কেনিয়া এয়ারওয়েজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কেনিয়া এয়ারওয়েজ
Kenya Airways Logo.svg
আইএটিএ আইসিএও কলসাইন
KQ[১] KQA[১] KENYA
প্রতিষ্ঠাকাল২২ জানুয়ারি ১৯৭৭; ৪২ বছর আগে (1977-01-22)
কার্যক্রম শুরু৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৭ (1977-02-04)
হাবসমূহ
নিয়মানুযায়ী উড়ান পরিকল্পনাফ্লাইং ব্লু
এয়ারপোর্ট লাউঞ্জ
  • জেভি লাউঞ্জ
  • সিম্বা লাউঞ্জ
এলায়েন্সস্কাই টিম
অধীনস্ত কোম্পানি
  • আফ্রিকান কার্গো হ্যান্ডেলিং লিঃ(১০০%)
  • জাম্বোজেট (১০০%)
  • কেনিয়া এয়ারফ্রাইট হ্যান্ডেলিং লিঃ (৫১%)
বহরে বিমানের সংখ্যা৪৫
গন্তব্যসমূহ৬২[২]
কোম্পানির স্লোগান′′দ্যা প্রাইড অফ আফ্রিকা′′
প্রধান কার্যালয়এম্বাকাছি, নাইরোবি, কেনিয়া
গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি
আয়বৃদ্ধি KSh116,158 million (FY 2016)[৩]
কর ব্যতীত আয়বৃদ্ধি –KSh৪০৯৩ million (এফওয়াই ২০১৬)[৪]
নিট আয়বৃদ্ধি –KSh৩৪৭৯ million (এফওয়াই ২০১৬)[৪]
লাভবৃদ্ধি −KSh২৬০৯৯ million (এফওয়াই ২০১৬)
সম্পদহ্রাস ১৫৮৪১৫ million (এফওয়াই ২০১৬)[৪]
কর্মকর্তা৩৯৮৬
ওয়েবসাইটkenya-airways.com

কেনিয়া এয়ারওয়েজ লিমিটেড, সাধারনভাবে কেনিয়া এয়ারওয়েজ হিসাবে পরিচিত, হচ্ছে কেনিয়ার জাতীয় বিমান পরিবহনকারী সংস্থা।[৫] প্রতিষ্ঠানটি ১৯৭৭ সালে ইস্ট আ্ফ্রিকান এয়ারওয়েজ এর বিলুপ্তির পর প্রতিষ্ঠিত হয়। সংস্থাটির প্রধান কার্যালয় নাইরোবির এমবাকাসিতে,এবং এর চলাচলের প্রধান কেন্দ্রস্থল হচ্ছে জোমো কেনিয়াট্টা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর।[৬]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

কেনিয়া এয়ারওয়েজ ১৯৭৭ সালের ২২ জানুয়ারী কেনিয়া সরকারের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হয়, পূর্ব আফ্রিকান ঐক্যজোট ভেঙ্গে যাওয়ার পর এবং ইস্ট আফ্রিকান এয়ারওয়েজ(ইএএ)এর বিলুপ্তির পরে।[৭][৮] [৯] ১৯৭৭ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি,[৯] বিট্রিশ মিডল্যান্ড এয়ারওয়েজ হতে লীজ নেওয়া দুটি বোয়িং ৭০৭-৩২১এস এর মাধ্যমে প্রথম কার্যক্রম শুরু হয়, নাইরোবি-ফ্রাঙ্কফুর্ট-লন্ডন রুটে ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে।[১০] দেশের অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট এবং দেশের বাহিরে ফ্লাইট পরিচালনার ক্ষেত্রে, বিমানসংস্থাটি পূর্বের ইস্ট আফ্রিকান এয়ারওয়েজ(ইএএ)এর সদস্য থাকা অবস্থায় যে বিমানগুলো তাদের ছিল, সে বিমানগুলো ব্যবহার করেছিল। এর মধ্যে ছিল একটি ডগলাস ডিসি-৯-৫২ এবং তিনটি ফকার এফ-২৭-২০০এস।[এনবি১] এয়ারলাইনটি ১৯৭৭ সালের শেষের দিকে নর্থওয়েস্ট ওরিয়েন্ট হতে তিনটি বোয়িং ৭০৭এস বিমান নেয়। পরের বছর, বিমানসংস্থাটি একটি চার্টার সাবসিডিয়ারি গঠন করে, যার নাম দেয়া হয় কেনিয়া ফ্লেমিঙ্গো এয়ারলাইন্স, যে সাবসিডিয়ারিটি তার নিয়ন্ত্রনকারী সংস্থা কেনিয়া এয়ারওয়েজ হতে আন্তর্জাতিক যাত্রী ও মালামাল পরিবহনের জন্য বিমান লীজ নেয়। শুরুর বছরগুলোতে এয়ার লিঙ্গাস কেনিয়া এয়ারওয়েজকে কারিগরী এবং ব্যবস্থাপনা সহযোগিতা প্রদান করে থকে।

১৯৮০ সালের জুলাই মাসে, সংস্থাটিতে ২,১০০ জন কর্মী বহাল ছিল। এছাড়া সেই সময়ে বিমান সংস্থাটির অধিকারে তিনটি বোয়িং ৭০৭-৩২০বিএস, একটি ডিসি-৯-৩০ এবং তিনটি ফকার এফ-২৭-২০০এস ছিল। আন্তর্জাতিক রুটে চলাচলের পাশাপাশি কেনিয়া এয়ারওয়েজের বিমানগুলো বিভিন্ন অভ্যন্তরীণ রুটেও চলাচল করত।

কর্পোরেট বিষয়সমূহ[সম্পাদনা]

সদর দপ্তর[সম্পাদনা]

কেনিয়া এয়ারওয়েজ লিমিটেড এর সদর দপ্তর বা প্রধান কার্যালয় নাইরোবির এমবাকাসিতে অবস্থিত। ২০১৬ সালে জুলাই মাস অনুসারে বিমান সংস্থাটির চেয়ারম্যান হলেন ডেনিস আওয়রি।

গন্তব্যস্থলসমূহ[সম্পাদনা]

২০১৬ সালের জুলাই মাস অনুসারে, কেনিয়া এয়ারওয়েজর বিমানসমূহ বিশ্বের ৫৪টি গন্তব্যস্থলে যাতায়াত করে থাকে। এই ৫৪টি গন্তব্যস্থল এর মধ্যে ৪৪টি গন্তব্যস্থল আফ্রিকা মহাদেশের মধ্য। [১১]

কোড শেয়ার চুক্তি[সম্পাদনা]

২০১৫ সালের জানুয়ারী মাস অনুযায়ী নিন্মের এয়ারলাইন্সগুলোর সাথে কেনিয়া এয়ারওয়েজ এর কোড শেয়ার চুক্তি রয়েছে ।

  • এয়ার ফ্রান্স
  • এয়ার নামিবিয়া [১২]
  • চায়না ইস্টার্ন এয়ারলাইনস
  • চায়না সাউদার্ন এয়ারলাইন্স
  • ইতিহাদ এয়ারওয়েজ
  • গারুডা ইন্দোনেশিয়া
  • জেট এয়ারওয়েজ
  • কে এল এম
  • কোরিয়ান এয়ার
  • সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্স
  • ভিয়েতনাম এয়ারলাইন্স

পরিচালিত বিমানসমূহ[সম্পাদনা]

২০১৬ সালের মে মাস অনুসারে কেনিয়া এয়ারওয়েজের বিমানবহরে নিন্মের বিমানগুলো রয়েছে ।[৬]

বোয়িং ৭৩৭-৩০০(২টি), বোয়িং ৭৩৭-৭০০(৪টি), বোয়িং ৭৩৭-৮০০(৮টি), বোয়িং ৭৩৭-২০০ইআর(৪টি), বোয়িং ৭৩৭-৩০০ইআর(৩টি), বোয়িং ৭৮৭-৮(৭টি), বোয়িং ৭৩৭-৩০০এফ(২টি), এমব্রায়ার ইআরজে-১৯০(১৫টি)।

কেবিন[সম্পাদনা]

ইকোনমি ক্লাস[সম্পাদনা]

কেনিয়া এয়ারওয়েজ এর ইকোনমি ক্লাস কেবিন এর আসনগুলো আধুনিক, স্লীম লাইন এবং আরামদায়ক। প্রতিটি আসনের সাথে একটি সংযুক্ত হেডরেস্ট, পারসোনাল সিট-ব্যাক ভিডিও স্ক্রীণ রয়েছে। বিমানগুলোতে আসনগুলোর মধ্যবর্তী দূরত্ব সাধারণত ৩২ ইঞ্চি(সামনে-পিছনে)।

বিজনেস ক্লাস[সম্পাদনা]

কেনিয়া এয়ারওয়েজের বিজনেস ক্লাস বা প্রিমিয়ার ওয়ার্ল্ড ক্লাস কেবিনগুলো বিমানগুলোর সামনের অংশে অবস্থিত। বিজনেস ক্লাস এর আসনগুলো অত্যন্ত মানসম্মত এবং আরামদায়ক। আসনগুলোকে একটি বোতামের সাহায্য নিয়ে আরামদায়ক বিছানায় পরিণত করা যায়। কেবিনগুলোতে যাত্রীদের জন্য পারসোনাল টিভি স্ক্রীণ এর ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া আসনগুলোর সাথে ল্যাপটপ কিংবা অন্যান্য ডিভাইস চার্জ করার সুবিধার উদ্দেশ্যে পাওয়ার পয়েন্ট সংযুক্ত রয়েছে।

সার্ভিসসমূহ[সম্পাদনা]

ভ্রমণাবস্থায় ক্যাটারিং[সম্পাদনা]

কেনিয়া এয়ারওয়েজ এর বিমানগুলোতে যাত্রীদের জন্য সুস্বাদু এবং মানসম্মত খাবার এবং বিভিন্ন ধরনের পানীয় পরিবেশিত হয়ে থাকে ।

ভ্রমণাবস্থায় বিনোদন[সম্পাদনা]

সাধারণভাবে কেনিয়া এয়ারওয়েজের যাত্রীদের আনন্দদায়ক ভ্রমণের লক্ষ্যে বিমানগুলোতে অডিও, ভিডিও, মিউজিক অথবা গেমস ইত্যাদি বিনোদনের ব্যবস্থা রয়েছে ।

রেফারেন্স[সম্পাদনা]

  1. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Profile on Kenya Airways নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  2. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; SkyTeam Fact Sheet নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  3. "Summary Audited Group Results for the Year Ended 31 March 2016" (PDF)। Kenya Airways Limited। ২৪ জুলাই ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  4. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; এফওয়াই ২০১৬ নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  5. O'Keeffe, Niall (৭ আগস্ট ২০১৩)। "Fire closes Nairobi's Jomo Kenyatta airport"। Flightglobal। ৮ আগস্ট ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১৬Flag carrier Kenya Airways has confirmed that all flights from the airport have been cancelled until further notice. 
  6. "Kenya Airways"। SkyTeam। ১ আগস্ট ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১৬Hub airport: Jomo Kenyatta International Airport 
  7. Buyck, Cathy (১ নভেম্বর ২০১০)। "Kenya Airways' Uplifting Mission"। Air Transport World। ২ আগস্ট ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১৬ 
  8. Lacey, Marc (২৪ জুন ২০০৩)। "New Products for Sale in Africa: Company Shares"The New York Times। ১৯ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১৬ 
  9. "Kenya Airways and Ethiopian Airways compete for Nairobi and Addis hub power as Gulf carriers expand"। Centre for Aviation। ২১ জানুয়ারি ২০১৩। ২২ জানুয়ারি ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১৬ 
  10. "AFRAA Current Members"। African Airlines Association। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১৬ 
  11. "Kenya Airways Destinations"। cleartrip.com। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১৬ 
  12. "Airliner market"Flight International: 937। ১ অক্টোবর ১৯৭৭। ১ আগস্ট ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ অক্টোবর ২০১৬Kenya Airways has purchased three Boeing 707s from Northwest Orient