হ্রদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হ্রদ

হ্রদ (ইংরেজি: Lake) হল ভূ-বেষ্টিত লবণাক্ত বা মিষ্টি স্থির পানির বড় আকারের জলাশয়। হ্রদ উপসাগর বা ছোট সাগরের মত কোন মহাসমুদ্রের সাথে সংযুক্ত জনয়, তাই এতে জোয়ার ভাটা হয় না। বিভিন্ন ভূ-তাত্ত্বিক কারণে মাটি নিচু হয়ে হ্রদের সৃষ্টি হতে পারে। স্তরীভূত শিলায় ভাঁজের সৃষ্টি হয়ে, অনেক বড় আকারের শিলাস্তর ফল্টের আকারে স্থানচ্যুত হলে, কিংবা ভূমিধ্বসের ফলে পাহাড়ী নদীর গতিপথে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়ে হ্রদের সৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া হিমবাহের মাধ্যমেও অনেক হ্রদ তৈরি হয়। হিমবাহগুলি এদের গতিপথে ভূ-পৃষ্ঠে গভীর খাঁজের সৃষ্টি করে এবং পরবর্তীতে কোন কারণে হিমবাহগুলি সরে গেলে এসব স্থানে হ্রদের সৃষ্টি হয়। উত্তর আমেরিকার অনেক হ্রদ এভাবেই তৈরি হয়েছে।

সরাসরি বৃষ্টিপাত ও হ্রদে পতিত হওয়া নদী বা জলধারা হ্রদে পানির সরবরাহ করে। বৃহত্তর ভৌগোলিক কালের প্রেক্ষাপটে হ্রদগুলি গঠিত হয়েছে, অদৃশ্য হয়েছে ও আবার গঠিত হয়েছে। ঊষর জলবায়ু অঞ্চলে হ্রদ শুকিয়ে বদ্ধ জলাভূমিতে পরিণত হয়। স্বল্প-বৃষ্টিপ্রবণ অঞ্চলে ঋতুভদে হ্রদগুলি পানিতে ভরাট হয় ও আবার বহুদিনের জন্য শুকিয়ে যায়।

যেসমস্ত হ্রদে বাষ্পীভবনের হার বেশি ও পানি উপচে পড়ার প্রবণতা কম, সেগুলিতে পানিতে দ্রবীভূত উপাদানগুলির ঘনত্ব বেড়ে যায় এবং এদের মধ্যে প্রধান উপাদানের প্রকৃতির উপর ভিত্তি করে অনেক সময় হ্রদের শ্রেণীবিভাগ করা হয়। যেমন লবণ হ্রদগুলির মূল দ্রব হচ্ছে সাধারণ লবণ, তিক্ত হ্রদগুলির মূল দ্রব হচ্ছে বিভিন্ন সালফেট; ক্ষারীয় হ্রদগুলিতে কার্বনেট; বোরাক্স হ্রদে বোরেট, ইত্যাদি।

সমুদ্র সমতল থেকে যেকোন উচ্চতাতেই হ্রদ গঠিত হতে পারে। সারা বিশ্বের হ্রদগুলি বিভিন্ন উচ্চতায় অবস্থিত।

বিশ্বের প্রায় অর্ধেক হ্রদ কানাডাতে অবস্থিত। উচ্চ অক্ষাংশের অঞ্চলে, বিশেষত পার্বত্য অঞ্চলে, যেখানে হিমবাহের ক্রিয়ার সম্ভাবনা আছে, সেখানে প্রচুর হ্রদ দেখা যায়।

অনেক হ্রদ মাছ ও খনিজ পদার্থের উৎস হিসেবে, অবকাশ কেন্দ্র হিসেবে ও অন্যান্য দিক থেকে বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ। কাস্পিয়ান সাগর, লেক সুপিরিয়রলেক ভিক্টোরিয়া বিশ্বের বৃহত্তম তিনটি হ্রদ। এদের মধ্যে কাস্পিয়ান সাগর সবচেয়ে বড় ও এর আয়তন ৩,৭০,৯৯৮ বর্গ কিলোমিটার। মৃত সাগর বিশ্বের নিম্নতম হ্রদ; এটি সমুদ্র তলদেশের ৪০৮ মিটার নীচে অবস্থিত। বৈকাল হ্রদ বিশ্বের গভীরতম মিষ্টি পানির হ্রদ; এটি সর্বোচ্চ ১৬৩৭ মিটার পর্যন্ত গভীর।

হ্রদের ধরনসমূহ[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]