marine Science। আইএসবিএন 978-0-642-32212-8 
  • Bowen, James; Bowen, Margarita (২০০২)। The Great Barrier Reef : history, science, heritage। Cambridge : Cambridge University Press। আইএসবিএন 0-521-82430-3 
  • Done, T.J. (১৯৮২)। "Patterns in the distribution of coral communities across the central Great Barrier Reef"। Coral Reefs1 (2): 95–107। doi:10.1007/BF00301691 
  • "Research Publications"Great Barrier Reef Marine Park Authority  [অকার্যকর সংযোগ]
  • Hutchings, Pat; Kingsford, Mike; Hoegh-Guldberg, Ove (২০০৮)। The Great Barrier Reef: Biology, Environment and Management। CSIRO Publishing। আইএসবিএন 978-0-643-09557-1 
  • Lucas, P.H.C.; ও অন্যান্য (১৯৯৭)। The outstanding universal value of the Great Barrier Reef World Heritage Area। Great Barrier Reef Marine Park Authority। আইএসবিএন 0-642-23028-5 
  • Mather, P.; Bennett, I., সম্পাদক (১৯৯৩)। A Coral Reef Handbook: A Guide to the Geology, Flora and Fauna of the Great Barrier Reef (3rd সংস্করণ)। Chipping North: Surrey Beatty & Sons Pty Ltd। আইএসবিএন 0-949324-47-7 

বহি:সংযোগ[সম্পাদনা]

উইকিমিডিয়া কমন্সে গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ সম্পর্কিত মিডিয়া দেখুন

স্থানাঙ্ক: ১৮°১৭′১০″ দক্ষিণ ১৪৭°৪২′০০″ পূর্ব / ১৮.২৮৬১১° দক্ষিণ ১৪৭.৭০০০০° পূর্ব / -18.28611; 147.70000