শামবা জাতি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

শামবা জাতি বা শাম্বা জাতি (ইংরেজি: Shambaa people) (শামবা, শামবালা, সামবালা বা সামবারা নামেও পরিচিত) উত্তর-পূর্ব তানজানিয়ার উসাম্বারা পর্বতমালার একটি জাতি ও ভাষাগত গোষ্ঠী ভিত্তিক। ২০০১ সালে শামবা জাতির জনসংখ্যা ছিল ৬,৬৪,০০০ জন।[১]

শামবা উত্তর পূর্ব উপকূলবর্তী বান্টু ভাষার অন্তরগত। যদিও একটি গোষ্ঠী সোয়াহিলির অন্তর্ভুক্ত, কিন্তু সোয়াহিলি শামবার সাথে পারস্পরিক বোধগম্য নয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

উসামবারা এলাকাটি শুরুতে গ্রীষ্মকালীন মৌসুমে জার্মান ইস্ট আফ্রিকার ঔপনিবেশিক সদর দফতর ছিল। জার্মান উপনিবেশ হিসেবে তখন এর নাম ছিল তাঙ্গানিয়াকা। পরবর্তীকালে এটি তাঞ্জানিয়া প্রজাতন্ত্রের প্রধানতম অংশ হিসেবে যুক্ত হয়। শামবা শব্দটি তাঙ্গানিয়াকা শব্দ থেকে উদ্ভূত; এর অর্থ যথাক্রমে আবাদী ভূমি এবং খসখসে ভূমি। শামবা জাতির অত্যন্ত জনপ্রিয় উপকথারূপে এমবেঘা গল্পে বর্ণিত হয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Ethnologue report for language code:ksb"। Ethnologue.com। সংগৃহীত 2008-12-09