উপ্সেলাইট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
Electron microscopy images of Upsalite — scale bar length: (A) 1 μm (B) 200 nm (C) 50 nm

উপ্সেলাইট ম্যাগনেসিয়াম কাৰ্বনেট এর একটি অনাৰ্দ্ৰ (ইংরেজী: anhydrous) রূপ। ২০১৩ সালের জুলাই মাসে এক পদাৰ্থবিদ প্ৰথম এর সংবাদ প্ৰকাশিত করেন। [১][২] প্ৰতি গ্ৰামে ৮০০ মিটার² পৃষ্ঠতলসম্পন্ন উপ্‌সেলাইট এতদিনের আবিষ্কৃত সকল অ্যালকালি আৰ্থ মেটাল কাৰ্বনেট(ইংরেজি:alkali earth metal carbonate)এর মধ্যে সৰ্বোচ্চ পৃষ্ঠতলসম্পন্ন পদাৰ্থ হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। এই পদাৰ্থটি নিম্ন আপেক্ষিক আৰ্দ্ৰতায় এতদিনের উপলব্ধ শ্ৰেষ্ঠ শোষক হিসেবে পরিচিত hygroscopic zeolites-এর থেকেও বেশি জল শোষণ করতে পারে। এছাড়া উপ্সেলাইট জিওলাইটের(zeolites)থেকে কম উষ্ণতাতে জল পরিত্যাগ করতে পারে, অৰ্থাৎ এর জন্য উপ্‌সেলাইটের কম শক্তির প্ৰয়োজন হয়।

নামকরণ[সম্পাদনা]

সুইডেনের বিখ্যাত উপ্সোলা বিশ্ববিদ্যালয়ের নামানুসারে এই পদাৰ্থটির নাম উপ্সেলাইট রাখা হয়েছে। এই বিশ্ববিদ্যালয়েই এই পদাৰ্থটির অবস্থিতির প্ৰথম গবেষণামূলক সংবাদ প্ৰকাশ পায়। ইংরেজি উপ্‌সেলাইট লিপ্যন্তরে (অৰ্থাৎ "upsalite"- ত) এটিতে "p" আছে যদিও উপরোক্ত বিশ্ববিদ্যালয়টি যে শহরে অবস্থিত, সেই শহরটির নাম "Uppsala"। তবুও, এই শহরটির নামের পুরানো উচ্চারণ "Upsala" হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নব-ল্যাটিন (ইংরেজি:New Latin/(Neo-)Latin) নামটি অৰ্থাৎ Universitas Regia Upsaliensis-তে এতে "p" আছে।

সংশ্লেষণ[সম্পাদনা]

Synthesis of Upsalite

সাধারণ বায়ুমণ্ডলীয় চাপের তিনগুণ বেশি চাপে ম্যাগনেসিয়াম অক্সাইড (MgO) ও কাৰ্বন ডাইঅক্সাইড (CO2)কে মিথানলে দ্রবীভূত করে বিশুদ্ধ MgCO3(উপ্‌সেলাইট) প্ৰস্তুত করা হয়।

ধৰ্ম[সম্পাদনা]

উপ্সেলাইটের জলীয় বাষ্প শোষণ করার ক্ষমতা জিওলাইটতের থেকে বেশি। অন্যদিকে জিওলাইট উপ্‌সেলাইট বহু বেশি ব্যয়সাধ্য পদাৰ্থ। উপ্‌সেলাইট আৰ্দ্ৰ পরিবেশ থেকে বহুগুণ শুষ্ক পরিবেশে সঞ্চালিত করলেও শোষিত জলের বেশি অংশই ধরে রাখতে পারে। ৯৫ °সেলসিয়াস উষ্ণতায় উত্তপ্ত করে এর শুষ্ক রূপটি ফেরত পাওয়া যায়। এর বিপরীতে, বেশিরভাগ জিওলাইটের শুষ্ক রূপ পাওয়ার জন্য ১৫০ °সেলসিয়াসের থেকেও বেশী উষ্ণতায় উত্তপ্ত করা হয়। এই শুষ্ককরণ ধৰ্মের মূল হল- উপ্‌সেলাইটের বৃহৎ আভ্যন্তরীণ পৃষ্ঠতল। ম্যাগনেসিয়াম কাৰ্বনেটের বিভিন্ন রূপের পৃষ্ঠে জল আবদ্ধ হয়ে থাকে এবং এইজন্য স্ফটিকাকার (ইংরেজী:crystalline); এর বিপরীতে উপ্‌সেলাইটের পৃষ্ঠে কোনো জল সংযোজিত না থাকায় ইহা স্ফটিকাকার নয়। উপ্‌সেলাইট আসলে মেসোপোরাস (ইংরেজী:Mesoporous) পদাৰ্থ। এর ফলে এর পৃষ্ঠতল বৃহৎ- প্ৰতি গ্ৰামে ৮০০ বৰ্গমিটার(৮,৬০০ বৰ্গফুট)। [৩]

ব্যবহার[সম্পাদনা]

এর সম্ভাব্য ব্যবহারের মধ্যে অন্যতম হল-ইলেক্ট্ৰনিক ও ঔষধ উৎপাদন উদ্যোগ সমূহে পারিবেশিক বাষ্প নিয়ন্ত্ৰণের জন্য প্ৰয়োজনীয় শক্তির হ্ৰাসকরণ। এর জন্য hockey rinks ও গুদামসমূহে এর ব্যবহার করা যায়। বিষাক্ত আবৰ্জনা, রাসায়নিক, তৈল আবৰ্জনার দূরীকরণ ও ঔষধ বিতরণ ব্যবস্থা, অগ্নিকাণ্ডের পরবৰ্তী পৰ্যায়ে নিকাকরণ, দূৰ্গন্ধ নিয়ন্ত্ৰণ ইত্যাদি ক্ষেত্ৰে এর ব্যবহার করা যায়। [১]

তথ্যসূত্ৰ[সম্পাদনা]

  1. A Template-Free, Ultra-Adsorbing, High Surface Area Carbonate Nanostructure Forsgren J, Frykstrand S, Grandfield K, Mihranyan A, Strømme M (2013) A Template-Free, Ultra-Adsorbing, High Surface Area Carbonate Nanostructure. PLoS ONE 8(7): e68486. ডিওআই:10.1371/journal.pone.0068486
  2. "Researchers Develop Record Breaking Magnesium Carbonate Material"SciTech Daily। ২০১৩-০৭-১৮। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৭-১৯ 
  3. Bissette, Andrew (12 August 2013)। "Scientists make 'impossible material' … by accident"The Conversation। সংগ্রহের তারিখ 14 August , 2013  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)

বাহ্যিক সংযোগ[সম্পাদনা]