আকাশীতরার কথারে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আকাশীতরার কথারে
প্রযোজকসংগীতা তামুলী
রচয়িতামঞ্জু বোরা
চিত্রনাট্যকারমঞ্জু বোরা
কাহিনিকারমঞ্জু বোরা
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারতরালী শর্মা
চিত্রগ্রাহকরাজু মিশ্র
সম্পাদকএ শ্রীকর প্ৰসাদ
মুক্তি১৪ নভেম্বর ২০০৩
দেশভারত
ভাষাঅসমীয়া

আকাশীতরার কথারে ১৪ নভেম্বর ২০০৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত অসমীয়া ভাষার চলচ্চিত্র। চলচ্চিত্রটির কাহিনি-চিত্রনাট্য লিখেছেন মঞ্জু বোরা। চিত্রা কমিউনিকেশনের ব্যানারে চলচ্চিত্রটি নির্মিত হয়। তরালী শর্মা এই চলচ্চিত্রে কিমতে ভকতি করিব গানটি গেয়ে ২০০৩ সালে শ্রেষ্ঠ মহিলা নেপথ্য গায়িকার রাষ্ট্রীয় পুরস্কার লাভ করেন।[১]

কাহিনি[সম্পাদনা]

উচ্চশিক্ষা ও উচ্চাকাঙ্ক্ষী তরুণী আকাশীতরার জীবন নিয়ে নির্মিত হয়েছে চলচ্চিত্র। স্বাধীনচেতা মনোভাবের আকাশীতরার বিয়ের পর তার স্বাধীনতায় বাধা আসে। স্বামী রাঘব চৌধূরীর স্বেচ্ছাচারিতা ও অবাঞ্ছিত আচরণের কারণে আকাশীতরার মর্যাদা প্রতিমুহূর্তে বিনষ্ট হয়। ব্যক্তিত্বের স্বাধীনতার এমন অবাঞ্ছিত মূল্যায়ন আকাশীতরাকে ধীরে ধীরে হতাশ করতে করে, এবং সে ধীরে ধীরে বিবাহিত জীবন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।[১]

অভিনয় শিল্পী[সম্পাদনা]

কলা-কুশলী[সম্পাদনা]

  • শব্দগ্রহণ: যতীন শর্মা
  • কলা নির্দেশনা: ফটিক বড়ুয়া

পুরস্কার[সম্পাদনা]

  • সেন্সর বোর্ড থেকে 'এ' সনদপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রটি আঞ্চলিক ভিত্তিক শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রের জন্য কমল পুরস্কার লাভ করে। ২০০৪ সালে অনুষ্ঠিত ৫১ তম জাতীয় চলচ্চিত্র উৎসবে মঞ্জু বোরা ও প্রযোজক সঙ্গীতা তামুলিকে রজত কমল ও ২০০০ টাকা পুরস্কৃত করা হয়। চলচ্চিত্রের প্রসঙ্গে বলা হয়: "একজন নারীর তার ঐতিহ্যের সন্ধান করা এবং তার পরিচয় নষ্ট হওয়ার কারণ উভয় পাশাপাশি উপস্থাপনের জন্য, ২০০৩ সালের অসমীয়া শ্রেষ্ঠ পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র বিভাগে আকাশীতরার কথারেকে পুরস্কৃত করা হল।"[২]
  • তরালী শর্মা এই চলচ্চিত্রে গান গেয়ে ২০০৩ সালে শ্রেষ্ঠ মহিলা নেপথ্য গায়িকার রাষ্ট্রীয় পুরস্কার লাভ করেন।[২]
  • চলচ্চিত্রটি ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে দর্শক পুরস্কার পায়।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. দাস, অরুণলোচন (১২৯৭)। ১০০ অসমীয়া চলচ্চিত্ৰৰ কাহিনি আৰু গীত। গুরহাটী: শিশু-শশী প্ৰকাশন। পৃষ্ঠা ৪৭৮–৪৮০। 
  2. "51st Natioanl FIlm Awards, 2004" (PDF)। চলচ্চিত্র উৎসব অধিদপ্তর। ২০০৪। সংগ্রহের তারিখ ৫ আগস্ট ২০২০ 

টেমপ্লেট:শ্রেষ্ঠ অসমীয়া ভাষার পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার (ভারত)