কিন্নাল কারুশিল্প

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কিন্নাল পুতলা

কিন্নাল কারুশিল্প বা কিন্হাল কারুশিল্প (কন্নড়: ಕಿನ್ನಾಳ ಕಲೆ ), ভারতের কৰ্ণাটক রাজ্যের একটি শহর কিন্নাল বা কিন্হালের স্থানীয় ঐতিহ্যবাহী কাঠের কারুশিল্প।[১][২]

কিন্নাল শহর তার কিন্নাল পুতলা এবং ধৰ্মীয় প্ৰতিমার জন্য বিখ্যাত।

এই অঞ্চল কিন্নাল কাৰরুশিল্পের জন্য পরিচিত। এই শিল্প ভারতের ভৌগোলিক অস্তিত্বের ইঙ্গিত দিয়। সেজন্যে ভারত সরকার কিন্নাল কারুশিল্পকে ভৌগোলিক সুচকৰ মৰ্যাদা দিয়েছে এবং এর আবেদন সংখ্যা ২১৩।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

কিন্নাল কলাত্মক ঐতিহ্যে ভরপূর। একসময়ত এটি কারুশিল্পের অতি বিখ্যাত কেন্দ্ৰ ছিল এবং কাঠের কারুকাৰ্য্যের জন্যে পরিচিত ছিল। পাম্পাটেশ্বর মন্দিরের মূরাল চিত্ৰ এবং হাম্পিৰ কাঠের রথের জটিল কারুকাৰ্য্য বৰ্তমানের কিন্নাল শিল্পের পূৰ্বপূরুষ হিসেবে গণ্য করা হয়। একজন শিল্পীর সাতাম পুৰুষীয়া পৈতৃক গৃহত উদ্ধাৰ হোৱা পুৰণি দস্তাবেজে ইয়াকে প্ৰতিপন্ন কৰে।

২০০৭ সালের আমেরিকার গ্লাসগ' বিশ্ববিদ্যালয় এবং গ্লাসগ' কলা বিদ্যালয়ের ছাত্ৰরা কৰ্ণাটকের কারুকাৰ্য্য পরিষদের সহযোগীতায় স্থানীয় ছাত্ৰ এবং শিল্পীদেরকে কিন্নাল শিল্পের পূৰ্ণোদ্ধারের জন্যে একটা প্ৰকল্পের জরীপে সম্বর্ধনা জানায়।[৩]

প্ৰস্তুত প্ৰণালী[সম্পাদনা]

এই শিল্পের সাথে জড়িত শিল্পীদেরকে চিত্ৰকর বলে। পাতল কাঠের পুতলা(খেলনা) সমূহ প্ৰস্তুত করা হয়। তেতুলের বিচি এবং নুড়িপাথর দিয়ে বিভিন্ন অংশ জোড়া লাগানো হয়।

পরিবহন[সম্পাদনা]

কপ্পাল নগর থেকে নিৰ্দিষ্ট সময় পর-পর কিন্নাল বাস চলাচল করে। নিকটতম শহর হচ্ছে কপ্পাল। কপ্পাল থেকে অন্য জায়গাতে যেতে বাস এবং রেলগাড়ীর সুবিধা আছে।

গণতন্ত্ৰ দিবসের পেরেডে কিন্নলার প্ৰতীক[সম্পাদনা]

২০১৩ সালের ভারতের গণতন্ত্ৰ দিবসের পেরেডে কৰ্ণাটক সরকার কিন্নলা কারুশিল্পকে মূখ্য বিষয় হিসেবে প্ৰতীক প্ৰদৰ্শন করেছিল।

তথ্য সূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Kinnal Craft"। Glasgow Kinnal Project। ২৮ জানুয়ারি ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ এপ্রিল ২০০৬ 
  2. Staff (১৯ জানুয়ারি ২০১৩)। "Reviving Kinnala art"The Hindu 
  3. "Kinhal Toys – Training Project" (PDF)। Crafts Council of India। পৃষ্ঠা 24। ২৪ এপ্রিল ২০০৯ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ আগস্ট ২০০৮ 

বহিঃ সংযোগ[সম্পাদনা]