অরুণা সুরেশ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মহামান্য বিচারক

অরুণা সুরেশ
ওড়িশা উচ্চ আদালতের বিচারক
কাজের মেয়াদ
২৮ অক্টোবর, ২০০৭ – ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১২
মনোনয়নকারীএস. এইচ. কাপড়িয়া
নিয়োগদাতাপ্রতিভা দেবীসিংহ পাটিল
দিল্লি উচ্চ আদালতের বিচারক
কাজের মেয়াদ
০৪ জুলাই, ২০০৬ – ২৭ অক্টোবর, ২০১০
মনোনয়নকারীযোগেশ কুমার সভরওয়াল
নিয়োগদাতাএ. পি. জে. আবদুল কালাম
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1950-02-19) ১৯ ফেব্রুয়ারি ১৯৫০ (বয়স ৭২)
প্রাক্তন শিক্ষার্থীদিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়

অরুণা সুরেশ (জন্ম ১৯ ফেব্রুয়ারি, ১৯৫০) হলেন ভারতের ওড়িশা উচ্চ আদালতের একজন প্রাক্তন বিচারক।[১] তিনি দিল্লি উচ্চ আদালতেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন।[২] ওড়িশার একটি আইনজীবী সমিতি তাঁর আদালত বর্জন করার পরে তিনি খবরের শিরোনামে এসেছিলেন। একজন বরিষ্ঠ আইন উপদেষ্টাকে, তিনি জড়িত ছিলেন না এমন একটি মামলায় হস্তক্ষেপ করা থেকে বিরত থাকতে বলায়, সমিতিটি তাঁর আদালত বর্জন করেছিল।।[৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

অরুণা সুরেশ ১৯৭৩ সালে দিল্লি জুডিশিয়াল সার্ভিসে দক্ষতা অর্জন করেছিলেন এবং প্রাথমিকভাবে অধস্তন দেওয়ানী বিচারক, মহানগর হাকিম, দেউলেদশা সম্পর্কিত বিচারক, ক্ষুদ্রকারণ আদালতের বিচারক এবং ভাড়া নিয়ন্ত্রকসহ বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে দিল্লির নিম্ন বিচার বিভাগে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ১৯৮৭ এবং ১৯৯১ এর মধ্যে, তিনি দিল্লির জেলা আদালতে আইনি সহায়তা (লিগ্যাল এইড) পরিষেবাদির সচিব হিসেবেও কাজ করেছিলেন।[১][২]

অরুণা সুরেশ ২০০৬ সালের ৪ঠা জুলাই দিল্লি উচ্চ আদালতে অতিরিক্ত বিচারক হিসাবে নিযুক্ত হয়েছিলেনন এবং ২০০৮ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি স্থায়ী বিচারক পদে উন্নীত হয়েছিলেন।[২][৪]

২০১০ সালের ২৮ অক্টোবরে তাঁকে দিল্লি উচ্চ আদালত থেকে ওড়িশা উচ্চ আদালতে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল।[১][৫] রাষ্ট্রপতি প্রতিভা পাতিল এই পদক্ষেপের আদেশ দিয়েছিলেন, তিনি সুপ্রিম কোর্টের সুপারিশক্রমে তখন ১১ জন বিচারককে স্থানান্তরিত করেছিলেন।[৬]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

অরুণা সুরেশ দিল্লিতে পড়াশোনা করেছিলেন। ১৯৬৯ সালে তিনি দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্দ্রপ্রস্থ কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন। তিনি দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদে আইন বিষয়ে পড়াশোনা করেছিলেন।[১][২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Former Judge | Justice Ms. Aruna Suresh"Orissa High Court, Cuttack। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-১৬ 
  2. "Former Judges: Justice Aruna Suresh"Delhi High Court 
  3. "Boycotted for asking lawyer to sit down, HC judge goes on leave - Indian Express"archive.indianexpress.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-১৬ 
  4. "HC acquits ex-army officer in parcel bomb case - Indian Express"archive.indianexpress.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-১৬ 
  5. Oct 28, Rajaram Satapathy | TNN |; 2010। "Justice Harjinder Singh Bhalla and Justice Aruna Suresh were sworn in as two new judges of Orissa high court on Thursday. With this the strength of judges in the high court reached 16 as against the sanctioned strength of 22. - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-১৬ 
  6. Venkatesan, J. (২০১০-১০-১৫)। "11 High Court judges shifted in ‘public interest'"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-১৬