আলি আল হাবসি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আলি আল হাবসি
Ali Al Habsi portrait, Wigan Athletic v Birmingham, 19 March 2011.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম আলি আব্দুল্লাহ হারিব আল-হাবসি
জন্ম (১৯৮১-১২-৩০) ৩০ ডিসেম্বর ১৯৮১ (বয়স ৩৬)
জন্ম স্থান আল মুধাইবি, ওমান
উচ্চতা ১.৯৪ মিটার (৬ ফুট   ইঞ্চি)
মাঠে অবস্থান গোলরক্ষক
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব রেডিং
জার্সি নম্বর ২৬
জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন*
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
১৯৯৮-২০০২ আল মুধাইবি
২০০২-২০০৩ আল নাসের
২০০৩-২০০৬ এফওইয়াইএন অসলো
২০০৬-২০১১ বোল্টন
২০১০-১১উইগান (লোন)
২০১১-১৫ উইগান
২০১৪ব্রাইংটন এ্যালাবিয়ন (loan)
২০১৫- রেডিং
জাতীয় দল
২০০২- ওমান
  • পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে।
† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

আলি আল হাবসি (আরবি:علي بن عبد الله بن حارب الحبسي‎‎; জন্ম: ৩০ ডিসেম্বর ১৯৮১) একজন ওমানি পেশাদার ফুটবলার, যিনি প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব রিডিং এবং ওমান জাতীয় দলের অধিনায়ক

ক্লাব জীবন[সম্পাদনা]

আলি আল হাবসি ওমানে জন্মগ্রহন করেন এবং সেখানেই ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু করেন।

বোল্টন ওয়ান্ডারাস[সম্পাদনা]

২০০৬ সালে আল হাবসি এলওয়াইএন অসলো থেকে ইংলিশ ক্লাব বোল্টনে যোগ দেয়। ১ম বছর একাদশে জায়গা করে নিতে পারেনি হাবসি। ২০০৭ সালের সেপ্টেম্বরে লিগ কাপে ফুলহামের বিপক্ষে অভিষেক হয়। সেই ম্যাচে বোল্টন ২-১ গোলে জয়লাভ করে। ২০০৭-০৮ মৌসুমে উয়েফা কাপে বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে চমৎকার পার্ফমেন্স করেন। এর ফলে খুব সহজে উইগানের মুল দলে জায়গা পেয়ে যান।

২০০৮ সালের ডিসেম্বরে দলের সেরা গোলকিপার 'জুসি জাস্কেলাইনেন' ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফেরার পর আলি আল হাবসি ১ম একাদশে তার জায়গা হারায়।

উইগান এ্যাথলেটিক (লোন)[সম্পাদনা]

২০১০ সালের জুলাইয়ে আল হাবসি ৬ মাসের চুক্তিতে স্থানীয় প্রতিদ্বন্দ্বী উইগান এ্যাথলেটিকে লোনে যোগ দেয়। ২০১০ সালের ২৪ আগস্টে লিগ কাপে অভিষেক হয়, এর ৪ দিন পর টটেনহামের বিপক্ষে প্রিমিয়ার লিগে খেলেন। আল হাবসি ২০১০-১১ মৌসুমে উইগানের 'প্লেয়ার অফ দ্যা সিজন নির্বাচিত হন।

উইগান এ্যাথলেটিক[সম্পাদনা]

২০১১ সালের ৪ জুলাই আল হাবসি স্থায়ীভাবে উইগানে ৪ বছরের চুক্তিতে যোগ দেয়। তাকে বোল্টন থেকে ৪ মিলিয়ন পাউন্ড খরচ করে উইগান। উইগানের হয়ে খেলার সময় আলি আল হাবসি নিজেকে পেনাল্টি বিশেষজ্ঞ হিসেবে গড়ে তুলেন। আল হাবসি উইগানের হয়ে খেলার সময় ৫০% পেনাল্টি আটকাতে সক্ষম হন। রবিন ভ্যান পার্সি, কার্লস তেভেজ, হ্যাভিয়ের হার্নান্দেজ এবং মিকেল আরটেটার মত স্টাইকারদের পেনাল্টি আটকান। ২০১২-১৩ মৌসুমে উইগানের ১ম একাদশে জায়গা হারান। তার বদলে জায়গা করে নেন লোনে আসা 'জয়েল রবেলস'।

ব্রাইংটন এ্যালাবিয়ন[সম্পাদনা]

২০১৪ সালের ৩১ অক্টোবরে ইংলিশ চ্যাম্পিয়েন্সিপের দল এ্যালাবিয়নে ১ মাসের লোনে যোগ দেন। সেখানে মাত্র ১ টি ম্যাচ খেলেন। মেয়াদ শেষ হওয়ার পর তার ক্লাব উইগানে ফিরে যান।

রেডিং[সম্পাদনা]

২০১৫ সালের জুলাইয়ে উইগানের সাথে চুক্তি শেষ হওয়ার পর রিডিংয়ে ট্রায়াল দেন। এরপর ১৪ জুলাই ২০১৫ সালে ২ বছরের চুক্তিতে দলে যোগ দেন।

আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

আলি আল হাবসি ১৭ বছর বয়স থেকে ওমানের হয়ে খেলেন। ২০০১ সালে ওমান অনুর্ধ-১৯ দলে জায়গা পান।

২০০৪ এএফসি এশিয়ান কাপের জন্য ওমান জাতীয় দলে ডাক পান। ২০০৭ সাল এএফসি এশিয়া কাপ থেকে দলের নিয়মিত গোলকিপার ছিল। ২০০৯ গালফ কাপ অফ নেশনে টুর্নামেন্টের সেরা গোলকিপার নির্বাচিত হন। ২০১৫ এএফসি এশিয়ান কাপে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিজের ১০০ তম অধিনায়কত্ব পূরন করেন। সেই ম্যাচে ওমান ৪-০ গোলে পরাজিত হয়।

ব্যাক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

আলি আল হাবসি বিবাহিত এবং তার দুইটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

আল জাজিরাকে দেয়া একটি সাক্ষাত্কারে আল হাবসি জানান উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা শেষ করার পর তিনি বিমানবন্দরে চাকুরি করেন। অন্য আরেকটি সাক্ষাতকারে জানান তিনি আগে পেশাদার ফুটবলের সাথে জড়িত ছিলোনা। আল হাবসি ওমানভিত্তিক 'সেফটি ফার্স্ট' নামক একটি এনজিওর সহপ্রতিষ্ঠাতা। যা ওমানে সড়ক দুর্ঘটনা বিষয় জনসচেতনতা গড়ে তুলে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Goal.com – Asia – Ali Al-Habsi Focused On Bolton Survival
  2. "Ali Al-Habsi: Brighton sign Wigan goalkeeper on loan". BBC Sport. 1 November 2014. Retrieved 1 November 2014.
  3. "British Muslim Awards 2015 finalists unveiled"Asian Image. 23 January 2015. Retrieved 1 November 2015.

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]