ইয়েমিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ইয়েমিন
লেখকগোখান জিঞ্চ‌ির
পরিচালকআয়হান অজিন
অভিনয়েঅজগি ইয়াগিজ
গকবার্ক ডেমিরসি
মৌসুমের সংখ্যা
পর্বের সংখ্যা১৭০(২৩ জানুয়ারি ২০২০)
নির্মাণ
ব্যাপ্তিকাল৬০-৭০ মিনিট
মুক্তি
মূল নেটওয়ার্ককানাল সেভেন
প্রথম প্রকাশমরসুম ১ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
মরসুম ২ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯
বহিঃসংযোগ
ওয়েবসাইট

ইয়েমিন (টিভি ধারাবাহিক)( তুর্কি : প্রতিশ্রুতি ) একটি তুর্কি ধারাবাহিক টেলিভিশন নাটক । এটি কানাল সেভেন চ্যানেলে প্রচারিত হত[১]।এর কেন্দ্রীয় ভূমিকায় অজগি ইয়াগিজ এবং গকবার্ক ডেমিরসি অভিনয় করেছেন।আয়হান অজিন ছিলেন ইয়ামিন (প্রতিশ্রুতি) সিরিজের পরিচালক।

গল্প[সম্পাদনা]

মরসুম ১[সম্পাদনা]

হিকমেট তার ভাতিজি রেহানকে তার লম্পট পুত্র আমিরের সাথে বিয়ে দিতে ইস্তানবুল নিয়ে এসেছিল। রেহান কোনও অপরিচিত ব্যক্তিকে বিয়ে করতে চায়নি। কিন্তু তার কাকু তার রোগ সম্পর্কে জানিয়ে তাকে এজন্য অনুরোধ করেছিলেন। তিনি অনিচ্ছুক হওয়া সত্ত্বেও তার কাকুর খাতিরে সম্মতি জানায়। আমির ও বিয়ে করতে চায়নি। কারণ সে তার স্বাধীনতাকে খুব বেশি ভালোবাসত। কিন্তু বাবার দ্বারা বাধ্য হয়ে রাজি হন। কিন্তু সে রেহানের সাথে খারাপ ব্যবহার করার শপথ করেছিল ।যাতে সে নিজেই তাকে তালাক দেয়। রেহানের সাথে আমির ও তার মা কভিডান খারাপ আচরণ করেছিল। কিন্তু তার কাকু এবং তার ভগ্নিপতি সুনার কাছে সে ভালোবাসা পেয়েছিল। সময়ের সাথে সাথে সব বদলে যায় । রেহান ও আমির একে অপরের প্রেমে পড়ে যায়। তবে মৌসুম শেষে রেহান চিন্তা করে সে আমির ছেড়ে চলে যাবে কি না।

মরসুম ২[সম্পাদনা]

পরের মরসুমের শুরুতে রেহান আমিরকে না ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেয়।তারা দু'জনেই একে অপরের উপর রাগ করে ছিল ।আমিরের প্রাক্তন প্রেমিকা কেম্রি আমির ও রেহানের ঘরে আগুন লাগায়।যেখানে তারা বসেছিল। পরের দিন সকালে রেহান আমিরের কাছে তাকে ভালবাসার কথা স্বীকার করে। কেম্রি মনে করে যে সে রেহানের চেয়ে সুন্দরী। একদিন সে রেহানের মুখোমুখি হয়। তাকে বলে যে সে রেহানের চেয়ে লম্বা, সুন্দর ও বুদ্ধিমান। লম্বা সেমরের সামনে রেহানকে একটি মিডজেটের মতো দেখায়। তারা হাতাহাতিতে জরিয়ে পড়ে। যেখানে কেম্রি রেহানকে সহজেই পরাস্ত করে এবং তারপরে তাকে চুম্বন করে।এতে রেহান অপমানিত বোধ করে এবং তার হারানো সম্মান ফিরে পেতে প্রতিশোধ নিতে চায়। তবে কেম্রি তাকে সর্বদা সর্বত্র পরাজিত করে। কেম্রি আমিরের বিরুদ্ধে একটি ভুয়া ভিডিও তৈরি করে রেহানকে হুমকি দিয়েছিল।বলেছিল যদি সে আমিরের ভাল চায় তবে যেন সে তাকে তালাক দেয়। রেহান আমিরের ভালোর জন্য বিবাহ বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। তবে আমির তখনও তার ভালবাসার জন্য লড়াই করে যাচ্ছিল। কেম্রির মা সুহেলা আমির ও রেহানের বিরুদ্ধে কেম্রি এবং ক্যাভিডনের দুষ্ট পরিকল্পনার কথা জানতে পারে ।তিনি আমিরকে সব কিছু জানানোর সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু একটি গাড়ি তাকে ধাক্কা মেরে হত্যা করে। কয়েক দিন পরে আমির অবশেষে নকল ভিডিওটি দেখেন এবং কেম্রিকে গ্রেপ্তার করান। সে সব হারিয়েছে এই ভেবে কেম্রি নিজেকে গাড়ির নিচে ফেলে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করে। কিন্তু সে বেঁচে যায়।সে হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায় এবং সুনাকে অপহরণ করে আবার আমির ও রেহানকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করে। এবার সুনা তার হাঁটাচলা করার শক্তি ফিরে পায় ও তাদের বাঁচায়। কেম্রি মানসিক হাসপাতালে এসে ক্যাভিডানের তার সাথে জড়িত থাকার কথা পুলিশের কাছে প্রকাশ করে। কেউ তার কথা বিশ্বাস করে না ।কারণ সে পাগল হয়ে গেছে । নিজেকে বাঁচানোর জন্য ক্যাভিডন একজন লোককে ভাড়া করে।যে কেম্রিকে বৈদ্যুতিক শক দেয় ।যাতে তার স্মৃতি থেকে সমস্ত কিছু মুছে যায়।

অভিনেতা/অভিনেত্রী[সম্পাদনা]

  • রেহান তারহুন চরিত্রে অজগি ইয়াগিজ
  • এমির তারহুন চরিত্রে গকবার্ক ডেমিরসি
  • হিকমেট তারহুন চরিত্রে অভিনয় করেছেন বারকান্ট মাফাতলার
  • ক্যাভিডন তারহুন চরিত্রে গুল আরকান
  • কামাল তারহুন চরিত্রে ক্যান ভেরেল
  • মাসাল তারহুন চরিত্রে কানসিন মিনা গূর
  • কেম্রি চরিত্রে সায়দা ওলগুনার
  • সুনা তারকুনের চরিত্রে সেলা তরকোয়লু
  • জাফর চরিত্রে আলী ডেরেলি
  • সেহ্রি‌য়ে চরিত্রে দেরিয়া কুর্তুলু ওকতার

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "the promise"ecchorights.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-১০ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]