ক্রিয়ার কাল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

ক্রিয়ার যে রূপের দ্বারা ক্রিয়া ঘটার বিভিন্ন সময় বোঝায়, সেই সময়কে ক্রিয়ার কাল বলা হয়।

ক্রিয়ার কাল তিন প্রকার।

  1. বর্তমান কাল
  2. অতীত কাল
  3. ভবিষ্যৎ কাল

বর্তমান কাল[সম্পাদনা]

ক্রিয়ার যে রূপের দ্বারা ক্রিয়া এখন ঘটছে বোঝায় সেই সময়কে বর্তমান কাল বলে । বর্তমান কালকে চার ভাগে ভাগ করা হয়।

সাধারণ বর্তমান[সম্পাদনা]

যে ক্রিয়ার কাজটি বর্তমানে সাধারণভাবে ঘটে বা হয়, তাকে সাধারণ বর্তমান বা নিত্যবৃত্ত বর্তমান কাল বলা হয়। যেমন :

  • সকালে সূর্য ওঠে।
  • দুই আর দুইয়ে চার হয়।

ঘটমান বর্তমান[সম্পাদনা]

যে ক্রিয়ার কাজ বর্তমানে ঘটছে বা চলছে, এখনো শেষ হয়ে যায়নি, তাকে ঘটমান বর্তমান কাল বলা হয়। যেমন:

  • আমার ছোট ভাই লিখছে।
  • ছেলেরা এখনো ফুটবল খেলছে।

পুরাঘটিত বর্তমান[সম্পাদনা]

যে ক্রিয়া কিছু আগে শেষ হয়েছে কিন্তু তার ফল এখনো রয়েছে, তাকে পুরাঘটিত বর্তমান কাল বলা হয়। যেমন:

  • এখন বাবা অফিস থেকে ফিরেছেন।
  • এবার মা খেতে ডেকেছেন।

বর্তমান অনুজ্ঞা[সম্পাদনা]

যখন কাওকে কিছু করতে বলা হয় যেমন অনুরোধ বা আদেশ করা, তখন বর্তমান কালের সেই অবস্থাকে বর্তমান অনুজ্ঞা বলা হয়। যেমন:

  • আমার প্রণাম নিও।
  • তেঁতুলের আঁচারটা দাও।

অতীত কাল[সম্পাদনা]

ক্রিয়ার যে রূপের দ্বারা ক্রিয়া পূর্বে কোন এক সময় সংঘটিত হয়েছে, সেই সময়কে অতীত কাল বলে ।

অতীত কালকে চার ভাগে ভাগ করা।

সাধারণ অতীত[সম্পাদনা]

যে ক্রিয়া অতীত কালে সাধারণভাবে সংঘটিত হয়েছে, তাকে সাধারণ অতীত কাল বলা হয়। যেমন :

  • তিনি খুলনা থেকে এলেন।
  • আমি খেলা দেখে এলাম।

নিত্যবৃত্ত অতীত[সম্পাদনা]

যে ক্রিয়া অতীতে প্রায়ই ঘটত এমন বোঝায়, তাকে নিত্যবৃত্ত অতীত কাল বলা হয়। যেমন :

  • বাবা প্রতিদিন বাজার করতেন।
  • ছুটিতে প্রতিবছর গ্রামের বাড়িতে বেড়াতে যেতাম।

ঘটমান অতীত[সম্পাদনা]

যে ক্রিয়া অতীত কালে চলেছিল, তখনো শেষ হয়নি বোঝায়, তাকে ঘটমান অতীত কাল বলা হয়। যেমন:

  • রিতা ঘুমাচ্ছিল।
  • সুমন বই পড়ছিল।

পুরাঘটিত অতীত[সম্পাদনা]

যে ক্রিয়া অনেক আগেই শেষ হয়ে গেছে, তার কালকে পুরাঘটিত অতীত কাল বলা হয়। যেমন:

  • আমরা রাজশাহী গিয়েছিলাম।
  • তুমি কি তার পরীক্ষা নিয়েছিলে?

ভবিষ্যৎ কাল[সম্পাদনা]

ক্রিয়ার যে রূপের দ্বারা ক্রিয়া ভবিষ্যতে কোন একসময় ঘটবে সেই সময়কে ভবিষ্যৎ কাল বলা হয়।

সাধারণ ভবিষ্যৎ[সম্পাদনা]

যে ক্রিয়া পরে বা ভবিষ্যতে সাধারণভাবে সংঘটিত হবে, তার কালকে সাধারণ ভবিষ্যৎ কাল বলা হয়। যেমন-

  • বাবা আজ আসবেন।
  • আমি হব সকালবেলার পাখি।

ঘটমান ভবিষ্যৎ[সম্পাদনা]

যে ক্রিয়ার কাজ ভবিষ্যতে শুরু হয়ে চলতে থাকবে, তার কালকে ঘটমান ভবিষ্যৎ কাল বলা হয়। যেমন:

  • সুমন হয়তো তখন দেখতে থাকবে।
  • মনীষা দৌড়াতে থাকবে।

পুরাঘটিত ভবিষ্যৎ[সম্পাদনা]

যে ক্রিয়া সম্ভবত ঘটে গিয়েছে এবং সেটি বোঝাতে সাধারণ ভবিষ্যৎ কালবোধক শব্দ ব্যবহার করা হয়, এমন হলে তার কালকে পুরাঘটিত ভবিষ্যৎ কাল বলা হয়। অনেকে একে "সন্দেহ অতীত"ও বলে থাকেন। যেমন:

  • তুমি হয়তো আমাকে এ কথা বলে থাকবে।
  • সম্ভবত পরীক্ষার ফল বের হয়ে থাকবে।

ভবিষ্যৎ অনুজ্ঞা[সম্পাদনা]

যখন কোনও আদেশ, অনুরোধ বা প্রার্থনা ভবিষ্যতের জন্য করা হয় তখন তাকে ভবিষ্যৎ অনুজ্ঞা বলা হয়। যেমন:

  • আগামীকাল আমার বাড়ি আসিস কিন্তু।
  • কাজটা করে যেও।