কালো পোথী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
কালো পোথী
কালো পোথী চলচ্চিত্রের পোস্টার.jpg
থিয়েটারে মুক্তি পাওয়া পোস্টার
পরিচালকমিন বাহাদুর ভাম
প্রযোজকআন্না কেচ্কো
ছিরিঙ রিতার শের্পা
মিন বাহাদুর ভাম
দেবকি রায়
ক্যাথরিন দুসার্ট
অনুপ থাপা
চিত্রনাট্যকারমিন বাহাদুর ভাম & অবিনাশ বিক্রম শাহ
কাহিনিকারমিন বাহাদুর ভাম
অবিনাশ বিক্রম শাহ
সন্তোষ ভট্টারাই
কুশং রায়
শ্রেষ্ঠাংশেখড়কা রাজ নেপালি
সুকরাজ রোকায়া
জিত বাহাদুর মল্ল
বেনিশা হমাল
হংস খদকা
নন্দ প্রশাদ খত্রি
বিপিন কার্কি
প্রতিউন খতিওয়াদা
সুরকারজেসন কুনওয়ার
প্রযোজনা
কোম্পানি
শুনি ফিল্মস (নেপাল)
মিলা প্রোডাকশনস (নেপাল)
কালধুঙ্গি ফিল্মস (নেপাল)
ট্যান্ডেম প্রোডাকশন (জার্মানি)
সিডিপি (ফ্রান্স)
পরিবেশকওয়াইড ম্যানেজমেন্ট(ফ্রান্স)
মুক্তি
  • ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ (2015-09-04) (ভেনিস ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল)
  • ৩ জুন ২০১৬ (2016-06-03) (নেপাল)
দৈর্ঘ্য৯০ মিনিট
দেশনেপাল
ভাষানেপালি

কলো পোথি মিন বাহাদুর ভাম পরিচালিত ২০১৫ সালের একটি নেপালি নাট্যধর্মী চলচ্চিত্র। এটি প্রযোজনা করেছেন আন্না কেচ্কো, ছিরিঙ রিতার শের্পা, মিন বাহাদুর ভাম, দেবকি রাই, ক্যাথরিন দুসার্ট এবং অনুপ থাপা।

এই গল্পটি নেপালি গৃহযুদ্ধের সময়কার ২০০১ সালে উত্তর-পশ্চিম নেপালের একটি জেলা মুগুতে হয়েছিল। এটি ভেনিস ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে প্রদর্শিত প্রথম নেপালি চলচ্চিত্র।[১][২][৩] বিদেশি ভাষার চলচ্চিত্র ক্যাটাগরিতে পুরষ্কারের জন্য মনোনীত হয়েছিল এটি, কিন্তু পুরস্কার পায়নি।[৪] এটি বিদেশে সর্বাধিক উপার্জনকারী নেপালি চলচ্চিত্র এবং নেপালের সর্বাধিক উপার্জনকারী চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে একটি।

কাহিনী[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্রটি নেপালি গৃহযুদ্ধে ভঙ্গুর যুদ্ধবিরতির সময় চালিত অত্যাচার সম্পর্কে, নিখোঁজ হেনের অনুসন্ধান এবং দুই বন্ধু প্রকাশ ও কিরণের যাত্রা অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে।

অভিনয়ে[সম্পাদনা]

  • প্রকাশ হিসাবে খড়কা রাজ নেপালি
  • কিরণ চরিত্রে সুকরাজ রোকায়া
  • প্রকাশের বাবা হিসাবে জিত বাহাদুর মল্লা
  • বেনিশা হামাল কিরণের বোন হিসাবে
  • প্রকাশের বোন হিসাবে হংস খড়কা
  • নন্দ প্রশাদ খত্রি
  • বিপিন কারকি
  • প্রতিউন খতিওয়াদা

প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্রটি একধরনের ইতিবাচক পর্যালোচনার মাধ্যমেই মুক্তি পায়।নেপালি টাইমসের সোফিয়া পান্ডে লিখেছেন যে চলচ্চিত্রটি "নেপালি সিনেমার রূপান্তরের উদাহরণ, যে ধরণের গল্পকে সত্য ও হৃদয় দিয়ে মেলোড্রামা ও অ্যাকশন দিয়ে চিত্রিত করতে বেছে নেওয়া হয়েছে,তাতে অসাধারণ হয়েছে।"[৫]

হিমালয়ান টাইমস তাদের পর্যালোচনাতে লিখেছে: "ট্র্যাজেডি এবং কৌতুকের মিশ্রণ,ভাই-বোন বন্ধন,বন্ধুত্ব, বর্ণ-ভিত্তিক বৈষম্য এবং দেশে মাওবাদী বিদ্রোহের তৎকালীন সময়কে চিত্রিত করার জন্য নিঃসন্দেহে কলো পোথী বিনা বিচারে শ্রেষ্ঠ"।[৬]

দ্য হলিউড রিপোর্টার ক্লারেন্স সুই লিখেছেন - "কালো পোথী একটি প্রতিশ্রুতিশীল চলচ্চিত্র নির্মাতার একটি কার্যকর প্রদর্শনী।"[৭]

পুরস্কার[সম্পাদনা]

  • ভেনিস আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সেরা চলচ্চিত্র,সমালোচক সপ্তাহ,২০১৫

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Kalo Pothi First Nepali film to screen at Venice Film Festival"। myrepublica.com। ২০১৫-০৬-০২। ২০১৬-০৬-১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-২০ 
  2. "Kalo Pothi premiered in Venice"। xnepali.net। ২০১৫-০৯-০৯। 
  3. "Kalo Pothi"। sicvenezia.it। ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০২০ 
  4. Holdsworth, Nick (৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬)। "Oscars: Nepal Selects 'Kalo Pothi (The Black Hen)' for Foreign-Language Category"The Hollywood Reporter। সংগ্রহের তারিখ ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬ 
  5. "Kalo Pothi"Nepali Times। ১৭–২৩ জুন ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৯ জুলাই ২০১৬ 
  6. "Grim picture of war"The Himalayan Times। ৪ জুন ২০১৬। ১৯ আগস্ট ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ জুলাই ২০১৬ 
  7. "'Kalo Pothi, the Black Hen': Filmart/Hong Kong Review"The Hollywood Reporter। ১৪ মার্চ ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ৯ জুলাই ২০১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]