কোলা সুপারডিপ বোরহোল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

স্থানাঙ্ক: ৬৯°২৩′৪৬.৩৯″ উত্তর ৩০°৩৬′৩১.২০″ পূর্ব / ৬৯.৩৯৬২১৯৪° উত্তর ৩০.৬০৮৬৬৬৭° পূর্ব / 69.3962194; 30.6086667

কোলা সুপারডিপ বোরহোল, ২০০৭

কোলা সুপারডিপ বোরহোল (রুশ: Кольская сверхглубокая скважина, Kolskaya sverkhglubokaya skvazhina) হল সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের একটি বৈজ্ঞানিক খনন প্রকল্পের নাম। এই খননকাজটি করা হয়েছিল বর্তমান রাশিয়ার পেচেংস্কি জেলার কোলা উপদ্বীপে। খননকাজ প্রকল্পটির উদ্দেশ্য ছিল কৃত্রিমভাবে পৃথিবীর কেন্দ্রের দিকে যতদূর সম্ভব হয় খনন করা। ১৯৭০ সালের ২৪শে মে প্রথমে উরালমাস-৪ই ড্রিলিং রিগ ব্যবহার করে খনন কাজটি শুরু করা হয়েছিল, পরবর্তিতে উরালমাস-১৫০০০ সিরিজের রিগ ব্যবহার করা হয়েছিল। কেন্দ্রীয় বোরহোল থেকে কয়েকটি শাখা বোরহোলও খনন করা হয়েছিল কাজের সুবিধার্থে। গভীরতম এসজি-৩ প্রকল্পটি ১৯৮৯ সালে ১২,২৬২ মিটার (৪০,২৩০ ফুট) গভীরতায় পৌঁছায় এবং এখনও পর্যন্ত এটিই পৃথিবীতে মানুষের তৈরি সবচেয়ে গভীর কৃত্রিম পয়েন্ট।[১]

দুই দশক ধরে গভীরতার পরিমাপে এবং বোরের বিচারে এটিই ছিল পৃথিবীর সবচেয়ে বড় বোরহোল, কিন্তু ২০০৮ সালে কাতারের আল শাহীন তেল খনির গভীরতা পরিমাপ করা হয় ১২,২৮৯-মিটার-দৈর্ঘ্য (৪০,৩১৮ ফু) এবং ২০১১ সালে রাশিয়ার শাখালিন দ্বীপের উপকূলবর্তী শাখালিন-আই ওডোপ্টু ওপি-১১ এর দৈর্ঘ্য পরিমাপ করা হয় ১২,৩৪৫-মিটার (৪০,৫০২ ফু)।[২]

ড্রিলিং[সম্পাদনা]

কোলা সুপারডিপ বোরহোল, ১৯৮৭-এর ইউএসএসআর স্মারকলিপি স্ট্যাম্প।

খননের প্রধান টার্গেট ধরা হয়েছিল ১৫,০০০ মি (৪৯,০০০ ফু)। ১৯৭৯ সালের ৬ই জুন ৯,৫৮৩ মি (৩১,৪৪০ ফু) গভীরতার বিশ্ব রেকর্ডটি ভেঙে যায়। রেকর্ডটি ছিল যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশহিতা কাউন্টির বের্থা রোজার হোল-এর।[৩] ১৯৮৩ সালে খনন কাজটি ১২,০০০ মি (৩৯,০০০ ফু) গভীরতায় পৌঁছায় এবং তখন ঘটনাটি উদ্‌যাপনের জন্য এক বছরের জন্য খনন বন্ধ রাখা হয়েছিল।[৪] এই অলস সময়টি ২৭শে সেপ্টেম্বর ১৯৮৪ সালে ১২,০৬৬ মি (৩৯,৫৮৭ ফু) খননের মাধ্যমে ভাঙার চেষ্টা করা হয়েছিল, কিন্তু হঠাৎ করেই ৫,০০০ মি (১৬,০০০ ফু) সেকশনের ড্রিলিং স্ট্রিংটি কূপের মধ্যে পড়ে যায় এবং এটি কূপের রাস্তা বন্ধ করে দেয়। পরবর্তিতে ৭,০০০ মি (২৩,০০০ ফু) গভীরতা থেকে পুনরায় খনন শুরু করা হয়েছিল।[৪]

১৯৮৯ সালে গর্তটি ১২,২৬২ মি (৪০,২৩০ ফু) গভীর পর্যন্ত পৌঁছায়। একই বছরে ধারণা করা হয়েছিল গর্তের গভীরতা ১৯৯০ সাল নাগাদ ১৩,৫০০ মি (৪৪,৩০০ ফু)-এ এবং ১৯৯৩ সাল নাগাদ ১৫,০০০ মি (৪৯,০০০ ফু)-এ পৌঁছাবে।[৫][৬] যাইহোক, এরকম গভীরতায় সাধারণ ধারনা ১০০ °সে (২১২ °ফা) তাপমাত্রার চেয়ে বেশি ১৮০ °সে (৩৫৬ °ফা) তাপমাত্রা থাকায় খনন কাজ চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি এবং ১৯৯২ সালে খনন কাজটি বন্ধ হয়ে যায়।[৪] প্রকল্পটি যদি চালিয়ে যাওয়া যেত তাহলে ১৫,০০০ মি (৪৯,০০০ ফু) পর্যন্ত খনন করতে ৩০০ °সে (৫৭০ °ফা) তাপমাত্রার সাথে মোকাবিলা করতে হত যেখানে ড্রিলিং বিটই আসলে কোন কাজে আসবে না।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Kola Superdeep Borehole (KSDB)"ICDP। ১ ফেব্রুয়ারি ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ এপ্রিল ২০০৯ 
  2. Sakhalin-1 Project Drills World's Longest Extended-Reach Well
  3. "The KTB Borehole—Germany's Superdeep Telescope into the Earth's Crust" (PDF)Oilfield Review। সংগ্রহের তারিখ ৮ এপ্রিল ২০০৯ 
  4. A. Osadchy (no. 5, 2002)। "Legendary Kola Superdeep"Наука и жизнь (Journal of Science and Life) (Russian ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ 8 April 2009  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |date= (সাহায্য)
  5. Kola Superdeep is in the Guinness Book of World Records, Zemlya i Vselennaya, 1989, no. 3, p.9 (রুশ)
  6. Cassino, Adam (২০০৩)। "Depth of the Deepest Drilling"The Physics Factbook 

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Fuchs, K. (১৯৯০)। Super-Deep Continental Drilling and Deep Geophysical Sounding। Berlin: Springer Verlag। পৃষ্ঠা 436। আইএসবিএন 978-0-387-51609-7  অজানা প্যারামিটার |coauthors= উপেক্ষা করা হয়েছে (|author= ব্যবহারের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে) (সাহায্য)
  • Kozlovsky, Ye.A (১৯৮৭)। The Superdeep Well of the Kola Peninsula। Berlin: Springer Verlag। পৃষ্ঠা 558। আইএসবিএন 978-3-540-16416-6 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]