আরশাদ আলী খান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আরশাদ আলী খান
জন্ম (1984-03-29) ২৯ মার্চ ১৯৮৪ (বয়স ৩৬)
ধরনহিন্দুস্তানি শাস্ত্রীয় সংগীত
পেশাসংগীত শিল্পী
সহযোগী শিল্পী
  • আবদুল করিম খান
  • আবদুল ওয়াহিদ খান
  • শাকুর খান
  • মাশকুর আলী খান
  • আমজাদ আলি খান
ওয়েবসাইটwww.arshadali.net

আরশাদ আলী খান হলেন কিরানা ঘরানার (গানের শৈলী) অন্তর্ভুক্ত একজন হিন্দুস্তানি শাস্ত্রীয় সংগীত শিল্পী।[১]

প্রাথমিক জীবন এবং শিক্ষা[সম্পাদনা]

তিনি কিরানা ঘরানার প্রতিষ্ঠাতা আবদুল ওয়াহিদ খান এবং আবদুল করিম খানের বংশের। [২] তিনি তার মামা মাশকুর আলী খান ও মোবারক আলী খানের কাছ থেকে সংগীতের শিক্ষা লাভ করেছিলেন। [৩][৪]

আরশাদ ৯ বছর বয়সে ভীমসেন যোশীর ৭৫ তম জন্মদিন উপলক্ষে একটি বিশেষ আমন্ত্রণে তার অভিনয়ের পরে সওয়াই গন্ধর্ব স্যামেলনের সবচেয়ে বড় সংবেদন হিসাবে বর্ণনা করেছিলেন। [৫][৬]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

আরশাদ আলী খান পুনেতে সওয়াই গন্ধর্ব ভীমসেন উত্সব [৭] জলন্ধরের হরবললভ সংগীত সম্মেলন,[৮] সপ্তক সংগীত উত্সব,[৯] করাভাল্লি উত্সব, মঙ্গলোর, সংগীত নাটক একাডেমীর 'সংগীত প্রতিভা' সহ বিশ্বজুড়ে অসংখ্য সংগীত উত্সবে অভিনয় করেছেন। পাটনা, মুম্বই ঘরানা সম্মেলন, ভাটখণ্ডে সংগীত সম্মেলন, কলকাতায় ডোভারলেন সংগীত উত্সব, বেঙ্গালুরুতে পারভীন বেগম স্মৃতি সংগীত ও শিক্ষাব্রত ট্রাস্ট আয়োজিত ধ্রুপদী সংগীত উত্সব,[৩] দিল্লির কিংবদন্তী ভারত বৈথক। [১]

আরশাদ আলী মেরুখন্ড ভিস্টার বা উন্নয়ন ব্যবহার করেন। [৩][৪][৫] তিনি কলকাতার আইটিসি সংগীত গবেষণা একাডেমির সংগীতশিল্পী।[১]

তিনি আইসিসিআর-এর একজন হিন্দুস্তানি শাস্ত্রীয় সংগীত শিল্পী।[১০] তার আন্তর্জাতিক ভ্রমণগুলি তাকে সমগ্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ইউরোপ এবং মধ্য প্রাচ্য এবং সিঙ্গাপুর জুড়ে নিয়েছে অসামান্য সাফল্য। তিনি প্যারিসের থিয়েটার ডি লা ভিল, আমস্টারডামের ট্রফেন থিয়েটার, মার্সেইলে ইন্দো-পার্সিয়ান ফেস্টিভ্যাল সংগীত, মরোক্কোর মাওয়াজাইন ফেস্টিভাল, ক্যালিফোর্নিয়ায় রাগ মালা, বাংলাদেশের বেঙ্গল ফাউন্ডেশন সংগীত সম্মেলন এবং আরও অনেক কিছুতে অভিনয় করেছেন। [১][৫][১১]

পুরস্কার এবং স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

আরশাদ আলি খান সংগীত নাটক একাডেমি কর্তৃক বিসমিল্লাহ খান যুব পুরস্কার ২০১৩ ভূষিত হয়েছেন। [১২] তিনি যাদুভূট্টা পুরস্কার, ভারতীয় সংসদের সেরা ভোকালিস্ট অ্যাওয়ার্ড, রস এবং মেল্টিং পট প্রোডাকশনের 'সেরা ইয়ং ট্যালেন্ট অব দ্য ইয়ার', সুর জ্যোতিষ্ণ জাতীয় পুরস্কারের জন্য লোকমাতা মহাচার এবং আকাশপাঠ কর্তৃক সেরা পুরস্কার প্রাপ্ত। [১][৫]

সিডি রিলিজ[সম্পাদনা]

বছর অ্যালবামের শিরোনাম লেবেল
২০০২ মূর্ছনা বেঙ্গল ফাউন্ডেশন
২০০৫ অমর বিহান
২০০৭ ঝলমলে কিরণ সারেগামা
২০১১ আলাপ ওরিওন বিনোদন

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ITC Sangeet Research Academy – Young Artist
  2. The others who left Kairana, many decades ago – The Indian Express
  3. Melodic downpour – The Hindu
  4. Scintillating Vocal and Sitar leaves the audience spell bound on concluding day of Three day Vocal and Sitar Festival of Pracheen Kala Kendra. – News 'n'
  5. "Music – Bengal Foundation"। ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  6. "Morning Raga Concert by Arshad Ali Khan | TheFoundations TV"। ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  7. Arshad Ali – sawai gandharva bhimsen mahotsav
  8. "Harivallabh Sangeet Samelan – Indian Classical Music"। ১২ জুন ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ 
  9. World News
  10. "List of Empanelled Artists – Indian Council for Cultural Relations"। ২৩ মে ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  11. Lifestyle – The Tribune
  12. "Press Release – Sangeet Natak Akademi" (PDF)। ২৬ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯