উত্তর সমুদ্রপথ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আর্কটিক অঞ্চলের একটি মানচিত্র যেখানে উত্তর সমুদ্রপথের উত্তর-পূর্ব উত্তরণ ও উত্তর-পশ্চিম উত্তরণ দেখানো হচ্ছে।

উত্তর সমুদ্রপথ রাশিয়ান আইন অনুযায়ী একটি সমুদ্রপথ যেটি নোভায়া জেমলিয়ার পূর্বে ও রাশিয়ান আর্কটিক সমুদ্রতট ধরে কারা সমুদ্র হতে সাইবেরিয়া হয়ে বেরিং প্রণালী পর্যন্ত অগ্রসরমান। সম্পূর্ণ সমুদ্রপথটি আর্কটিক অঞ্চলে রাশিয়ার একচেটিয়া অর্থনৈতিক অঞ্চলের ভেতরে অবস্থিত। এই সমুদ্রপথ বছরে মাত্র দুইমাস বরফ মুক্ত অবস্থায় থাকে। এই সম্পুর্ণ সমুদ্রপথটি রাশিয়ান দিকে উত্তর কেপ হতে বেরিং প্রণালী পর্যন্ত উত্তর-পূর্ব উত্তরণ নামে পরিচিত, যা কানাডার উত্তর-পশ্চিম উত্তরণের সঙ্গে সাদৃশ্যপূর্ণ।

উত্তর-পূর্ব উত্তরণ সকল পুর্বাঞ্চলিয় আর্কটিক সমুদ্র এবং এটলান্টিক ও প্রশান্ত মহাসাগরকে সংযুক্ত করলেও, উত্তর সমুদ্রপথ বেরেন্টস সাগরকে সংযুক্ত করে না, ফলে এই পথটি আটলান্টিক পর্যন্ত পৌঁছুতে পারেনি।

আর্কটিক বরফ গলে গেলে এই সমুদ্রপথে জাহাজ চলাচল বৃদ্ধি পাবে।[১] [২] একটি সমীক্ষায়, এশিয়া আর ইউরোপের বাণিজ্যে বৈশিষ্টপূর্ণ পরিবর্তন, ইউরোপে বাণিজ্যের বিস্তৃতি, আর্কটিক সমুদ্রপথে সামুদ্রিক জাহাজ চলাচল বৃদ্ধি ও সুয়েজ খালে পণ্যবাহী জাহাজ চলাচল হ্রাসের ভবিষ্যৎবাণী করা হয়েছে। বাণিজ্যে আনুমানিক পরিবর্তনগুলো ইতিমধ্যে হুমকির মুখে থাকা আর্কটিক বাস্তুতন্ত্রের উপর যথেষ্ট চাপ ফেলবে বলেও উল্লেখ করেছে। [৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

এই সমুদ্রপথটি ১৮৭৮-৭৯ সালে এডলফ এরিক নর্ডেনস্কিওয়েড কর্তৃক পরিচালিত ভেগা নামক একটি শীতকালীন অভিযানে আবিষ্কৃত হয়েছিল।

উত্তর সমুদ্রপথ বেশ কয়েকটি আর্কটিক সামুদ্রিক পণ্য পরিবহন পথের একটি। ১৯৩০ সালের মাঝামাঝি থেকে উত্তর সমুদ্রপথ দাপ্তরিকভাবে রাশিয়ার উত্তর আর্কটিক তির হতে পরিচালিত হয়ে আসছে। এই প্রশাসনিক ব্যবস্থাটি পর্যায়ক্রমিকভাবে হালনাগাদ, উন্নয়ন এবং নবনামাঙ্কিত করা হচ্ছে। ২০১৩ সাল থেকে ফেডারেল স্টেট বাজেটারি ইনস্টিটিউটের অধীনে দ্য নর্দার্ণ সি রুট এডমিনিস্ট্রেশন এই সমুদ্রপথের প্রশাসনিক ব্যবস্থাপনার কাজ করে যাচ্ছে।। [৪]

২০১৭ সালের আগস্ট মাসে প্রথমবারের মত উত্তর সমুদ্রপথ ধরে কোনো বরফভাঙ্গা জাহাজের সহযোগিতা ছাড়াই একটি জাহাজ এই নৌপথ অতিক্রম করে। [৫] নিউ ইয়র্ক টাইমসের মতে, বরফ গলে যাওয়ায় এবং নৌযোগাযোগ সহজতর হওয়ায় এই ঘটনাটি আর্কটিক অঞ্চলে জাহাজ চলাচল বৃদ্ধির পূর্বাভাস দেয়। [৫] ২০১৮ সালে মার্স্ক লাইন তাঁদের নতুন "বরফ-শ্রেনী" র কন্টেনারবাহী জাহাজ ভেন্টা মার্স্ককে উক্ত সমুদ্রপথটিতে ব্যবসায়িকভাবে আকর্ষণীয় না হওয়া সত্ত্বেও জাহাজ চলাচলের উদ্দেশ্যে তথ্য সংগ্রহ ও সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্য পাঠায় বলে জানায়। [৬] [৭] এসময় তিনদিন ব্যাপী একটি রাশিয়ান পারমাণবিক শক্তি চালিত বরফভাঙ্গা জাহাজ ৫০ লেফ পবেডির সহযোগিতা তাঁদের প্রয়োজন হয়েছিল। [৮] [৯]

ওলন্দাজ অর্থনৈতিক নীতি বিশ্লেষণী সংস্থা ২০১৫ সালে ভবিষ্যদ্বাণী করে যে, ২০৩০ সালে উত্তর-পশ্চিম উত্তরণ বরফ মুক্ত হবার আগেই উত্তর সমুদ্রপথ বরফ মুক্ত হয়ে যাবে। ২০১৬ সালে প্রকাশিত কোপেনহেগেন ব্যবসায়িক বিদ্যালয়ের একটি প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয় যে বড়মাপের আন্তঃ আর্কটিক জাহাজ চলাচল ২০৪০ সালের মধ্যে অর্থনৈতিকভাবে বাস্তবসম্মত হয়ে উঠবে। [৫] [১০]

২০১৮ সালে রাশিয়ান সরকার উত্তর সমুদ্রপথের প্রধান দায়িত্ব রোসাটমকে হস্তান্তর করে যেটি সহায়ক সংস্থা রোসাটমফ্লোটের মাধ্যমে মুরমানস্কে অবস্থিত রাশিয়ান পারমাণবিক শক্তি চালিত বরফভাঙ্গা জাহাজ বহর পরিচালনা করে। [৭] [১১]

অর্থনৈতিক মূল্যায়ন[সম্পাদনা]

গবেষক এবং অর্থনীতিবিদরা সাধারণত উত্তর সমুদ্রপথকে সুয়েজ খালের সাথে তুলনা করেন। প্রথম রুটটি ছোট এবং জ্বালানি সাশ্রয়ী হলেও এর পরিবেশগত ঝুঁকি এবং বর্ধিত পরিচলন ব্যয় আছে। কিছু গবেষণায় দুটি সমুদ্রপথের যৌথ ব্যবহারের সুপারিশ করা হয়েছে যেখানে গ্রীষ্মকালে প্রায় বরফমুক্ত অবস্থায় উত্তর সাগর রুট ব্যবহার করা এবং বছরের বাকি সময় সুয়েজ খাল ব্যবহার করতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। [১২] গবেষকরা আরও দাবি করেন যে উত্তর সমুদ্রপথের অর্থনৈতিক সম্ভাব্যতা মূলত সেখানকার আবহাওয়ার অবস্থার উপর নির্ভর করে। গবেষক সিবুল এবং তাঁর সঙ্গিরা উত্তর সমুদ্রপথের কৌশলগত মূল্যায়নের জন্য একটি পাথ-ফাইন্ডিং অ্যালগরিদম প্রস্তাব করেছে। [১৩] এটি ইনপুট হিসাবে আবহাওয়ার অবস্থা সংগ্রহ করে, সর্বোত্তম জাহাজ চলাচল পথ খুঁজে বের করে।

অর্থনৈতিক প্রভাব[সম্পাদনা]

ফ্ল্যাগ স্টেট প্রতি পরিবহন সম্পূর্ণ হওয়ার সংখ্যা। [১৪]

বছর মোট রাশিয়া সিঙ্গাপুর ফিনল্যান্ড নরওয়ে জার্মানি স্পেন চীন গ্রীস হংকং সুইডেন নেদারল্যান্ডস পর্তুগাল অন্যান্য
২০০৭
২০০৮
২০০৯
২০১০ ১০ ১০
২০১১ ৪১ ২৬
২০১২ ৪৬ ১৮ ১৫
২০১৩ ৭১ ৪৬ ১৮
২০১৪ ৫৩ ৪৭
২০১৫ ১৮ ১০
২০১৬ ১৮
২০১৭ ২৭ ১০
২০১৮ ২৭ 7
২০১৯ ৩৭
২০২০

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

  • আর্কটিক সেতু
  • আর্কটিক সহযোগিতা এবং রাজনীতি
  • রাশিয়ার আর্কটিক নীতি
  • রাশিয়ান অভিযাত্রীদের তালিকা
  • আর্কটিকের আঞ্চলিক দাবি

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Fountain, Henry (২০১৭-০৭-২৩)। "With More Ships in the Arctic, Fears of Disaster Rise"The New York Times (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0362-4331। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৭-২৪ 
  2. McGrath, Matt (২০১৭-০৮-২৪)। "First tanker crosses northern sea route without ice breaker"BBC News (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৮-২৪ 
  3. Bekkers, Eddy; Francois, Joseph F. (২০১৬-১২-০১)। "Melting Ice Caps and the Economic Impact of Opening the Northern Sea Route" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়): 1095–1127। আইএসএসএন 1468-0297ডিওআই:10.1111/ecoj.12460 
  4. "Object of activity and functions of NSRA"। Northern Sea Route Administration। 
  5. Goldman, Russell (২০১৭-০৮-২৫)। "Russian Tanker Completes Arctic Passage Without Aid of Icebreakers"The New York Times (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0362-4331। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৮-২৬  উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; আলাদা বিষয়বস্তুর সঙ্গে "NYT20170825" নামটি একাধিক বার সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে
  6. "Container ship to break the ice on Russian Arctic route"BBC News। ২৩ আগস্ট ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৩ আগস্ট ২০১৮ 
  7. Henderson, Isaiah (জুলাই ১৮, ২০১৯)। "Cold Ambition: The New Geopolitical Faultline"The California Review। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৮, ২০১৯  উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; আলাদা বিষয়বস্তুর সঙ্গে "Calrev" নামটি একাধিক বার সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে
  8. Embury-Dennis, Tom (২০১৭-০৯-১৮)। "Container ship crosses Arctic route for first time in history due to melting sea ice"The Independent (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0951-9467। ২০২২-০৬-২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৯-২০ 
  9. Humpert, Malte (২০১৭-০৯-১৪)। "Maersk Container Ship Transits Arctic Ocean With Icebreaker Escort"High North News। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৯-২০ 
  10. Arctic shipping - Commercial opportunities and challenges (PDF)। Copenhangen Business School Maritime। জানুয়ারি ২০১৬। আইএসবিএন 978-87-93262-03-4 
  11. Nilsen, Thomas (২০১৮-০৭-১৮)। "Vyacheslav Ruksha will lead the newly established Northern Sea Route Directorate"The Barents Observer 
  12. Sibul, Gleb; Jin, Jian Gang (মে ২০২১)। "Evaluating the feasibility of combined use of the Northern Sea Route and the Suez Canal Route considering ice parameters": 350–369। আইএসএসএন 0965-8564ডিওআই:10.1016/j.tra.2021.03.024 
  13. Sibul, Gleb; Yang, Peihao (২০২২-০৪-১৪)। "Revealing the true navigability of the Northern Sea Route from ice conditions and weather observations": 1–17। আইএসএসএন 0308-8839ডিওআই:10.1080/03088839.2022.2059717 
  14. "NSR transit statistics"। Centre for high north logistics। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১২-১৪ 

উদ্ধৃতি ত্রুটি: <references>-এ সংজ্ঞায়িত "AMSA 2009" নামসহ <ref> ট্যাগ পূর্ববর্তী লেখায় ব্যবহৃত হয়নি।
উদ্ধৃতি ত্রুটি: <references>-এ সংজ্ঞায়িত "Østreng 2013" নামসহ <ref> ট্যাগ পূর্ববর্তী লেখায় ব্যবহৃত হয়নি।

উদ্ধৃতি ত্রুটি: <references>-এ সংজ্ঞায়িত "Buixade Farre 2014" নামসহ <ref> ট্যাগ পূর্ববর্তী লেখায় ব্যবহৃত হয়নি।

 

আরও পড়া[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]