ওয়ালটন (মোবাইল)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ওয়ালটন মোবাইল
পাবলিক কোম্পানি
ব্যবসা হিসেবেওয়ালটন প্রিমো
শিল্পটেলিযোগাযোগ সরঞ্জাম
উত্তরসূরীসমূহপ্রিমো এক্স
প্রতিষ্ঠাকাল২০০৬
প্রতিষ্ঠাতাএম.এম নজরুল ইসলাম
সদরদপ্তরগাজীপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ
বাণিজ্য অঞ্চল
বাংলাদেশ, সৌদি আরব, সুদান, ঘানা, দক্ষিণ আফ্রিকা, মিয়ানমার, নেপাল
প্রধান ব্যক্তি
এস.এম. নুরূল আলম রিজভি (চেয়ারম্যান)
এস.এম. আশরাফুল আলম (ব্যবস্থাপনা পরিচালক)
কর্মীসংখ্যা
১৬০০০+
স্লোগানআমাদের পণ্য
ওয়েবসাইটওয়ালটনবিডি.কম

ওয়ালটন মোবাইল বাংলাদেশের একটি শীর্ষস্থানীয় মোবাইল বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটি রিজভি এন্ড ব্রাদার্স গ্রুপ অফ ইন্ড্রাস্ট্রির অধীনে পরিচালিত হয়, যা ১৯৭৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে বিশ্বের ১১টি দেশে ওয়ালটনের পণ্য রপ্তানি হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে সৌদি আরব, সুদান, ঘানা, দক্ষিণ আফ্রিকা, মিয়ানমার, নেপাল। আগামী ২০১৫ সালের মধ্যে বিশ্বের ৫০টি দেশে ওয়ালটনের পণ্য রপ্তানির লক্ষ্য আছে[১]

প্রতিষ্ঠা[সম্পাদনা]

১৯৭৭ সালে রিজভি এন্ড ব্রাদার্স প্রতিষ্ঠিত হয়, যা পরবর্তিকালে আর.বি. গ্রুপের সাথে অধিগ্রহণ করা হয়। প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠাতা এম.এম নজরুল ইসলাম(রিজভি এন্ড ব্রাদার্স)। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান কার্যালয় ঢাকায় অবস্থিত। প্রতিষ্ঠানটির অধিনে আটটি অন্যান্য প্রতিষ্ঠান যুক্ত রয়েছে, যার মধ্যে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেড এর অধিনে ওয়ালটন মোবাইল, ফ্রিজ, মোটরসাইকেল, এয়ার কন্ডিশনার প্রস্তুত করা হয়[২]

ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেড এর প্রধান কারখানাটি চন্দ্রার কালীয়াকৈরে (গাজীপুর) অবস্থিত। কারখানাটির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয় ২০০২ সালে এবং ২০০৬ সালে কারখানাটির কাজ সমাপ্ত হয়। ২০০৮ সাল থেকে উৎপাদন কার্যক্রম শুরু হয়। প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) পদে রয়েছেন এস.এম. আশরাফুল আলম।

মোবাইল সেবা[সম্পাদনা]

ওয়ালটন তাদের মোবাইল সেবা কার্যক্রম মূলত ২০১০ সাল থেকে শুরু করে। প্রথম দিকে তারা ফিচার ফোনের মাধ্যমে বাজারে অংশগ্রহণ করে। ২০১২ সালে তারা ওয়ালটন প্রিমো নামে প্রথম স্মার্টফোন বাজারে আনে[৩]। স্মার্টফোনটি অ্যানড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত হত এবং এটি জিঞ্জারব্রেড সংস্করণে চলত। প্রিমো এক্স(Primo X) তাদের প্রধান ফ্ল্যাগশিপ ফোন। বর্তমানে তারা ওয়ালটন প্রিমো নামেই মোবাইল প্রস্তুত করে থাকে এবং তা স্মার্টফোন নামে অবহিত করা হয়। স্মার্টফোনের পাশাপাশি তারা ফিচার ফোনও তৈরি করে আসছে। তাদের মোবাইল সেবা কার্যক্রম বর্তমানে ১১টি দেশে সীমাবদ্ধ থাকলেও ভবিষ্যতে তা অন্যান্য অনেক দেশে রপ্তানির পরিকল্পনা রয়েছে। তাদের প্রধান লক্ষ্য স্বল্প মূল্যে সকলের কাছে স্মার্টফোন পৌছে দেওয়া।

ওয়ালটন মোবাইল ধারা[সম্পাদনা]

ওয়ালটন বিভিন্ন সিরিজের মোবাইল প্রস্তুত করে থাকে। এর মধ্যে প্রিমো এক্স তাদের প্রধান ফ্ল্যাগশিপ ফোন।

  • প্রিমো এক্স সিরিজ
  • প্রিমো এস সিরিজ
  • প্রিমো ভি সিরিজ
  • প্রিমো সি সিরিজ
  • প্রিমো আরএক্স সিরিজ
  • প্রিমো ই সিরিজ
  • প্রিমো ইএফ সিরিজ
  • প্রিমো এইচএম সিরিজ
  • প্রিমো ডি সিরিজ
  • প্রিমো এফ সিরিজ
  • প্রিমো জিএফ সিরিজ
  • প্রিমো জিএম সিরিজ
  • প্রিমো আরএম সিরিজ
  • প্রিমো জিএইচ সিরিজ
  • প্রিমো আর সিরিজ
  • প্রিমো এইচ সিরিজ
  • প্রিমো এনএফ সিরিজ
  • প্রিমো জেডএক্স সিরিজ

২২-০৫-২০১৮ পযর্ন্ত তাদের সর্বশেষ অ্যানড্রয়েড ফোন হচ্ছে ওয়ালটন প্রিমো জিএম৩ (Primo GM3)। যেটি অ্যানড্রয়েড ওরিও এর বিশেষ সংস্করণ অ্যানড্রয়েড ৮.১ গো তে চলে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ২ মে ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ নভেম্বর ২০১৯ 
  2. http://www.risingbd.com/­english/­Walton_Bangladesh_A_B­rief_History/743
  3. http://www.techdesighn.com/­internet/­android-apps/­walton-primo-first-ba­ngladesh-smartphone.­html

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]